সোমবার ২২শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং , ৭ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১২ই সফর, ১৪৪০ হিজরী

ভুলতা ফ্লাইওভারে বদলে যাবে রূপগঞ্জ

সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৮ | ১০:২৩ পূর্বাহ্ণ

।। শেখ জাহিদুজ্জামান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ।।

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজীর (বীরপ্রতীক) একান্ত প্রচেষ্টায় নির্মাণাধীন ভুলতা ফ্লাইওভারে পুরোপুরি বদলে যাবে রূপগঞ্জ। আর এই ফ্লাইওভার নির্মাণে সংসদ সদস্যের প্রচেষ্টাকেই বড় করে দেখছেন স্থানীয়রা।

স্থানীয়রা বলছেন, ভুলতায় দেশের বৃহত্তম পাইকারি কাপড়ের মার্কেট গাউছিয়ার অবস্থান। এছাড়া ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক ও এশিয়ান হাইওয়ের সংযোগস্থল রূপগঞ্জের ভুলতা। যার কারণে এখানে প্রায় সময়ই যানজট লেগে থাকে। তবে ভুলতা ফ্লাইওভারের নির্মাণ কাজ শেষে জনসাধারণের চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হলে যানজট নিরসন হবে। অন্যদিকে সারাদেশের সঙ্গে আরও গতিশীল হবে যাতায়াত ব্যবস্থা।


জানা যায়, যানজট নিরসনে স্থানীয় সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজীর (বীর প্রতীক) দাবিতে বর্তমান সরকার ২০১৫ সনের অক্টোবর মাসে ২৪০ কোটি ৫ লাখ ৬৬ হাজার ২০৮ টাকা ব্যয়ে ভুলতা ফ্লাইওভারটির নির্মাণ কাজ শুরু করে। সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন প্রকল্পটির মেয়াদ ছিল চলতি বছরের জুন পর্যন্ত। ফ্লাইওভারটির নির্মাণে প্রথমে হকারদের কারণে বেগ পেতে হয় নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানের। তখন সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী হকার উচ্ছেদ করে ফ্লাইওভারটি নির্মাণ কাজের গতি ফিরিয়ে দেন।

নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ না হওয়ায় প্রকল্পটির মেয়াদ আরও ১ বছর বাড়ানো হয়। একই সঙ্গে চলতি বছরের ৮ আগস্ট ফ্লাইওভারটি নির্মাণে আরও ৫৮ কোটি ৫১ লাখ ২০ হাজার ৪৮৬ টাকা বাড়ায় সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

অন্যদিকে, ৪ লেন বিশিষ্ট ৩ তলা ফ্লাইওভারটি ১.২৩৮ কিলোমিটার লম্বা হবে। যার উভয় গার্ডার অভ্যন্তরে চার লেন বিশিষ্ট। আর এই ফ্লাইওভারটি নির্মাণ হচ্ছে রূপগঞ্জের ভুলতা ও গোলাকান্দাইলে। ফ্লাইওভারটি নির্মাণ করছে চায়না রেলওয়ে ২৪ ব্যুরো গ্রুপ, স্পেকট্রা ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেড ও এমএন বিল্ডার্স লিমিটেড।

নির্মাণ কাজের অগ্রগতি বিষয়ে প্রজেক্ট ডিরেক্টর রিয়াজ আহমেদ জাবেদ সারাবাংলাকে বলেন, ‘ভুলতা ফ্লাইওভারের নির্মাণ কাজ ৮০ শতাংশের বেশি শেষ হয়েছে। কাজ শুরু হলে হকারদের কারণে নির্মাণ কাজে সমস্যার সৃষ্টি হয়। তখন স্থানীয় এমপি নিজেই হকার উচ্ছেদ করেন এবং নির্মাণ কাজে গতি ফিরিয়ে আনেন। এখন ২৪ ঘণ্টা ফ্লাইওভারে নির্মাণ শ্রমিকরা কাজ করছেন। নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ না হওয়ায় এর মেয়াদ বাড়িয়ে ২০১৯ সালের জুন পর্যন্ত করা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে নির্ধারিত সময়ের আগেই নির্মাণ কাজ শেষ হবে।’


ফ্লাইওভারটির কাঞ্চন-মদনপুর সংযোগস্থলের কাজ প্রায় শেষের দিকে। সব মিলিয়ে ফ্লাইওভারটি নির্মাণের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে বলেও জানান তিনি।

রূপগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী এহসানুল হক সারাবাংলাকে বলেন, ‘স্থানীয় সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজীর প্রচেষ্টায় মানুষের ভোগান্তি লাঘবে ভুলতা ফ্লাইওভারটি হচ্ছে, কাজ খুব শিগগিরই শেষ হবে। এই ফ্লাইওভার উন্মুক্ত হলে আশেপাশের মানুষসহ কয়েকটি জেলার মানুষের ভোগান্তি কমে আসবে।’


রূপগঞ্জ উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফেরদৌসী আলম নীলা সারাবাংলাকে বলেন, ‘রূপগঞ্জের উন্নয়নে এমপি গোলাম দস্তগীরের অবদান মানুষ ভুলবে না। ভুলতা ফ্লাইওভারটি হলে গাউছিয়াতে যে যানজট হয় সেটাও নিরসন হবে। গুরুত্বপূর্ণ এই ফ্লাইওভারটির নির্মাণ কাজ শেষ হলে মহাসড়কে যানবাহন নিরবচ্ছিন্নভাবে চলাচল করতে পারবে। তখন নারায়ণগঞ্জবাসীসহ সারা দেশের মানুষ তার সুফল ভোগ করবে।’

সারাবাংলা/এসজে/এমও

Tags: , ,

ভুলতা ফ্লাইওভারে বদলে যাবে রূপগঞ্জ
ভুলতা ফ্লাইওভারে বদলে যাবে রূপগঞ্জ
ভুলতা ফ্লাইওভারে বদলে যাবে রূপগঞ্জ