বুধবার ২২ মে, ২০১৯ ইং , ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ রমজান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

জায়গা দিয়েছে চসিক, চট্টগ্রামে হচ্ছে হাইটেক পার্ক

মার্চ ১২, ২০১৯ | ১২:০২ পূর্বাহ্ণ

।।স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট।।

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রামে হাইটেক পার্ক স্থাপনের জন্য প্রায় ১২ একর জমি দিয়েছে সিটি করপোরেশন। বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সিটি করপোরেশনের চূড়ান্ত সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে।

সোমবার (১১ মার্চ) চসিক মিলনায়তনে সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। সমঝোতা স্মারকে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম এনডিসি ও চসিকের পক্ষে প্রধান নির্বাহী মো. সামসুদ্দোহা সই করেন।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, বাংলাদেশকে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের যুগে অংশ নিতে হলে সবক্ষেত্রে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার করতে হবে। উন্নত বিশ্বে এখন ফাইভ-জি দিয়ে কথা বলে। একসময় আমরা সেটা আন্দাজও করতে পারিনি। আগামী ৫ বছরে দেশের সব কারখানায় ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করতে হবে। দেশে এমন কোনো ইউনিয়ন থাকবে না, যেখানে হাইস্পিড ইন্টারনেট থাকবে না। আগামীতে বন্দরের জাহাজ চলাচল থেকে এমনকি সিটি করপোরেশনের দৈনন্দিন কার্যক্রমও প্রযুক্তির ওপর নির্ভর করবে।

মন্ত্রী বলেন, ‘আগামীতে বন্দরনগরী চট্টগ্রাম ডিজিটাল ব্যবসা বাণিজ্যের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হবে। চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ইকোনমিক জোন হচ্ছে, যেটি শিল্পনগরীতে পরিণত হবে। ডিজিটাল যুগে চট্টগ্রাম পিছিয়ে থাকতে পারে না। সেই বিষয়টি মাথায় নিয়েই চট্টগ্রামে হাইটেক পার্ক নির্মাণ করা হচ্ছে।’

‘কিন্তু প্রথমদিকে কোথায় এই হাইটেক পার্ক হবে তা বুঝতে পারছিলাম না। মেয়র আ জ ম নাছির ম্যাজিকের মতো জায়গা দেখালেন। মেয়র দূরদর্শিতার সঙ্গে চট্টগ্রামের ভবিষ্যৎ দেখেছেন। কোনো প্রশ্ন, শর্ত ও বিধিবিধান ছাড়াই একবাক্যে তিনি জায়গা দিয়ে দিলেন।’ বলেন মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বক্তব্য রাখেন।

নগরীর চান্দগাঁওয়ে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন তাদের নিজস্ব ১১ দশমিক ৫৫ একর জায়গা হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষকে দিয়েছে। সেখানে হাইটেক পার্ক নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে ২০০ কোটি টাকা।

এছাড়া নগরীর আগ্রাবাদ এলাকায় সিঙ্গাপুর-ব্যাংকক মার্কেটের ষষ্ঠ থেকে একাদশ তলায় হাইটেক পার্ক, সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক ও শেখ কামাল ইনকিউবেশন সেন্টার হবে। এর জন্য ব্যয় হবে ৩০ কোটি টাকা। সিটি করপোরেশন জানায়, এই প্রকল্পে অর্থ দেবে বিশ্ব ব্যাংক। এখানে আড়াই হাজার জনের প্রত্যক্ষ কর্মসংস্থান হবে। গত বছরের ১৮ জুলাই বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সাথে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক স্থাপনে চুক্তি হয়।

সোমবার বিকেলে আগ্রাবাদে সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। এসময় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা, সচিব আবু শাহেদ চৌধুরী, সিঙ্গাপুর-ব্যাংকক মার্কেটের ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি রফিক মিয়া, সাধারন সম্পাদক নাজিম উদ্দিন, সহ সভাপতি আলি নেওয়াজ চৌধুরী ছিলেন।

সারাবাংলা/আরডি/ইএইচটি

Advertisement
বিজ্ঞাপন

Tags: ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন