সোমবার ১৭ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং , ৩রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৯ই রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

কোন জোটে জাপা থাকবে, এককভাবে সিদ্ধান্ত নেবেন এরশাদ

নভেম্বর ২০, ২০১৮ | ১০:২৪ অপরাহ্ণ

।। স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট ।।

ঢাকা: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটে থেকে নির্বাচন করার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত অন্য কোনো জোটে জাতীয় পার্টি (জাপা) যাবে কি না, সে সিদ্ধান্ত এককভাবে নেবেন দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

তিনি বলেন, রাজনৈতিক মেরুকরণে যদি অন্য কোনো জোটে যেতে হয়, আমি এককভাবে সেই সিদ্ধান্ত নেব।

মঙ্গলবার (২০ নভেম্বর) রাজধানীর গুলশান-১-এর ইমানুয়েলস মিলনায়তনে দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টির ৩০০ আসনের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করতে এককভাবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে এরশাদকে।

এর আগে, প্রেসিডিয়াম সদস্যদের সভাতেও ভোট, জোট ও দলীয় প্রার্থিতা চূড়ান্তের সিদ্ধান্ত তার ওপরেই ন্যস্ত করা হয়। অনুষ্ঠানে মোট ২৮৬৫টি মনোয়নয়নপত্র থেকে বাছাই করে ৭৮০টি মনোনয়নপত্র এরশাদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে এরশাদ বলেন, দেশ, পার্টি ও দলের নেতাকর্মীদের কথা বিবেচনা করেই ৩০০ আসনে প্রার্থিতা চূড়ান্ত করা হবে। আমি ৩০০ আসনে মনোনয়ন চূড়ান্ত করব, এখানে আর কারও দায়িত্ব নেই। প্রাথমিকভাবে ৩০০ প্রার্থী ঘোষণার পর সম্মিলিত জাতীয় জোটের সঙ্গে বসে প্রার্থিতা চূড়ান্ত করা হবে। এ বছর সর্বোচ্চ মনোনয়নপত্র বিক্রি হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ বলেন, এখনও মামলা আছে আছে আমার নামে। একটা দিনের জন্যও মুক্ত ছিলাম না, এখনও নেই। একটা দিনের জন্যও সুখে ছিলাম না, শান্তিতে ছিলাম না। এখনও মামলা ঝুলছে আমরা, একটাও নিষ্পত্তি হয়নি। আমার মতো দুঃখী রাজনীতিবিদ আর কেউ নেই।

খালেদা জিয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, কারাগারে আমার চিকিৎসা হয়নি। খালেদা জিয়া বলেছিলেন, এরশাদকে মরতে দাও। কিন্তু এরশাদ মরে নাই, জাতীয় পার্টি এখনও বেঁচে আছে। জাতীয় পার্টিকে বাঁচিয়ে রেখেছি আজকের দিনটির জন্য। আজ মাঠে আছে আওয়ামী লীগ আর জাতীয় পার্টি। আর কোনো দল নেই।

এর আগে, জাতীয় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ও দশম জাতীয় সংসদে বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ ও দলের মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার বক্তৃতা করেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যরিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, কাজী ফিরোজ রশীদ, জিয়া উদ্দিন আহমেদ বাবলু, অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন খান, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, শেখ মুহম্মদ সিরাজুল ইসলাম, ফখরুল ইমাম, মুজিবুল হক চুন্নুসহ দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা।

সারাবাংলা/এএইচএইচ/টিআর

Tags: ,

কোন জোটে জাপা থাকবে, এককভাবে সিদ্ধান্ত নেবেন এরশাদ
কোন জোটে জাপা থাকবে, এককভাবে সিদ্ধান্ত নেবেন এরশাদ
কোন জোটে জাপা থাকবে, এককভাবে সিদ্ধান্ত নেবেন এরশাদ