শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, ১১ ফাল্গুন, ১৪২৪, ৬ জমাদিউস-সানি, ১৪৩৯

একটি চিত্র প্রদর্শনী, একজন আর্যের জন্য

ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১৮ | ৬:১৫ অপরাহ্ণ

সারাবাংলা ডেস্ক

আর্যের বয়স ৮ বছরের মতো। তবে একটা আট বছরের বাচ্চা যেমন হয় তার চেয়ে অনেক বেশি অভিজ্ঞ একজন মানুষ সে। কারণ, আর্য তো কোনো সাধারণ বাচ্চা নয়। আর্য একজন ক্যান্সার সারভাইভার।

আর্যের যখন সাড়ে চার বছর বয়স তখন থেকে সে লড়ছে ব্রেন টিউমার ও ক্যান্সারের মতো ভয়ানক ব্যাধির সঙ্গে। তিন বছর ধরে চলা এ যুদ্ধে আর্যকে যেতে হয়েছে ভারতের ভেলোরে, ওর ছোট্ট শরীরে চলেছে অপারেশন, কেমোথেরাপি। এত কিছুর পরে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন আর্য এখন ভালো আছে। ওর শরীরে কোনো টিউমার নেই, কোনো ক্যান্সার নেই।

তবে ক্যান্সার এমন একটা অসুখ যেটা একবারেই সারে না। এটা ফিরে আসতে পারে যে কোনো সময়। তাই ক্যান্সার সারভাইভারদের নিয়মিত ফলোয়াপ লাগে। তা ছাড়াও আর্যের শরীরে কেমোথেরাপির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া রয়েছে, সেটারও চিকিৎসা চলছে।

আর্যের চিকিৎসার বিশাল খরচের ধকল সামলাতে ওর চিত্রকর বাবা বিপ্লব ভট্টাচার্য ১২-১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের চিত্রশালায় একটি একক চিত্র প্রদর্শনী করবেন। এই চিত্র বিক্রির টাকায় হবে আর্যের বাকি চিকিৎসা।

আর্যের মা সেঁজুতি জানান, ‘এক্সিভিশনটা অনেক সাহস আর বিশ্বাস নিয়েই করার উদ্যোগ নিয়েছিলাম। আপনারা আমাদের পাশে ছিলেন সবসময়। এবারও নিশ্চয় থাকবেন।
এক একটা ছবি বিক্রি আর তা দিয়ে এক একটা স্বপ্ন ক্রয় আমাদের জন্য। বেশির ভাগ ছবি আর্যর কেমো চলাকালীন সময়ে জলরঙে আঁকা। সেই রঙে মিশে আছে একজন বাবার চোখের জল, মায়ের কান্না , ক্যান্সার আক্রান্ত ছোট্ট শিশুর বুকের পাঁজর ভাঙা কষ্ট।’

আপনারা যদি আর্যের এই কঠিন সময়ে পাশে দাঁড়াতে চান, তবে আসতে পারেন ১২-১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের চিত্রশালায়। একটি চিত্রের বিনিময় যদি জেগে থাকে একটি শিশুর বেঁচে থাকার স্বপ্ন।

 

সারাবাংলা/এমএ

Tags: ,