শুক্রবার ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৬ আশ্বিন, ১৪২৫, ৯ মুহররম, ১৪৪০

চিকিৎসা বিজ্ঞানে প্রযুক্তির শীর্ষে ‘ব্যাংকক হসপিটাল থাইল্যান্ড’

মে ৩, ২০১৮ | ১০:০২ অপরাহ্ণ

।। স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট ।।

ঢাকা: চিকিৎসা বিজ্ঞানের অগ্রগতিতে সাম্প্রতিক সময়ে ক্যান্সার, হৃদরোগ, কিডনি রোগ, অস্থি ও অস্থি গ্রন্থির রোগের মতো অনেক সমস্যাই এখন নির্ণয় ও নিরাময়যোগ্য। এসব রোগের চিকিৎসায় প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার, দক্ষ চিকিৎসক ও টেকনিশিয়ানের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক মানের চিকিৎসা সেবায় শীর্ষে রয়েছে পাশের দেশ থাইল্যান্ডের ব্যাংকক হাসপাতাল।

সিটি-এনজিওগ্রাম, এমআরআই, কার্ডিয়াক এমআরআই, ওপেন এমআরআই, ক্যানসার নির্ণয়ে পেট সিটি প্রযুক্তি, ভেরিয়ান এজ রেডিও সার্জারি, ইওএম ফুল বডি লো রেডিয়েশন ৩-ডি এক্স-রে, ইসিএমও, কার্টোসাউন্ড, ও-আর্ম স্পাইন সার্জারি, রেডিওথেরাপির আধুনিকায়ন, ক্যাথ লাব, হেলি-ট্রান্সপোর্টসহ আরও অনেক চিকিৎসা পদ্ধতি নিয়ে হাসপাতালটি বর্তমানে বিশ্বমানের চিকিৎসা কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে।

এ ছাড়া ল্যাকশেল গামা লাইফ, নোভালিস ফর ক্যান্সার রেডিয়েশন ট্রিটমেন্ট, দ্যা ভিঞ্চি রবোটিক সার্জারির মতো প্রযুক্তিগুলিও ব্যাংকক হসপিটাল থাইল্যান্ডে প্রথম নিয়ে আসে।

কেবল তাই নয়, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে যোগ হয়েছে বিভিন্ন প্রযুক্তি। যার ফলে তারা দ্রুত ও কার্যকরভাবে রোগ নির্ণয় ও নতুন প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহারের মাধ্যমে চিকিৎসা সেবাকে আরও উন্নত পর্যায়ে নিয়ে গেছে।

একইসঙ্গে থাইল্যান্ডের অন্যান্য হাসপাতালগুলো থেকে এই হাসপাতালের চিকিৎসার খরচ তুলনামূলক ভাবে কমিয়ে আনা হচ্ছে। রোগীদের সাশ্রয়ীমূল্যে সেবা দানের জন্য এই হাসপাতালের অনেকগুলো সেবাই নির্ধারিত মূল্য বা ফিক্সড প্রাইজ এর মাধ্যমে দেওয়া হচ্ছে।

এই হাসপাতালের বেশিরভাগ চিকিৎসকই সার্বক্ষণিক নিয়োজিত থাকেন। রয়েছেন বাংলাভাষী চিকিৎসকও। গত প্রায় ১৫ বৎসর ধরে ডা. শক্তি রঞ্জন পাল কর্মরত আছেন। তিনি একমাত্র বাঙালি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, যার থাইল্যান্ডে চিকিৎসক হিসাবে কাজ করার রেজিস্ট্রেশন রয়েছে।

কিছু কিছু জটিল রোগীর বিভিন্ন বিশেষজ্ঞের সমন্বিত চিকিৎসার প্রয়োজন হয়। এ জন্য এই হাসপাতালে স্পাইন সার্জারির জন্য অর্থোপেডিক্স ও নিউরোসার্জনের দল, ক্যান্সার চিকিৎসার জন্য রয়েছে টিউমার বোর্ড।

জরুরি রোগী গ্রহণ করে তাৎক্ষণিকভাবে সঠিক চিকিৎসা দেওয়ার জন্যে রয়েছে মেডিকেল ইভাকুয়েশন কো-অরডিনেশান টিম। বাংলাদেশিদের জন্য রয়েছে বিএমএস বা বাংলাদেশ মেডিকেল সার্ভিস।

জরুরি রোগী স্থানান্তরের জন্য আছে নিজস্ব এয়ার-অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস। মাত্র ৪ থেকে ৬ ঘণ্টার মধ্যেই ব্যাংকক হাসপাতালে রোগী স্থানান্তরের প্রক্রিয়া শুরু করতে পারে। থাইল্যান্ডে একমাত্র ব্যাংকক হসপিটালেই এ ধরণের জরুরি রোগীকে হসপিটালে স্থানান্তরের সেবা দেয়ার জন্য সমন্বিত মেডিকেল টিম কাজ করছে। এ ধরনের রোগীদের সেবা দানের ক্ষেত্রে কিছু অর্থ ছাড়েরও সুযোগ রয়েছে।

বাংলাদেশে ধানমণ্ডি, বনানী ও চট্রগ্রামে রয়েছে এই হাসপাতালের রয়েছে তিনটি অফিস। এই অফিসগুলো ব্যাংকক হাসপাতালের চিকিৎসকের সঙ্গে রোগীর অ্যাপয়েন্টমেন্ট, ভিসা সহায়তা, হোটেল বুকিং ইত্যাদি সব ধরনের সহায়তা দিয়ে থাকে।

সারাবাংলা/জেএ/এমআই

চিকিৎসা বিজ্ঞানে প্রযুক্তির শীর্ষে ‘ব্যাংকক হসপিটাল থাইল্যান্ড’
চিকিৎসা বিজ্ঞানে প্রযুক্তির শীর্ষে ‘ব্যাংকক হসপিটাল থাইল্যান্ড’