সোমবার ২৩ জুলাই, ২০১৮, ৮ শ্রাবণ, ১৪২৫, ৯ জিলক্বদ, ১৪৩৯

‘এনবিআরের সিদ্ধান্ত যেন আতঙ্ক সৃষ্টি না করে’

জানুয়ারি ১৩, ২০১৮ | ৮:২৭ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

‘জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এর পক্ষ থেকে এমন কোন প্রোগ্রাম নেওয়া ঠিক হবে না, যা আতঙ্ক সৃষ্টি করে। অবশ্যই নতুন কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণের আগে যেন স্টেক হোল্ডারদের সাথে আলোচনা করা হয়।’ ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) এর সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন এই কথা বলেছেন।

শনিবার (১৩ জানুয়ারি) বিকেলে মতিঝিলের চেম্বার কার্যালয়ে আয়োজিত ‘এফবিসিআই-ইআরপি (এনগেজ, রিফ্লেক্ট, প্ল্যান অ্যাকশন)-২০১৮’ শীর্ষক আলোচনায় তিনি এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে এক ব্যবসায়ী জানান, কর অঞ্চল-৭ এর পক্ষ থেকে ক্রাশ প্রোগ্রাম জরিপ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ওই এলাকায় আয়কর সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। জানতে চাওয়া হচ্ছে আয়ের উৎস। এতে অনেক ব্যবসায়ী শঙ্কিত হয়ে পড়ছেন।

ওই ব্যবসায়ীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, ‘গত বাজেটে এনবিআর ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে বড় ব্যবধান সৃষ্টি হয়। আমাদের মধ্যে যাতে আর কোনও ব্যবধান সৃষ্টি না হয় তা লক্ষ্য রাখতে হবে।’

এ বিষয়ে তিনি বলেন, অনেক এজেন্সি আছে, যার মাধ্যমে ব্যবসায়ীরা হয়রানির শিকার হয়। বিশেষত ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীরা। তিনি আরও বলেন, সমুদ্র বন্দর নিয়ে আমাদের কাঠামোগত সমস্যা রয়েছে। আর এই সময়টিতেই ব্যবসায়িক পরিবেশ উন্নয়ন সূচক ‘ইজ অব ডুয়িং বিজনেস’-এ বাংলাদেশের অবস্থান ১৭৬ থেকে ১৭৭ নেমে গেছে। এখানে যেসব সমস্যা নিয়ে আলোচনা হয়েছে তা সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে তুলে ধরবো।

এ সময় তিনি দেশের প্রিন্টিং শিল্প অভাবনীয় সাফল্য দেখিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন। অনুষ্ঠানে এফবিসিআইয়ের ২৫টি অঙ্গ সংগঠন তাদের নানা সমস্যা আর প্রতিবন্ধকতার কথা তুলে ধরেন।

অ্যামটবের এক প্রতিনিধি জানান, বিমানের টিকেট কেনা-বেচায় কিছু বিদেশি অ্যাপস ব্যবহৃত হচ্ছে। এসব অ্যাপ ব্যবহার করে যে টিকেট কাটা হচ্ছে তাতে সরকার রাজস্ব পাচ্ছে না। অথচ যে টিকেট আমরা ৩০ হাজার টাকায় বিক্রি করি, তা বিক্রি করছে ২০ হাজার টাকায়। কর না দেওয়ায় এটা সম্ভব হচ্ছে।

সংগঠনের আরেক প্রতিনিধি বলেন, শিশা আমরা বিদেশ থেকে আমদানি করছি। অথচ একই শিশা ভারতে রফতানি হচ্ছে। এটি খতিয়ে দেখা দরকার।

এ সময় বাংলাদেশ বিউটিপার্লার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে জনানো হয়, নারীদের বিউটিপার্লারে যেন এনবিআর এর নারী প্রতিনিধি পাঠানো হয়।

এগ্রিকালচারাল মেশিনারি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে কৃষি যন্ত্রপাতি আমদানিতে ভ্যাট ও ট্যাক্স মওকুফের আবেদন করা হয়।

এ ছাড়া বাংলাদেশ বুটিক হাউস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য বাণিজ্য মেলাসহ বিভিন্ন মেলায় আলাদা স্টল বরাদ্দের দাবি জানানো হয়।

বিভিন্ন প্রশ্ন আর অভিযোগের উত্তর দিতে গিয়ে এনবিআরের ভ্যাট নীতির প্রথম সচিব হাসান মো. তারেক রিকাবদার বলেন, এখানে যে বিষয়গুলো উঠে এসেছে সেগুলো এনবিআর চেয়ারম্যানের সামনে তুলে ধরা হবে। আশাকরি নারীদের বিউটিপার্লারে এনবিআরের নারী সদস্যই পাঠানো হবে। কৃষি যন্ত্রপাতি আমদানির ক্ষেত্রে তিনি সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব দেওয়ার আহবান জানান। আর ক্রাশ প্রোগ্রাম সম্পর্কে তিনি বলেন, বিষয়টি এনবিআর চেয়ারম্যানের কাছে জানানো হবে।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন এফবিসিআইয়ের সিনিয়র সহসভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, সহসভাপতি মো. মুনতাকিম আশরাফ এবং বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের প্রতিনিধি ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতিনিধিরা।

সারাবাংলা/ইএইচটি/এনএস/এমআই

‘এনবিআরের সিদ্ধান্ত যেন আতঙ্ক সৃষ্টি না করে’
‘এনবিআরের সিদ্ধান্ত যেন আতঙ্ক সৃষ্টি না করে’