সোমবার ২১শে জানুয়ারি, ২০১৯ ইং , ৮ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী

দুইপক্ষের সংঘর্ষ, যুবলীগ কর্মীর আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন

জানুয়ারি ১০, ২০১৯ | ৩:১০ অপরাহ্ণ

।। স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট ।।

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরীতে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে হাতের একটি আঙ্গুল হারাতে বসেছেন এক যুবলীগ কর্মী। একই ঘটনায় আরও কমপক্ষে পাঁচজন আহত হয়েছেন।

বুধবার (৯ জানুয়ারি) রাতে নগরীর ইপিজেড থানার নারিকেল তলা এলাকায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

সাবেক ছাত্রলীগ নেতা দেবাশীষ পাল দেবু এবং সাবেক কাউন্সিলর ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মো.আসলামের অনুসারীদের মধ্যে এই সংঘাতের ঘটনা ঘটেছে বলে সারাবাংলাকে জানিয়েছেন ইপিজেড থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নুরুল হুদা।

দেবাশীষ পাল দেবু এবং মো. আসলাম নগরীর বন্দর-পতেঙ্গা এলাকার সংসদ সদস্য এম এ লতিফের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ইপিজেড মোড় থেকে নারিকেল তলা এলাকা পর্যন্ত ফুটপাতের ভাসমান দোকানীদের কাছ থেকে চাঁদা আদায়ে আধিপত্য নিয়ে এই সংঘাতের সূত্রপাত। রাত সাড়ে ৮টার দিকে উভয়পক্ষ লাঠি, লোহার রড, রামদাসহ বিভিন্ন অস্ত্র নিয়ে সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে। এসময় গুরুত্বপূর্ণ এই বিমানবন্দর সড়কে যানবাহন চলাচল কিছুক্ষণের জন্য বন্ধ ছিল। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ইপিজেড থানার ওসি নুরুল হুদা সারাবাংলাকে বলেন, ‘আধিপত্য নিয়ে সংঘর্ষ শুরুর খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। আমরা দ্রুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। এসময় আধাঘন্টার মতো সড়কে বিশৃঙ্খলা ছিল। সংঘর্ষে ২-৩ জন আহত হয়েছে।’

দেবাশীষের অনুসারী চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক জাকের আহমেদ খোকন সারাবাংলাকে বলেন, ‘হামলায় গুরুতর আহত লোকমানকে আমরা প্রথমে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাই। তার ডান হাতের বাম আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে যায়। সেটিও আমরা হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছিলাম। সেখান থেকে অপারেশন সম্ভব নয় বলে জানালে আমরা একটি বেসরকারি ক্লিনিকে চলে আসি।’

জাকের জানান, নগরীর ম্যাক্স হাসপাতালে প্রায় তিনঘন্টার অপারেশনে আঙ্গুলটি জোড়া লাগানোর চেষ্টা করা হয়। তবে চিকিৎসকেরা আঙ্গুল জোড়া লাগবার সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছেন।

এদিকে একই ঘটনায় যুবলীগ কর্মী সাইফুল, ছাত্রলীগ নেতা ইয়াছিন, ফয়সাল আরও কয়েকজন আহতের তথ্য পাওয়া গেছে।

এদিকে সংঘর্ষের পর আসলামের অনুসারীরা এলাকায় দেবাশীষের অনুসারীদের বাড়ি খুঁজে খুঁজে হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন জাকের।

তবে ইপিজেড থানার ওসি মো.নুরুল হুদা সারাবাংলাকে বলেন, রাতে বাড়িঘরে কোন হামলা হয়নি। এটা একপক্ষ অপপ্রচার চালাচ্ছে।

সারাবাংলা/আরডি/এসএমএন

Tags: ,

দুইপক্ষের সংঘর্ষ, যুবলীগ কর্মীর আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন
দুইপক্ষের সংঘর্ষ, যুবলীগ কর্মীর আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন
দুইপক্ষের সংঘর্ষ, যুবলীগ কর্মীর আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন