সোমবার ১০ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং , ২৬শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ২রা রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

ঘুরাই পৃথিবীর ধর্ম, ঘুরাটাই পৃথিবীর কর্ম

মার্চ ১০, ২০১৮ | ১১:২৭ পূর্বাহ্ণ

মাকসুদা আজীজ, অ্যাসিস্ট্যান্ট এডিটর

ফাল্গুনের আজ ২৬ তম দিন। বসন্ত ঋতুর প্রায় আধাআধি পার করে এখন আবহাওয়া ঠিক শীত ও গ্রীষ্মের মাঝামাঝি আছে। যেমন সকালে হালকা কুয়াশা থাকে। দিন বাড়তে বেশ গরম, আবার রাতের ঠাণ্ডাও পিছু ছাড়েনি। পৃথিবী ঘুরতে ঘুরতে আবার হেলে আমাদের অংশকে সূর্যের দিকে মেলে দিয়েছে। এখন গরম কেবল বাড়বেই যতদিন না পৃথিবী আবার হেলে সূর্যকে অন্যদিকে না নেয়।

আজকে সকালে সূর্য উঠেছে সকাল ৬টা ১৩তে। সকাল থেকেই তাপমাত্রা বেশির দিকে। আজকে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪ ডিগ্রি আকাশে মেঘের চিহ্ন নেই। কালকের মেঘগুলো উড়ে কই চলে গেল কে জানে!

আকাশে মেঘ নেই মানে বৃষ্টি তো হবেই না, উল্টো সূর্য একদম রাখঢাক ছাড়াই আকাশে রাজ্যপাট মেলে বসবে। তখন অতিবেগুনী রশ্মি থেকে নিজেকে রক্ষা করা সত্যিই খুব কঠিন হয়ে যাবে। আজকে অতিবেগুনী রশ্মির ইনডেক্সে সর্বোচ্চ ৮ থাকবে বেলা ১২টায়। এর আশেপাশে সময়ও ৭ বা ৬ এর কম থাকছে না। এক কথায় বললে কড়া রোদ।

বাতাস এখনও জলীয়বাষ্প সঞ্চয় করে উঠতে পারেনি। তবে অবস্থা এখন আগের চেয়ে কিছুটা ভালো, তা বুঝবেন গায়ে ঘাম হচ্ছে দেখেই। আজকে বাতাসের আর্দ্রতা সকালের দিকে ৬০ শতাংশের কাছাকাছি। বিকালের দিকে কমে ৩০ শতাংশে নেমে যেতে পারে তবে ত্বকের টানটান ভাব আর এখন তেমন নেই।

গরম যেহেতু বাড়ছে, ঘাম হয়ে শরীরের পানি কমে যেতে পারে। এমন অবস্থায় শরীর আর্দ্র রাখতে প্রচুর পানি খেতে হবে। পানি শরীরকে সচল রাখবে।

পৃথিবী যেহেতু ঘুরে ঘুরে এইসময়টা সূর্যের কাছে কাছে থাকবে আমাদেরও এই ব্যবস্থার সঙ্গে অভ্যস্ত হতে হবে। পৃথিবীর মতো জীবনের অনেককিছুকেই নিজের মাপে বেঁধে ফেলা সম্ভব না। তো কেন অমুকটা হচ্ছে না এটা নিয়ে অভিযোগ করে লাভ নেই, ওটা হয়ে গেলো আমি কেন পারলাম না এটা ভেবেও কিছু করার নাই। পৃথিবী তার কর্ম করবে জীবন তার ধর্ম মানবে। যদি এটার সঙ্গে তাল মিলাতে না পারা যায় তাহলে শুধু অভিযোগই করা যাবে। বিজয় উল্লাস আর করা হবে না।

সারাবাংলা/এমএ

ঘুরাই পৃথিবীর ধর্ম, ঘুরাটাই পৃথিবীর কর্ম
ঘুরাই পৃথিবীর ধর্ম, ঘুরাটাই পৃথিবীর কর্ম
ঘুরাই পৃথিবীর ধর্ম, ঘুরাটাই পৃথিবীর কর্ম