বৃহস্পতিবার ১৬ আগস্ট, ২০১৮, ১ ভাদ্র, ১৪২৫, ৪ জিলহজ্জ, ১৪৩৯

21st February

গরমের ঈদে পরম সাজ

মে ২৪, ২০১৮ | ১:০৩ অপরাহ্ণ

রাজনীন ফারজানা।।

যদিও এবারের বৈশাখের শুরু থেকেই ঝড় বৃষ্টি লেগেই আছে, তবু গরম কিন্তু হাত পা গুটিয়ে বসে নেই। মেঘলা দিনে ভ্যাপসা গরমে প্রাণ আইঢাই। মেঘ ছাপিয়ে ক্ষণে ক্ষণে সূর্যের তাপও হয়ে উঠছে প্রচন্ড। উত্তপ্ত চারপাশ। নদনদীর পানি গেছে শুকিয়ে। মাটিতে ফাটল।

এদিকে ঈদটাও পড়ছে একেবারে গরমের দিনে। অথচ ঈদে নতুন পোশাক, আলাদা সাজসজ্জা ছাড়া চলবেও না। এরকম রুক্ষ শুষ্ক নিদারুন গরমের দিনে ঈদের পোশাক নিয়ে ভাবনা চিন্তা করতেই হয়। সবাই জানি, এই সময় পোশাকটা হওয়া চাই আরামদায়ক। ফ্যাশন হাউজ অঞ্জনসের স্বত্বাধিকারী শাহীন আহম্মেদ বলেন, এদেশের আবহাওয়ায় এখন সারাবছরই গরম থাকে। এমন গরম আবহাওয়ায় প্রাকৃতিক তন্তু দিয়ে বোনা কাপড় যেমন সিল্ক, খাদি, এন্ডি তৈরি পোশাক বেছে নিলে কিছুটা আরাম পাওয়া যায়।

 

রঙধনু ক্রিয়েশনসের হ্যান্ডপেইন্টেড কুর্তিতে

সূর্যের প্রখর তাপ থেকে বাঁচতে সাদা কিংবা হালকা রঙের পোশাকে আরাম পাওয়া যায়। কারণ, সাদা রঙ সূর্যের আলো বিকর্ষণ করে। অন্যদিকে কালোসহ অন্যান্য গাঢ় রঙ সূর্যের তাপ শুষে নেয়। তাই গরম বেশি লাগে। তবে কি গ্রীষ্মে শুধুই সাদা আর অন্যান্য হালকা রঙ পরতে হবে?

এবার গ্রীষ্মে রাস্তার পিচ গলতে না দেখা গেলেও রাস্তার দু’পাশ দিয়ে উজ্জ্বল কৃষ্ণচূড়া, কনকচূড়া, সোনালু আর জারুলের সমারোহ দেখা যাচ্ছে।  ভ্যাপসা গরম আছে, তবু প্রকৃতির সেই রঙ কি আমাদের মন একটুও রাঙিয়ে দিয়ে যায় না? চারদিকে এতো রঙ দেখলে আমাদেরও কী ইচ্ছে জাগেনা রঙিন কাপড় পরি?

অঞ্জনসের আরামদায়ক স্লিভলেস সালোয়ার কামিজ ওড়না

প্রকৃতির রঙের কথা মাথায় রেখেই ফ্যাশন ডিজানাইররা বাজারে আনছেন রঙিন পোশাক। শাহীন আহম্মেদ বলেন, যদিও গ্রীষ্মে হালকা রঙই বেছে নিই আমরা কিন্তু উৎসব আয়োজনে উজ্জ্বল রঙের পোশাকও আমরা পরি। তিনি আরও বলেন, গরমে পোশাকের রঙের চাইতে ফেব্রিক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

তবে রঙিন পোশাক পরলেও মাথায় রাখতে হবে কাপড়ের বিষয়টা। আর উজ্জ্বল রঙগুলোর ক্ষেত্রে বেছে নিতে হবে যতটা সম্ভব হালকা শেডটি। এসময় নরম, আরামদায়ক গোলাপি, মভ বা হালকা বেগুনী, বেবি ব্লুর মতো প্যাস্টেল শেডের রঙের পোশাক আরামের পাশাপাশি এনে দেবে স্বস্তিও।

কালো কিন্তু আরামদায়ক ফেব্রিকে লা রিভের সামার জ্যাকেট ও প্যান্ট

তাই ঈদের দিন গরমের ভয়ে হালকা রঙের পোশাক বেছে না নিয়ে বেছে নিন নিজের পছন্দের রঙের পোশাকই। তবে মাথায় রাখতে হবে কাপড়টা যেন হয় আরামদায়ক।  সাথে সাজগোজ আর গয়নাগাটি হওয়া চাই মানানসই। ভারী মেকাপ না করে চোখে হালকা কাজল, পাউডার আর হালকা লিপস্টিকেই পূর্ণ হয়ে যায় গরমের সাজ। শাহীন আহম্মেদ বলেন, গরমের দিনে যে পোশাকই পরুন না কেন, পোশাকের ফিটিংস যেন স্বচ্ছন্দ হয় সেটা মাথায় রাখতে হবে।

অঞ্জনসের অ্যাপ্লিক এমব্রয়ডায়েরি ও ব্লকের জমকালো সুতি শাড়ি

রাতে বেছে নিতে পারেন সুতির শাড়ি। শাড়ির সাথে দিনের বেলা হালকা গয়না পরলে রাতে পরার জন্য আলাদা কোন ভারী গয়না নিয়ে যেতে পারেন। আবার এখন ব্লাউজের কাটে ও ডিজাইনেও নানা বৈচিত্র্য দেখা যায়। তাই বেছে নিতে পারেন হ্যান্ডপেইন্টেড কিংবা অন্য কোন কাজকরা ব্লাউজ। সারাদিন বেঁধে রাখা চুলটা ছেড়ে দিয়ে, সাজগোজ ঠিকঠাক করে আর গয়না বদলেই নিজেকে করে ফেলতে পারেন পার্টি রেডি। এক্ষেত্রে নজর দিন ব্যাগ আর জুতাটা যেন হয় পার্টিতে যাওয়ার উপযোগী।

লা রিভের সুতি সামার জ্যাকেট, সাথে লিলেনের পালাজ্জো

ফ্যাশনহাউজগুলোতে পাওয়া যায় নানারকম সামার জ্যাকেট। স্লিভলেস এসব জ্যাকেট পেয়ার আপ করতে পারেন ম্যাচিং প্যান্ট কিংবা পালাজ্জোর সাথে। জ্যাকেটের সাথে ম্যাচিং করে ট্যাং টপ কিংবা ক্রপ টপ পরুন। মানানসই একসেসরিজ, আর হালকা মেকাপেই আপনি গরম দিনের ঈদ উদযাপন  করতে তৈরি।

ছবি- আশীষ সেনগুপ্ত

মডেল- আত্রলিতা

ফিচার ফটো পোশাক- শাড়ি অঞ্জনস, ব্লাউজ রঙধনু ক্রিয়েশনস

গহনা- অঞ্জনস ও লা রিভ

লোকেশন- কফি বিন অ্যান্ড টি লিফ

 

সারাবাংলা/আরএফ/এসএস

 

 

গরমের ঈদে পরম সাজ
গরমের ঈদে পরম সাজ