বৃহস্পতিবার ১৩ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং , ২৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

‘অনলাইনে ঝুঁকি নিরসনে করণীয়-বর্জনীয় জানা জরুরি’

নভেম্বর ৩০, ২০১৮ | ৬:৩৮ অপরাহ্ণ

।। সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট ।।

ঢাকা: “বর্তমানে অনলাইনে স্বাধীনভাবে মত প্রকাশের ক্ষেত্রে বিদ্যমান ঝুঁকি নিরসনে ব্যবহারকারীদের ‘করণীয় ও বর্জনীয়’ সম্পর্কে জানা জরুরি। এজন্য ইন্টারনেটের সাধারণ ব্যবহারকারীর পাশাপাশি গণমাধ্যম কর্মীদের জন্য যথাযথ অনলাইন নির্দেশিকা ও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রাখা উচিত।”

শুক্রবার (৩০ নভেম্বর) রাজধানীর ইত্তেফাক ভবনের সম্মেলন কক্ষে ‘বাংলাদেশে ডিজিটাল নিরাপত্তা, গণমাধ্যম নৈতিকতা ও গণমাধ্যম আইন’ শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালায় বক্তারা এমন মন্তব্য করেন।

মত প্রকাশের স্বাধীনতা বিষয়ক আন্তর্জাতিক সংগঠন ‘আর্টিকেল নাইনটিন’ ও ‘ডয়েচে ভেলে একাডেমি’ যৌথভাবে এই কর্মশালার আয়োজন করে। আর্টিকেল নাইনটিন, দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালক ফারুখ ফয়সলের সঞ্চালনায় কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার অধ্যাপক ড. গোলাম রহমান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক এম আবদুল্লাহ মামুন, প্রথম আলোর যুগ্ম সম্পাদক সোহরাব হাসান, সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ, সেলিম সামাদ, খায়রুজ্জামান কামাল প্রমুখ।

কর্মশালায় ডয়েচে ভেলে দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক সমন্বয়ক প্রিয়া এসেলবর্ন, পরামর্শক লুতফা আহমেদ ও ওদো প্রেনজেল উপস্থিত ছিলেন।

কর্মশালায় ড. গোলাম রহমান বলেন, ‘দেশে প্রচলিত গণমাধ্যম ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা সংশ্লিষ্ট আইনে অনেক সীমাবদ্ধতা রয়েছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে পুলিশকে যে অপরিমিত ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে, তাতে আইনের অপপ্রয়োগ ও ব্যাক্তির অধিকার লঙ্ঘনের আশংকা আছে। এ আইনের বিভিন্ন বিধান ব্যবহারকারীকে সুরক্ষা দেওয়ার বদলে হুমকি হিসেবে দেখা দিয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘পশ্চিমা গণমাধ্যম নিজেরা ভুল করলে স্বেচ্ছায় সেটি স্বীকার করে গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশ করে। আমাদের গণমাধ্যমগুলোতে এই চর্চা কম। এজন্য প্রতিটি গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানে নিজেদের লিখিত নীতিমালা ও আচরণ বিধি থাকা উচিত।’

কর্মশালার উদ্দেশ্য সম্পর্কে ফারুখ ফয়সল বলেন, ‘বিদ্যমান বাস্তবতায় ইন্টারনেট ব্যবহারে ঝুঁকির বিষয়টা এড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ নেই। ডিজিটাল নিরাপত্তা এখন সার্বজনীন ইস্যু। তাই এ সংক্রান্ত প্রচলিত আইন সম্পর্কে ব্যবহারকারী বিশেষত শিক্ষার্থী ও গণমাধ্যম কর্মীদের স্পষ্ট ধারণা থাকা উচিৎ। একই সঙ্গে অনলাইনে মত প্রকাশের ক্ষেত্রে করণীয়-বর্জনীয় ও নিজের ডিজিটাল অস্তিত্বের সর্বোত্তম সুরক্ষা নিশ্চিত কীভাবে করা যাবে তাও জানা উচিত।’

সারাবাংলা/ইএইচটি/এমও

‘অনলাইনে ঝুঁকি নিরসনে করণীয়-বর্জনীয় জানা জরুরি’
‘অনলাইনে ঝুঁকি নিরসনে করণীয়-বর্জনীয় জানা জরুরি’
‘অনলাইনে ঝুঁকি নিরসনে করণীয়-বর্জনীয় জানা জরুরি’