বুধবার ১২ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং , ২৮শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

দুই প্রধানমন্ত্রীর ফোনালাপ, সাহায্য পাঠাতে চাইলেন শেখ হাসিনা

মার্চ ১২, ২০১৮ | ৭:৩৬ অপরাহ্ণ

সারাবাংলা ডেস্ক

নেপালের ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের উড়োজাহাজ বিধ্বস্তে হতাহতের ঘটনায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী খাদগা প্রসাদ শর্মা অলির সঙ্গে কথা বলেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

নেপালের স্থানীয় সময় ২টা ২০ মিনিটে বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার পর বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে পাঁচটায় (সিঙ্গাপুর সময় ৭:৫০টায়) সিঙ্গাপুর সফররত প্রধানমন্ত্রী টেলিফোনে আলাপ করেন।

ফোনালাপে নেপালের প্রধানমন্ত্রী হতাহতের ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেন বলে জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ত্রিভূবন বিমানবন্দর খোলার সঙ্গে সঙ্গে তিনি সাহায্যকারী দল নেপালে পাঠাবেন। এ ছাড়া প্রয়োজনীয় যত রকমের সাহায্য দরকার বাংলাদেশ তা করবে বলেও আশ্বাস দেন তিনি।

খাদগা প্রসাদ শর্মা অলি প্রধানমন্ত্রীকে জানান, দুর্ঘটনা ঘটার পর তিনি ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেন।

এর আগে উড়োজাহাজ বিধ্বস্তে হতাহতের ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আলাদা শোক বার্তায় সোমবার বিকেলে তারা নিহতের আত্মার শান্তি কামনা করেন পাশাপাশি আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করেন।

নেপালের কাঠমান্ডুতে ঢাকা থেকে যাওয়া ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের যাত্রীবাহী উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়ে অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ত্রিভুবন এয়ারপোর্ট স্থানীয় সময় ২টা ২০ মিনিটে বিএস-২১১ ফ্লাইটটি অবতরণের মুখে বিধ্বস্ত হয়। ঘটনার পরপরই বিমান বন্দর থেকে একজন প্রত্যক্ষদর্শী সারাবাংলাকে ফ্লাইটটি বিধ্বস্ত হওয়ার খবর টেলিফোনে জানান। নেপালের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম থেকেও এই দুর্ঘটনার খবর প্রকাশিত হতে থাকে। সবশেষ তথ্যে জানা যাচ্ছে- ফ্লাইটিতে ৬৭ জন আরোহী ছিলেন।

সারাবাংলা/এসবি

দুই প্রধানমন্ত্রীর ফোনালাপ, সাহায্য পাঠাতে চাইলেন শেখ হাসিনা
দুই প্রধানমন্ত্রীর ফোনালাপ, সাহায্য পাঠাতে চাইলেন শেখ হাসিনা
দুই প্রধানমন্ত্রীর ফোনালাপ, সাহায্য পাঠাতে চাইলেন শেখ হাসিনা