বুধবার ১৯শে ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং , ৫ই পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১০ই রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

এ কেমন বাবা!

নভেম্বর ১৮, ২০১৮ | ৯:১৫ অপরাহ্ণ

।। ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট ।।

রাঙামাটি : রাঙামাটির কাউখালী উপজেলায় পাঁচ বছরের সন্তানকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ৯ দিন আগে অর্থাৎ গত ৯ নভেম্বর নিজের সন্তানকে হত্যা করে জঙ্গলে ফেলে যান এক্কা চাকমা (২৬)।

একদিন পলাতক থাকার পর রোববার (১৮ নভেম্বর) তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে এরেক্কা চাকমাই সন্তান নীরব চাকমার লাশ কোথায় ফেলেছিলেন তা দেখিয়ে দেন। সেই অনুযায়ী রোববার বিকেলে মঘাছড়ি চন্দ্রবংশ শিশু সদন এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ।

কাউখালী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আল আমিন সাংবাদিকদের এসব কথা জানিয়েছেন। তিনি জানান, এরেক্কা খাগড়াছড়ি জেলার গামারী ঢালা গ্রামের বাসিন্দা। স্ত্রী অন্তরা চাকমা (২০) কে নিয়ে চট্টগ্রাম শহরের একটি ভাড়া বাসায় বাস করতেন তিনি। অন্তরা পেশায় একজন পোশাক শ্রমিক। কিন্তু এরেক্কা ছিলেন বেকার। তাদের ৫ বছর বয়সী একমাত্র সন্তান নীরবের দেখভাল করে চাকরি করা কঠিন হয়ে উঠছিল অন্তরার জন্য। এজন্য সন্তানকে দেখভালের দায়িত্ব দেন এরেক্কাকে। কিন্তু বিষয়টি নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায়ই মতবিরোধ দেখা দিত। এরই জের ধরে ৮ নভেম্বরও ঝগড়া হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এরেক্কা জানিয়েছেন, পরদিন ৯ নভেম্বর ছেলেকে নিয়ে কাউকে কিছু না বলে ঘর থেকে বের হয়ে যান তিনি। পরে চট্টগ্রাম-রাঙামাটি সড়কের কাউখালী উপজেলার মঘাছড়ি এলাকার চন্দ্রবংশ শিশু সদনের নির্জন পাহাড় ঘেরা রাস্তায় গলা টিপে শিশু সন্তানকে হত্যা করে জঙ্গলে ফেলে দেন। অন্তরা বাড়ি ফিলে সন্তানকে না পেয়ে সন্দেহ করেন স্বামীকেই। আত্মীয়দের সহায়তায় অন্তরা স্বামীকে আটক করে রোববার দুপুরে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন। পরে পুলিশ এরেক্কার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী শিশু নীরবের লাশ উদ্ধার করে।

সারাবাংলা/এসএমএন

Tags: ,

এ কেমন বাবা!
এ কেমন বাবা!
এ কেমন বাবা!