মঙ্গলবার ২৩শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং , ৮ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১২ই সফর, ১৪৪০ হিজরী

ঘোষণায় ফোর-জি আদতে থ্রি-জি!

ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৮ | ৬:০৮ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা : মুঠোফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো বহু কাঙ্ক্ষিত ফোর্থ জেনারেশন অব ব্রডব্যান্ড সেলুলার নেটওয়র্ক (ফোর-জি) সেবাদানের ঘোষণা দিলেও বাস্তবে গ্রাহকরা ‘থ্রি-জি’ সেবা পাবে বলে অভিযোগ করেছে বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশন। আজ বুধবার সংগঠনটির সভাপতি মহিউদ্দন আহমেদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই অভিযোগ করা হয়।

গণমাধ্যমে পাঠানো ওই বিজ্ঞপ্তির অংশবিশেষ এমন, ‘…. আরও সমস্যার মধ্যে ফোর-জি সম্বলিত হ্যান্ডসেটের অপর্যাপ্ততা, ফোর-জি সিম পরিবর্তন, বিটিএস (ভার্চুয়াল নম্বর) তৈরিসহ অসংখ্য সমস্যার নিরসন না করেই ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে ফোর-জি চালুর ঘোষণা গ্রাহকদের সাথে প্রতারণা ছাড়া আর কিছুই নয়।’

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, ‘তরঙ্গ বিক্রি করে সরকার হয়তবা সোয়া পাঁচ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আয় করেছে যা কিনা জনগণের কাছ থেকেই পরোক্ষভাবে আদায় করা হয়েছে। তারপরও নিয়ন্ত্রণ কমিশন ও অপারেটররা গ্রাহকদের মিথ্যা তথ্য ও আশ্বাস দিচ্ছে যা খুবই লজ্জাজনক। কারণ ২০এমবিপিএস গতি পেতে ৬০ মেগাহার্টজ তরঙ্গের প্রয়োজন। এই মুহূর্তে বিশ্বের ১৮০টি দেশে ফোর-জি চালু আছে। তাতে গড় গতি ১৬.৬ এমবিপিএস। সবচাইতে গতি বেশি সিঙ্গাপুর ও দক্ষিণ কোরিয়াতে। এই দুই দেশে ইন্টারনেটের গতি যথাক্রমে ৪৬.৬৪ ও ৪৫.৮৫ এমবিপিএস (মেগাবাইট পার সেকেন্ড)। এছাড়া নরওয়ে হাঙ্গেরিতে ৪২ এমবিপিএস। তবে বাংলাদেশে ইন্টারনেটের বর্তমান গতি ২.১ এমবিপিএস বা আরও কম।’

সংগঠনটির পক্ষে দেওয়া ওই সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, ‘গতকাল টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) ফোর-জি তরঙ্গ নিলামের আয়োজন করে। তাতে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন টেলিটকসহ ৪টি সক্রিয় অপারেটরের মধ্যে অংশ নিয়েছে দুটি অপারেটর। মুঠোফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান রবির তরঙ্গ সব অপারেটরের চেয়ে বেশি (৩৬.৪ মেগাহার্টজ) হওয়ায় প্রতিষ্ঠানটি নিলামে অংশ নেওয়া থেকে বিরত থাকে। আর গ্রাহকসেবায় শীর্ষে থাকা গ্রামীণফোন ১৮০০ ব্যান্ডের ৫ মেগাহার্টজ তরঙ্গ কিনেছে।’

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, ‘ নতুন করে তরঙ্গ কেনায় গ্রামীণফোনের তরঙ্গের পরিমাণ দাড়ালো ৩৭ মেগাহার্টজে। আর বাংলালিংক ১৮০০ ব্যান্ডের ৫.৬ মেগাহার্টজ ও ২১০০ ব্যান্ডের ৫ মেগাহার্টজ তরঙ্গ কেনায় প্রতিষ্ঠানটির তরঙ্গের পরিমাণ দাড়ালো ৩০.৬ মেগাহার্টজ। তরঙ্গের প্রতিযোগীতায় গ্রামীণফোন রবির চাইতে ০.৬ মেগাহার্টজ বেশি রইলো। ’

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশন প্রশ্ন তোলে, এতোদিন ধরে রবি ৩৬.৪ মেগাহার্টজ তরঙ্গ দিয়ে গ্রাহকদের যে থ্রি-জি সেবা দেওয়ার ঘোষণা দিয়ে আসছে আদতেই তা দিয়েছে কি না। এছাড়া বর্তমানে ফোর-জি’র ঘোষণাও প্রতারণা ছাড়া আর কিছুই নয় বলেও উল্লেখ করেছে সংগঠনটি।

সারাবাংলা/ইএইচটি/ এসবি

ঘোষণায় ফোর-জি আদতে থ্রি-জি!
ঘোষণায় ফোর-জি আদতে থ্রি-জি!
ঘোষণায় ফোর-জি আদতে থ্রি-জি!