শুক্রবার ২৭ এপ্রিল, ২০১৮ , ১৪ বৈশাখ, ১৪২৫, ৯ শাবান, ১৪৩৯

বছরে মেসির আয় ১০০ মিলিয়ন ইউরো!

জানুয়ারি ১৩, ২০১৮ | ৩:৩৭ অপরাহ্ণ

সারাবাংলা ডেস্ক

২০২০-২১ মৌসুম পর্যন্ত স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনায় থাকবেন পাঁচবারের বিশ্বসেরা ফুটবলার আর্জেন্টিনার জাদুকর লিওনেল মেসি। প্রতি মৌসুমে তো বটেই, প্রতি বছর মেসির আয় ১০০ মিলিয়ন ইউরো উপরে। ফুটবল লিকসের বরাত দিয়ে এমনটি প্রকাশ করেছে ফ্রেঞ্চ পোর্টাল মিডিয়া পার্ট।

ইতিহাসের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় মেসির বাই আউট ক্লজ ৭০০ মিলিয়ন ইউরো কিংবা ৭০ কোটি ইউরো। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের আগের চুক্তির মেয়াদ শেষ হতো চলতি বছরের জুনে। গত বছরের নভেম্বরে মেসির নতুন চুক্তির বিষয়টি প্রকাশ পায়।

২০০০ সালে মাত্র ১৩ বছর বয়সে আর্জেন্টিনার নিউওয়েলস ওল্ড বয়েজ থেকে স্পেনের বার্সায় যোগ দেন মেসি। শারীরিক সমস্যায় ভুগতে থাকা এই তারকার পাশে দাঁড়িয়েছিল বার্সা। তার চিকিৎসার সব ব্যয় বহন করে কাতালানরা। এরপর বয়সভিত্তিক দল পেরিয়ে বার্সার মূল স্কোয়াডে আসেন। মাত্র ১৬ বছর বয়সে বার্সার মূল দলে অভিষেক হয় মেসির। এরপর আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি।

গত নভেম্বরের আগে ও পরে বার্সার সভাপতি জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ একাধিকবার বলেছিলেন, নতুন চুক্তিতে মেসি হবেন বিশ্বের সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পাওয়া খেলোয়াড়। তবে, অঙ্কটা ঠিক কত, সেটা ক্লাব কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেনি। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমের খবর ছিল বছরে মেসি বেতন পাবেন ৪৫ মিলিয়ন ইউরো। যদিও ‘ফুটবল লিকস’-এর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ন্যু ক্যাম্পে সামনের চার বছরে মেসি আয় করবেন ৪০০ মিলিয়ন ইউরোর বেশি, বছরে ১০০ মিলিয়নের উপরে।

এমনিতেই তো প্রতি বছর মেসি প্রায় ১০০ মিলিয়ন ইউরো আয়ের সুযোগ পাচ্ছেন! আগামী চার বছরে মেসির পেছনে আরও ৪০০ মিলিয়ন ইউরো ব্যয় করবে কাতালানরা। রিয়াল মাদ্রিদের ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর প্রায় দ্বিগুণ আয় হবে মেসির। না খেললেও নেট আয় হিসেবে ৫০ মিলিয়ন ইউরো পকেটে ঢুকবে মেসির। প্রতিবেদনের অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে ট্রান্সফার ফি’র বিশ্ব রেকর্ড গড়া পিএসজির ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার ৩৭ মিলিয়ন ইউরো নিজের থলিতে জমাতে পারেন।

সব মিলিয়ে মেসি ৭১ মিলিয়ন ইউরো আয় করতে পারবেন। যেখানে ইমেজ রাইটস বাবদ ১৫ শতাংশ আয় আসবে। এক্ষেত্রে শর্ত থাকে যে, পুরো চুক্তির মেয়াদে তাকে খেলতে হবে। ১০০ মিলিয়ন ইউরো প্রতি বছর আয়ের সুযোগ পাওয়া আর্জেন্টাইন তারকা ৭১ মিলিয়ন ইউরো করে চার বছরে মোট পাবেন ২৮৪ মিলিয়ন ইউরো। থাকছে ৭০ মিলিয়ন ইউরো লয়ালিটি বোনাস। সঙ্গে যোগ হবে বার্ষিক প্রবৃদ্ধি।

এখানেই শেষ নয়, আরও আয়ের সুযোগ থাকছে মেসির। যদি তিনি বার্সার জার্সিতে ৬০ শতাংশ ম্যাচ খেলে থাকেন, তাহলেই পাবেন এই বাড়তি আয়ের সুযোগ। বার্সা এই মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতলে মেসি পাবেন বাড়তি টাকা।

এই মেসিকে সারাজীবনের জন্যই ধরে রাখতে চায় কাতালানরা। পেশাদার ক্যারিয়ার শুরুর পর গত ১৩ বছরে কাতালান জায়ান্টদের হয়ে ৬৪২ ম্যাচ খেলেছেন, করেছেন ৫৪০ গোল। হাতে নিয়েছেন ২৯ ট্রফি। লা লিগায় ৮ বার, কোপা দেল রে ৫ বার ও চারটি চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেন মেসি। এছাড়া, সুপার কোপা ডি এসপানাতে ছয়বার, উয়েফা সুপার কাপ এবং ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপ মিলে আরও ৬ বার শিরোপার স্বাদ নিয়েছেন। নতুন চুক্তিতে আরও চার মৌসুম ন্যু ক্যাম্পে কাটাবেন তিনি, সাফল্যের পাল্লাটা আরও ভারী হবে বিশ্বাস তার ভক্তদের।

সারাবাংলা/এমআরপি

আরও পড়ুন