শুক্রবার ১৯ জানুয়ারি, ২০১৮, ৬ মাঘ, ১৪২৪, ১ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৩৯

Live Score

এ বছর তিন ফরম্যাটের সেরারা

ডিসেম্বর ৩০, ২০১৭ | ৪:২৯ অপরাহ্ণ

সারাবাংলা ডেস্ক

হারিয়ে যাচ্ছে আমাদের থেকে আরেকটি বছর। হাঁটি হাঁটি করে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা পার করলো আরো একটি বছর। টাইগারদের হালচাল সম্পর্কে এবার হিসেব-নিকেশ করার পালা। তাদের পারফরমেন্সের অংক কষতে বসে দেখা যাবে কারো প্রাপ্তির সংখ্যা খুব বেশি, কারো বা কম। আবার কারো বা সমান সমান।

চলুন দেখে নেওয়া যাক, ২০১৭ সালে কোন তারকা বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেছেন, কে পেয়েছেন সর্বোচ্চ উইকেট। তিন ফরম্যাট মিলিয়ে কে এগিয়ে।

টেস্টের সেরা মুশি: সাদা পোশাকে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের থেকে এগিয়ে মুশফিকুর রহিম। সদ্যই সাকিবের কাছে অধিনায়কত্ব হারানো মুশফিক এ বছর ৮ টেস্ট খেলেছেন। ১৬ ইনিংসে করেছেন ৭৬৬ রান। দুইবার অপরাজিত থাকা এই মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যান ১৫৯ রানের সর্বোচ্চ ইনিংস খেলেছেন। ৫৪.৭১ গড়ে দুটি সেঞ্চুরি আর তিনটি হাফ-সেঞ্চুরিও করেছেন মুশি। এ বছর সাদা পোশাকে তার ব্যাট থেকে এসেছে ৮০টি বাউন্ডারি, ৭টি ওভার বাউন্ডারি। টেস্টে এ বছর সর্বোচ্চ রান করেছেন ১১ ম্যাচ খেলা অস্ট্রেলিয়ার দলপতি স্টিভেন স্মিথ। সর্বোচ্চ ৬টি সেঞ্চুরিতে তিনি করেছেন ১৩০৫ রান।

ওয়ানডের সেরা তামিম: এ বছর ১২টি ওয়ানডের ১১টি ইনিংস থেকে তামিম ইকবাল সংগ্রহ করেছেন ৬৪৬ রান। ৬৪.৬০ ব্যাটিং গড় তার স্ট্রাইকরেট ছিল ৮৩.১৪। দুটি সেঞ্চুরির পাশাপাশি টাইগার এই ওপেনারের ব্যাট থেকে ৪টি হাফ-সেঞ্চুরির ইনিংসও দেখা গেছে। ২৬টি ওয়ানডে খেলে এ বছর সর্বোচ্চ ৬টি সেঞ্চুরি পাওয়া ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি করেছেন সর্বোচ্চ ১৪৬০ রান।

টি-টোয়েন্টিতে এগিয়ে সৌম্য: টেস্ট কিংবা ওয়ানডেতে দুর্দান্ত পারফর্ম দেখাতে না পারলেও টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের অন্যদের থেকে এগিয়ে সৌম্য সরকার। টাইগার এই ওপেনার এ বছর মাত্র ৭টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন। ৩৩.৫৭ ব্যাটিং গড়ে করেছেন বাংলাদেশের জার্সিতে সর্বোচ্চ ২৩৫ রান। কোনো ফিফটি নেই তার ইনিংসে, ইনিংস সর্বোচ্চ রান ৪৭। ৯ ম্যাচ খেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওপেনার এভিন লুইস একটি সেঞ্চুরি আর দুটি হাফ-সেঞ্চুরিতে এ বছর সর্বোচ্চ ৩৫৭ রান করেছেন।

সাদা পোশাকের সেরা শিকারি সাকিব: টেস্ট ফরমেটে উইকেট নেওয়ার দিক থেকে বাংলাদেশি অন্য বোলারদের ছাড়িয়ে গেছেন সাকিব আল হাসান। এ বছর সাদা পোশাকে সাকিবের দখলে ২৯ উইকেট। মাত্র ৭টি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছেন সাকিব। ইনিংসে সেরা বোলিং ফিগার ৮৬ রানের বিনিময়ে ৫ উইকেট। আর ম্যাচে ১৫৩ রানের বিনিময়ে নিয়েছিলেন ১০ উইকেট। ১১ ম্যাচ খেলে অস্ট্রেলিয়ার স্পিনার নাথান লিওন নিয়েছেন সর্বোচ্চ ৬৩ উইকেট।

ওয়ানডেতে পিছিয়ে থেকেও এগিয়ে মোস্তাফিজ: এ বছর খুব বেশি ওয়ানডে ম্যাচ খেলা হয়নি মোস্তাফিজুর রহমানের। খেলেছেন মাত্র ১১টি ম্যাচ, নিয়েছেন মাত্র ১৪টি উইকেট। ১৩ ম্যাচে ১৩ উইকেট নিয়ে দুইয়ে মাশরাফি। পুরো তালিকা তৈরি করলে মোস্তাফিজের র‌্যাঙ্ক ৪২ নম্বরে, মাশরাফির ৪৬ নম্বরে। এক নম্বরে পাকিস্তানের পেসার হাসান আলি। ১৮ ম্যাচ খেলে সর্বোচ্চ ৪৫ উইকেট নিয়ে শীর্ষে এই পাকিস্তানি পেসার।

টি-টোয়েন্টিতেও টাইগার সেরা সাকিব: টেস্টের মতো বাংলাদেশের হয়ে টি-টোয়েন্টিতেও সর্বোচ্চ উইকেট নিয়ে বছর শেষ করতে যাচ্ছেন সাকিব। ৭ ম্যাচ খেলা এই স্পিন অলরাউন্ডার নিয়েছেন ৮টি উইকেট। মোট ২৬ ওভার বল করে সেরা বোলিং ফিগার ২৪ রানে ৩ উইকেট। ১৮৭ রান খরচ করা সাকিবের ইকোনমি ৭.১৯। ৭.৮৩ ইকোনমি নিয়ে ১১ ম্যাচ খেলে এ বছর সর্বোচ্চ ২৩ উইকেট নিয়েছেন ভারতের যুভেন্দ্র চাহাল।

সারাবাংলা/এমআরপি