শুক্রবার ২০ এপ্রিল, ২০১৮ , ৭ বৈশাখ, ১৪২৫, ২ শাবান, ১৪৩৯

কেমন ছিল শিল্পকলার ১৭?

ডিসেম্বর ৩০, ২০১৭ | ৩:৩২ অপরাহ্ণ

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপনডেন্ট

বছর শেষ হতে মাঝে আর একটি দিন। নতুন বছরকে সামনে রেখে অনেকেই সাজাচ্ছেন নতুন পরিকল্পনা। কেউ আবার খাতায় টুকে রাখছেন পুরনো বছরে ঘটে যাওয়া নানা ঘটনা। এবার একটু হিসেব করে দেখা যাক কেমন ছিলো শিল্পকলা একাডেমি গত বছরটি।

শেষ হতে যাওয়া এই বছরে শিল্পকলা একাডেমির কার্যক্রম দেশের প্রান্তিক মানুষদের অনেক কাছাকাছি পৌঁছুতে পেরেছে। দেশের প্রায় প্রতিটি উপজেলায় শুরু হয়েছে একাডেমির কার্যক্রম। আগামী বছরের প্রথম অর্ধেই শিল্পকলাকে ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়ে যাবার উদ্যোগের কথা জানালেন প্রতিষ্ঠানের মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য ছিলো শিল্পকে প্রতিটি মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া। সেই লক্ষ্যে ইতিমধ্যে আমরা শিল্পকলার কার্যক্রমকে উপজেলা পর্যায়ে নিয়ে যেতে পেরেছি। পরবর্তীতে এই কার্যক্রম আমরা ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়ে যেতে কাজ শুরু করবো।’

২০১৭ সালে শিল্পকলার কার্যক্রম কেমন ছিলো? এই প্রশ্নের উত্তরে সারাবাংলাকে লিয়াকত আলী লাকী বলেন, ‘এ বছর আমরা শিল্পের সমস্ত শাখাকে ধরার চেষ্টা করেছি। শিশু থেকে শুরু করে প্রবীণ পর্যন্ত সবার অংশগ্রহণমূলক অনুষ্ঠান ছিলো বছর জুড়ে। সেই সঙ্গে প্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক শিশুদের জন্যও অনুষ্ঠান আয়োজন করেছি। ঢাকার ভেতর প্রায় ১০০টি স্কুলে এবং সারাদেশে ২৫টি স্কুলে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা করেছি। এছাড়াও যাত্রা, লোকজ সংস্কৃতি, চলচ্চিত্র, ফটোগ্রাফি নিয়ে নিয়মিত উৎসবগুলো প্রতিবছরের মতোই অনুষ্ঠিত হয়েছে।’

শিল্পকলার নিয়মিত আয়োজনগুলোর বাইরে বছরজুড়ে নাটকে সরগরম ছিল শিল্পকলার নাট্যাঙ্গন। এখানে মঞ্চস্থ হওয়া সবচেয়ে আলোচিত নাটক ছিল সৈয়দ জামিল আহমেদ নির্দেশিত নাটক ‘রিজওয়ান’। বাংলাদেশের নাট্যাঙ্গনে দারুণ আলোচনা তৈরি করেছে নাটকটি। এ নাটকটি দেখার জন্য সিনেমার দেখার মতোই ভীড় হয়েছে শিল্পকলায়। ‘নাটবাঙলা’-এর এই নাটকটি জনপ্রিয়তার কারণে এবারই প্রথম ঈদের দিনেও ছিল মঞ্চনাটকের প্রদর্শনী।

এ বছরের শিল্পকলার জন্য আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা লোক নাট্যদলের ‘কঞ্জুস’ নাটকটির ৭০০তম প্রদর্শনী। বাংলাদেশের মঞ্চনাটকের ইতিহাসে কোন নাটকের ৭০০তম প্রদর্শনীর এটিই প্রথম ঘটনা। ফরাসি নাট্যকার মলিয়েরের ‘দ্য মাইজার’ অবলম্বনে নাটকটি অনুবাদ করেছেন তারিক আনাম খান। নির্দেশনা দিয়েছেন লিয়াকত আলী লাকী। এছাড়াও বিভিন্ন নাট্যোৎসব, পুরনো নাটকের নিয়মিত মঞ্চায়ন প্রদর্শনীতে বছরই সরব ছিল শিল্পকলার নাট্যমঞ্চ।

লিয়াকত আলী লাকী বলেন, ‘এ বছরে নাটকে প্রচুর দর্শক সমাগম হয়েছে। থিয়েটারের টিকেট কেনার জন্য রীতিমতো লড়াই করতে হয়েছে। এমনটা সাধারণত নাটকে দেখা যায় না। তবে বেশ কয়েকটি নাটকের জন্য এবারের চিত্রটা পাল্টে গেছে।’

সারাবাংলা/টিএস/পিএম

 

আরও পড়ুন