রবিবার ১৯ আগস্ট, ২০১৮, ৪ ভাদ্র, ১৪২৫, ৭ জিলহজ্জ, ১৪৩৯

নির্ঘুম চোখ বিশ্বজুড়ে বাঙালির

মে ১১, ২০১৮ | ২:০৫ পূর্বাহ্ণ

। সন্দীপন বসু ।

কবি কাজী নজরুল ‘সংকল্প’ কবিতায় লিখেছিলেন, ‘হাউই চড়ে চায় যেতে কে, চন্দ্রলোকের অচিনপুরে। শুনবো আমি ইঙ্গিত কোনো, মঙ্গল হতে আসছে উড়ে।’ নজরুলের ভাবনা আজ যেন বাস্তব রূপ পেয়েছে। ‘বিশ্বজগত দেখা’ যেন সত্যিই বাঙালির ‘আপন হাতের মুঠোয়’। আর সেই মাহেন্দ্রক্ষণ প্রত্যক্ষ করতেই সতের কোটি মানুষের বাংলাদেশে অনেকের চোখেই এখন ঘুম নেই। অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন বাংলাদেশের স্বপ্নের মহাকাশযাত্রার জন্য।

ইউটিউবে, টেলিভিশনের পর্দায় চোখ বিশ্বজুড়ে বাঙালির। এ যেন স্যাটেলাইটের মহাকাশযাত্রা নয়, বাঙালির মহাকাশযাত্রা। অনেকে আবার নিজের এলাকায় টাঙানো বড় পর্দায় প্রত্যক্ষ্য করবেন বাংলাদেশের প্রথম বাণিজ্যিক উপগ্রহ ‘বঙ্গবন্ধু-১’কৃত্তিম উপগ্রহের মহাকাশের পথে রওনা হওয়ার মূহুর্তটি।

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার অরলান্ডোতে কেপ ক্যানাভেরালে উৎক্ষেপণকারী প্রতিষ্ঠান স্পেসএক্সের লঞ্চ প্যাড থেকে আজ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ২টা ১২ মিনিট থেকে ৪টা ২২ মিনিটের মধ্যে যে কোনো সময় স্যাটেলাইটটি উৎক্ষেপণ করা হতে পারে। স্পেসএক্সের ফ্যালকন-৯ ব্লক ফাইভ রকেটে করে মহাকাশের পথে রওনা দেবে বাংলাদেশের বিজয় নিশান।

তবে শেষ পাওয়া খবরে জাতির এই অপেক্ষা একটু দীর্ঘায়িতই হচ্ছে। কারণ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের সময় এক ঘন্টা পিছিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র সময় বিকাল ৪ টা ১২ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ২টা ১২ মিনিট)স্যাটেলাইটটি উৎক্ষেপনের কথা থাকলেও তা মহাকাশে উড়বে ৫ টা ১২ মিনিটে। রাত ১১ টা ৫৪ মিনিটে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা থেকে সারাবাংলা ডটনেটকে এ তথ্য জানিয়েছেন বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন ( বিটিআরসি) চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ।

এদিকে মহাকাশযানটির উড়ার তদারকিতে থাকা স্পেসএক্সের ওয়েবসাইট থেকে জানা গেছে, বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের প্রোপিল্যান্ট লোডিং ভ্যারিফাই, আরপি-১ (রকেট জ্বালানি) লোডিং, প্রথম পর্যায়ের লিকুইড অক্সিজেন (এলওএক্স) লোডিং, দ্বিতীয় পর্যায়ের এলওএক্স লোডিং, লঞ্চ পূর্ববর্তী ফ্যালকন-৯ এর ইঞ্জিন শীতলীকরণ, চূড়ান্ত উৎক্ষেপণের আগে ফ্লাইট কম্পিউটার চেক, প্রপিল্যান্ট ট্যাংক প্রেশারাইজেশন সম্পন্ন হয়েছে।  স্পেসএক্সের লঞ্চ ডিরেক্টর উৎক্ষেপণের চূড়ান্ত ভেরিফিকেশন গিয়ে পিছিয়েছে উৎক্ষেপনের সময়।

এর আগে স্পেসএক্সের ওয়েবসাইট ও ইউটিউব লাইভে বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ২টা ১২ মিনিটে মহাকাশযানটির ওড়ার সময় দেখানো হয়েছিল। এখন ওড়ার সময় দেখানো হচ্ছে রাত ২টা ৪২ মিনিটে।

এদিকে বাংলাদেশের প্রথম বাণিজ্যিক স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ উৎক্ষেপণ সরাসরি দেখতে দর্শকদের আমন্ত্রণ জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের কেনেডি স্পেস সেন্টার। ওই স্পেস সেন্টারের দর্শক সারি থেকে দেখা যাবে উৎক্ষেপণ।

স্পেস এক্স-এর উৎক্ষেপণযান বা রকেট ফ্যালকন-৯ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটকে মহাকাশে ১১৯ দশমিক ১ পূর্ব দ্রাঘিমাংশে অবস্থিত অরবিট প্লটে স্থাপন করবে। ফ্রান্সের কান টুলুজ ফ্যাসিলিটিতে নির্মিত বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ ইতিমধ্যে ফ্রান্স থেকে বিশেষ ব্যবস্থায় কার্গো বিমানে করে উৎক্ষেপণস্থল ফ্লোরিডার অরল্যান্ডোর ক্যাপ ক্যানাভেরালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বিশ্বের অন্যতম খ্যাতনামা স্যাটেলাইট নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান ফ্রান্সের থেলেস এলেনিয়া স্পেস স্যাটেলাইটটি নির্মাণ করেছে।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে দুই হাজার ৯০২ কোটি টাকা। সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে এক হাজার ৫৪৪ কোটি টাকা এবং অবশিষ্ট এক হাজার ৩৫৮ কোটি টাকা বিডার্স ফাইন্যান্সিংয়ের মাধ্যমে ব্যয় সংকুলান হয়েছে।

সারাবাংলা/ এসবি

নির্ঘুম চোখ বিশ্বজুড়ে বাঙালির
নির্ঘুম চোখ বিশ্বজুড়ে বাঙালির