বুধবার ১৯শে ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং , ৫ই পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১০ই রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

জোটের প্রার্থীরা পছন্দসই প্রতীকে নির্বাচন করতে পারবেন

নভেম্বর ১৩, ২০১৮ | ৯:৫৭ পূর্বাহ্ণ

।। গোলাম সামদানী, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট ।।

ঢাকা: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পছন্দমতো প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করতে পারবেন বিভিন্ন রাজনৈতিক ও  শরিক দলের প্রার্থীরা। এ ক্ষেত্রে আইনগত কোনো বিধি-নিষেধ নেই।

প্রার্থী কোন প্রতীকে নির্বাচন করতে চান সেটি রাজনৈতিক দল বা জোটের মাধ্যমে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নির্বাচন কমিশনকে জানালেই বরাদ্দ পাবেন পছন্দের প্রতীক।

এ ছাড়া নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত ও নিবন্ধনবিহীন যেকোনো দলের প্রার্থীরা জোটের প্রধান দলের প্রতীক নিয়েও নির্বাচন করতে পারবেন। আবার কোনো দল ইচ্ছা করলে নিজের দলীয় প্রতীক অথবা শরীক দলের প্রতীকের যেকোনটি নিয়ে নির্বাচন করতে পারবেন।

এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ সারাবাংলাকে বলেন, নিবন্ধন নেই এমন কোনো দলের সদস্যরা যে কোনো নিবন্ধিত দলের প্রার্থী হতে পারবেন। অনিবন্ধিতদের নির্বাচন থেকে দূরে রাখার কোনো ‘আইন নেই’।

ইসি সচিব বলেন, দলের প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নিতে সংশ্লিষ্ট দলের ন্যূনতম তিন বছর সদস্য থাকার বিধান গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ২০১৩ থেকে তুলে দেওয়ায় এমন সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। শুধু তাই নয় নিবন্ধন বাতিল হওয়ার পরেও বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী দলের নেতাদের বিএনপি বা অন্য কোনো দলের প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। জামায়াতের প্রার্থীরাও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করতে পারবেন।

ইসি সূত্র জানায়, জোটের যে কোনো শরীক দলের প্রার্থীরা অন্য শরীক দলের প্রতীকে নির্বাচন করতে পারবে। আবার জোটের কোনো শরীক দল ইচ্ছা করলে কিছু প্রার্থী নিজস্ব দলীয় প্রতীকে বাকিরা জোটের প্রধান শরীক দলের প্রতীকেও নির্বাচন করতে পারবে। আবার জোটের প্রধান শরীক দলের প্রতীকের পরিবর্তে জোটের অন্য যে কোনো শরীক দলের প্রতীকেও নির্বাচন করা যাবে। আবার ইচ্ছা করলে প্রতিটি শরীক দল জোটে থেকেও নিজ নিজ প্রতীকে নির্বাচন করতে পারবেন। অনিবন্ধিত রাজনৈতিক দল এবং নিবন্ধন বাতিল হওয়া উভয় দলের প্রার্থীরাও যে কোনো নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের প্রতীকে নির্বাচন করতে পারবেন।

ইসি সূত্র জানায়, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতৃত্বাধীন দুই জোটে থাকা অধিকাংশ শরিক দল নিজস্ব প্রতীকের পরিবর্তে জোটের প্রধান শরীক দলের প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করতে আগ্রহী। বর্তমানে ইসিতে নিবন্ধিত ৩৯টি রাজনৈতিক রয়েছে। নিবন্ধিত এই ৩৯টি দলের মধ্যে ২৩টি দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির নেতৃত্বাধীনে দুই জোটে রয়েছে। বাকি ১৬টি দল এখন পযন্ত দুই জোটের বাইরে রয়েছে। দুই জোটে থাকা ২৩টি দলের মধ্যে মাত্র চারটি দল এখন পর্যন্ত নিজস্ব দলীয় প্রতীকে নির্বাচন করার আগ্রহ প্রকাশ করছে। দল চারটি হল আওয়ামীলীগ (নৌকা), বিএনপি (ধানের শীষ), জাতীয় পার্টি (লাঙ্গল), গণফোরাম (উদীয়মান সুর্য)। বাকি একুশটি দল দুই জোটের প্রতীকে নির্বাচন করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। জোটের বাইরে থাকা ১৬টি দল নিজস্ব প্রতীক নিয়েই নির্বাচন করবে।

উল্লেখ্য জোটভুক্ত দলের প্রতীক বিষয়ে গণপ্রতিনিদিত্ব আদেশ ১৯৭২ এর ২০(১) অনুচ্ছেদ অনুযাযী সময়সূচিব প্রজ্ঞাপন প্রকাশিত হওয়ার তিন দিনের মধ্যে কমিশনের নিকট পেশকৃত কোনো দরখান্ত মোতাবেক দুই বা ততোধিক রাজনৈতিক নিবন্ধিত দল কর্তৃক যৌথভাবে মনোনীত প্রার্থীকে কমিশন কর্তৃক উক্ত দলগুলোর জন্য সংরক্ষিত প্রতীক সমুহের মধ্য থেকে কোনো একটি প্রতীক বরাদ্দ করতে পারবেন।

সারাবাংলা/জিএস/এমআই

Tags:

জোটের প্রার্থীরা পছন্দসই প্রতীকে নির্বাচন করতে পারবেন
জোটের প্রার্থীরা পছন্দসই প্রতীকে নির্বাচন করতে পারবেন
জোটের প্রার্থীরা পছন্দসই প্রতীকে নির্বাচন করতে পারবেন