শনিবার ২৬ মে, ২০১৮ , ১২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫, ১০ রমযান, ১৪৩৯

খালেদা জিয়ার জামিননামার আবেদন জমা

মে ১৬, ২০১৮ | ৭:১৬ অপরাহ্ণ

।। স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ।।

ঢাকা: জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষে মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের জিআর শাখায় আপিল  বিভাগের আদেশ  পৌঁছার আগেই জামিননামা জমা দিয়েছেন তার আইনজীবীরা।

বুধবার (১৬ মে) সকালে আপিল বিভাগ ওই মামলায় জামিন বহাল রাখার আদেশ দেওয়ার পর দুপুরে খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া এবং মাসুদ আহমেদ তালুকদার জামিননামা ও তা দাখিলের অনুমতির আবেদন আদালতে জমা দেন।

খালেদা জিয়ার জামিন বহাল, ‘মুক্তি এখনই নয়’

এই জামিননামায় অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া ও মাসুদ আহমেদ তালুকদার স্থানীয় জামিনদার হয়েছেন। জামিননামা দাখিল সম্পর্কে জুডিশিয়াল পেশকার ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, খালেদা জিয়ার পক্ষে জামিননামা ও তা দাখিলের অনুমতির আবেদন জিআর শাখায় দাখিল করা হয়েছে। কিন্তু আপিল বিভাগের আদেশ না পাওয়া পর্যন্ত তা আদালতে উপস্থাপন করা যাবে না। আদেশ আসার পরই সব কিছু ঠিক থাকলে আদালতের অনুমতির  জামিননামা কারাগারে পাঠানো হবে।

আরও ৬ মামলায় জামিন পেতে হবে খালেদাকে

এর আগে গত ১২ মার্চ হাইকোর্ট মামলাটিতে খালেদা জিয়াকে ৪ মাসের জামিন দেন।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ জজ ড. মো. আখতারুজ্জামান ওই মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ৫ বছর সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন। রায়ের পর ওইদিনই তাকে পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিনের রোর্ডের কারাগারে নেওয়া হয়। এরপর থেকে তিনি ওই কারাগারেই আছেন।

মামলার অভিযোগ করা হয়েছে যে, এতিমদের জন্য বিদেশ থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে। ২০০৯ সালের ৫ আগস্ট দুদক আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয় । ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় এই মামলাটি দায়ের করা হয়।

অরফানেজ মামলায় খালেদা জিয়া ছাড়া অপর পাঁচ আসামি হলেন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদার বড় ছেলে তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, সাবেক প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান।

আসামিদের মধ্যে ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও মমিনুর রহমান মামলার শুরু থেকেই পলাতক। বাকিরা জামিনে আছেন।

সারাবাংলা/এআই/জেডএফ

আরও পড়ুন