শনিবার ২১ জুলাই, ২০১৮, ৬ শ্রাবণ, ১৪২৫, ৬ জিলক্বদ, ১৪৩৯

বার্গার খাওয়া থামাতে পারছে না ট্রাম্প

ডিসেম্বর ২৯, ২০১৭ | ৫:৪২ অপরাহ্ণ

সারাবাংলা ডেস্ক

প্রায় বছর খানেক আগে ট্রাম্পকে খাওয়া-দাওয়ার ব্যাপারে সচেতন হতে বলেছিলেন তার ডাক্তার। কিন্তু কে শোনে কার কথা! কিছুতেই খাবার-দাবারের লাগাম টানতে পারছেন না হোয়াইট হাউজের এই বাসিন্দা। তার পছন্দের খাদ্য তালিকায়ও রয়েছে বিভিন্ন প্রকার ফাস্টফুড ও কোমল পানীয়।

ফলে শারীরিক স্থুলতার কারণে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে আগামী ১২ জানুয়ারি প্রথমবারের মতো শারীরিক পরীক্ষার সম্মুখীন হতে হবে বলে জানিয়েছেন হোয়াইট হাউজ সূত্র।

মেরিল্যান্ডের ওয়াল্টার রীড ন্যাশনাল মিলিটারি একাডেমিতে ট্রাম্পের এই ফিটনেস পরীক্ষার আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান, হোয়াউট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সারা হাকাবি স্যান্ডার্স।

এর আগে ২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে ট্রাম্প তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক হ্যারল্ড বর্নস্টেইনের কাছ থেকে একটি শারীরিক সুস্থতার প্রমাণপত্রও হাজির করেন। তবে সাবেক এক রিয়েলিটি টেলিভিশন তারকা সেটি প্রকাশ করে দেখান যে, ট্রাম্পের বডি ম্যাস ইনডেক্স ২৯.৫। যা স্থুলতার পর্যায়ে পড়ে।

অবশ্য ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণা ক্যাম্প দাবি করেছিল, ট্রাম্প যদি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়, তাহলে তিনি হবেন এ যাবৎকালে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে সুস্বাস্থ্যের অধিকারী প্রেসিডেন্ট।

তবে নির্বাচনের পর থেকে ট্রাম্পের খাদ্যাভাস নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি সমালোচনা হয়েছে।

এর আগে ট্রাম্প একবার বিমানে বসে ক্যান্টার্কি ফ্রাইড চিকেন খাওয়ার একটি ছবি টুইটারে পোস্টও করেছিলেন।

ট্রাম্পের নির্বাচনী ক্যাম্পেইন ম্যানেজার, কোরি লিওয়ানডোস্কি সম্প্রতি তার একটি বইয়ে উল্লেখ করেছেন, নির্বাচনী প্রচারণার সময় ট্রাম্প তার খাবার তালিকায় ম্যাকডোনাল্ডের দুটি বড় সাইজের ম্যাক্স, দুটি ফাইলেট অব ফিশ স্যান্ডউইচ ও একটি চকোলেট মিল্কশেড খেতেন বাড়তি শক্তি পাওয়ার জন্য। এ ছাড়াও কয়েক রকমের কোমল পানীয় ছিল তার পছন্দের তালিকায়।

লিওয়ানডোস্কি জানান, ওই সময় খাবার-দাবারের জন্য খুব একটা সময় পাওয়া না গেলেও ট্রাম্প এ ভাবে প্রায় দুই হাজার ক্যালরি খাবার ও প্রচুর পরিমানে শর্করা পান করতেন। তবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি খাবার রুটি কখনোই তার খাদ্য তালিকাতে থাকতো না বলেও জানান তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বয়স্ক প্রেসিডেন্ট হিসেবে ৭১ বছর বয়সী ট্রাম্পের এই খাদ্যাভাসের সঙ্গে তার শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের বিষয়টিও চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে অনেকের কাছে।

সারাবাংলা/এমআই

বার্গার খাওয়া থামাতে পারছে না ট্রাম্প
বার্গার খাওয়া থামাতে পারছে না ট্রাম্প