রবিবার ২১শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং , ৬ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১০ই সফর, ১৪৪০ হিজরী

টান-টান শীতের দিন

ডিসেম্বর ২৯, ২০১৭ | ১২:১৪ অপরাহ্ণ

মাকসুদা আজীজ, অ্যাসিস্ট্যান্ট এডিটর

পৌষের আজ কত তারিখ? ১৫? হ্যাঁ ১৫ই তো! পুরো হাউমাউ করে কেঁদে দেওয়ার মতো অবস্থা! শীত যদি দুই মাস হয় পৌষ আর মাঘ, তাহলে ৩০-৩০, ৬০ দিনের হিসবে শীতের চার ভাগের এক ভাগ চলে গিয়েছে! শীত চলে গেলেই আবার আসবে গরম! না না… আর ভাবতেই পারছি না!
আজ শুক্রবার! সবার সকাল দেরিতে শুরু হয়েছে। সূর্য এমনিই কাটাচ্ছে শীতের ছুটি ঘুম থেকে উঠেছে আজ ৬টা ৪০ এ। আমরা যদি এই সময় উঠি তাহলে এটা অনেক বেলা তবে সূর্য উঠেছে যে তাই কোন দোষ নেই। বলতে হবে সেটাই ভোর। তাহলে এবার ঠিক করে বলি, সূর্য উঠেছে ভোর ৬টা ৪০ এ।
এমনিতে শীতটা ভালোই ছিল সর্বোচ্চ ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস আর সর্বনিম্ন ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে সমস্যা করেছে আর্দ্রতা। বাতাসে আর্দ্রতা বলতে গেলে নাইই! ইশ কী খুশি! বলি বাংলাদেশ কি মরুভূমি নাকি যে আর্দ্রতা নাই হয়ে যাবে? আর্দ্রতা আছে তবে অনেক অনেক কম আছে, বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে আর কি! দুপুরের দিকে আর্দ্রতা কমে ৫২% আসবে। তখন ভাই ত্বক যে কী টানাটানি হবে কী বলব? যাক আমার আর বলে কাজ নাই, নিজে থেকেই তেল বা পেট্রোলিয়াম জেলি মেখে নিন। নাহলে চুলকে চুলকে কেটে ছিঁড়ে যাবে তখন অনেক জ্বলবে!

আকাশে আজ মেঘেরও কোনো জায়গা হচ্ছে না, মাত্র ৩১ শতাংশ জায়গা মেঘের দখলে যাবে। এরকম অবস্থায় নরম রোদ পোহাতে গিয়ে একটু সাবধানে থেকেন ভাই। অতিবেগুনী রশ্মি কিন্তু নীরব ঘাতক। বাসায় ফিরে দেখবেন, জালিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে।

আজ সূর্য ডুবে যাবে ৫টা ২১ মিনিটে। দিন যদিও বড় হওয়া শুরু করেছে, তবে এখনও শিশুই। আগে ভাগে রাত হওয়ার সুবিধা নিয়ে কেউ পড়তেও বসে যেতে পারেন আবার যার পড়াশোনা নাই সে বেড়াতে চলে যান! শীতই তো ঘুরার দিন তাই না?

শহরে বেশ নানান ধরণের উৎসব চলছে। উৎসবে যদি যোগ নাও দেন তবে বিয়ে শাদি তো আছেই। আজকে পরার জন্য একটু উজ্জ্বল গাঢ় রঙ ব্যবহার করতে পারেন। মানানসই শীত বস্ত্র নিলেই হয়ে যাবে জমজমাট শীতের সাজ।
শুক্লপক্ষের তিথিতে আমরা পূর্ণিমার বেশ কাছাকাছি আছি। এই চার পাঁচদিন পার হলেই পূর্ণিমা।
আপনাদের ছুটির দিন শুভ হোক।

সারাবাংলা/এমএ

Tags:

টান-টান শীতের দিন
টান-টান শীতের দিন
টান-টান শীতের দিন