মঙ্গলবার ১৯ জুন, ২০১৮, ৫ আষাঢ়, ১৪২৫, ৪ শাওয়াল, ১৪৩৯

টুপির বাজারেও মাহাথিরের বাজিমাত!

জুন ১৩, ২০১৮ | ১০:২৩ অপরাহ্ণ

।। আব্দুল জাব্বার খান, স্টাফ করেসপন্ডেট ।।

ঢাকা: স্বজনদের সঙ্গে ঈদ আনন্দ ভাগ করে নিতে নাড়ির টানে রাজধানীর ছাড়তে শুরু করেছেন অধিকাংশ মানুষ। যারা ঢাকাতেই থাকছেন, ঈদকে কেন্দ্র করে তাদের নতুন পোশাক, সেমাই, জুতা-স্যান্ডেল কেনাকাটা প্রায় শেষ। এখন চলছে শেষ মুহূর্তের আনুসাঙ্গিক টুকিটাকি কেনাকাটা।

ভিড় কেবল আতর-টুপি-জায়নামাজের দোকানে। বুধবার (১৩ জুন) রাজধানীর বায়তুল মুকাররম মসজিদ মার্কেট ঘুরে দেখা যায়, ঈদে এবারের পছন্দ বাহারি নকশায় বিদেশি টুপি।

চায়না টুপি মিলছে ১শ’ থেকে ২শ’ টাকা, পাকিস্তানি টুপির দাম ১৫০ থেকে ৬শ’ টাকা, ভারতীয় টুপির দাম আরও কিছুটা বেশি ২শ’ থেকে ৬শ’ টাকা। দেশে তৈরি টুপি পাওয়া যাচ্ছে ১০ টাকা থেকে ১শ’ টাকায়।

তবে টুপির বাজারে সবচেয়ে দামি টুপি মালয়েশিয়ান মাহাথির টুপি। দাম তিন হাজার থেকে চার হাজার টাকা। পছন্দের শীর্ষেও রয়েছে মাহাথির টুপি। এরপরই রয়েছে জরির কাজ করা পাকিস্তানি টুপি।

বায়তুল মুকাররম মার্কেটের বিসমিল্লাহ ক্যাপ হাউজের কর্মচারী আবুল মুসা সারাবাংলাকে জানান, দেশি-বিদেশি বিভিন্ন রকম টুপি আমাদের এখানে আছে। টুপির হাতের কাজের ওপর নির্ভর করে দাম কেমন হবে। সবচেয়ে বেশি দাম মালয়েশিয়ান মাহাথির টুপির।

কেবল টুপি কেনার জন্য সাভার থেকে এসেছেন মাসুদ রানা। তিনি বলেন, এলাকার দোকানগুলোতে ভালো মানের টুপি পাওয়া যায় না। এ কারণে এখানে এসেছি।ছেলে আর ভাতিজাদের জন্য পাঁচটি টুপি কিনেছেন জানান তিনি। এখনো আমার পাঁচ ভাইয়ের জন্য টুপি কেনা বাকি। বছরে একবারই টুপি কিনি, ভালো টুপি না কিনলে কেমনে হবে!

উরাইসীদ আতরের দোকানের কর্মচারী আল-আমিন জানান, দুপুরের পর থেকে ভিড় বাড়তে থাকে। দোবাইর মেকাত, হারামাইন, জান্নাতুল ফেরদাউস আতরের চাহিদা বেশি। তবে সৌদি আরবের তৈরি লর্ড আতরের দাম অনেক বেশি। এক শিশি আতরের দাম ১২ হাজার টাকা। তখনই আতর কিনছেন গার্মেন্টস ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম। তিনি জানান, ‘ঈদের দিন বিশেষ দিন। আর আতর ব্যবহার করাও সুন্নত। এ কারণেই আতর কিনলাম।

আতরের অন্য দোকানগুলো ঘুরে দেখা যায়, ১০০ মি.লি. সুলতান আতরের দাম ১৮শ’ থেকে ২ হাজার টাকা, আলফারেজ দুই হাজার টাকা, সিলভার ১৮শ’ টাকা, ওপেন দেড় হাজার টাকা, ইগুবস ১৬শ’ টাকা, বস দেড় হাজার টাকা এবং ম্যাডার রোজ ব্র্যান্ডের আতর ১৬শ’ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া প্রতি শিশি সৌদির রয়্যাল ম্যারেজ ৫০ টাকা, ওয়ান ম্যান শো ১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। সাফসাফা ২শ’ টাকা, দুবাইয়ের সুলতান ২২০ টাকা, ভারতের কোবরা ২৫০ টাকা, বোম্বে দরবার ও নূর ৩শ’ টাকা এবং ইরানি গাউস আতর ১২০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে।

সারাবাংলা/এটি

** দ্রুত খবর জানতে ও পেতে সারাবাংলার ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন: Sarabangla/Facebook

টুপির বাজারেও মাহাথিরের বাজিমাত!
টুপির বাজারেও মাহাথিরের বাজিমাত!