রবিবার ১৯ আগস্ট, ২০১৮, ৪ ভাদ্র, ১৪২৫, ৭ জিলহজ্জ, ১৪৩৯

জোড়া সেঞ্চুরিতে ইতিহাস মুমিনুলের

ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৮ | ১:০৮ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম থেকে প্রতিনিধি

বাংলাদেশের হয়ে কীর্তিটা ছিল না আর কারও। মুমিনুল হক এবার গড়লেন সেই রেকর্ডও। টেস্টে দুই ইনিংসে সেঞ্চুরি করা প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে নাম লেখালেন রেকর্ডবুকে। চটগ্রামে টেস্টের পঞ্চম দিনে লাঞ্চের পরেই হয়ে গেছে এই অর্জন। টেস্ট ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ সেঞ্চুরি পেয়েছেন তিনি।

টেস্ট ক্রিকেট এর আগে ৮২ বার দেখেছে এই কীর্তি। ১৯০৯ সালে ওয়ারেন বার্ডসলি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে প্রথম সেঞ্চুরি করেছিলেন দুই ইনিংসে। সুনীল গাভাস্কার, রিকি পন্টিং ও ডেভিড ওয়ার্নারের এই অর্জন আছে তিন বার করে। মুমিনুলও নাম লেখালেন সেই অভিজাত তালিকায়।

সত্তরের ঘরে পৌঁছে গিয়েছিলেন লাঞ্চের আগেই। ৭১তম ওভারে সান্দাকানের পঞ্চম বলটা কভার আর পয়েন্টের মাঝে ঠেলে দিয়েই নিলেন এক রান। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে তখন উল্লাসের কোরাস, মুমিনুল হেলমেট খুলে জবাব দিলেন অভিবাদনের।

তার আগে ফিফটির সঙ্গে সঙ্গেই হয়ে গিয়েছিল একটা কীর্তি। একই টেস্টে সেঞ্চুরি আর ফিফটির রেকর্ড ছিল বাংলাদেশের হয়ে এর আগে চারজনের, মুমিনুল হক আজ নাম লেখান তাদের পাশে। তবে তার চেয়েও বড় একটা কীর্তি গড়লেন খানিক পর, এক টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি রান এখন মুমিনুলের।

টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে সেঞ্চুরি-ফিফটির প্রথম কীর্তি হাবিবুল বাশারের। ২০০১ সালে জিম্বাবুয়ের সঙ্গে প্রথম গড়েছিলেন সেটি। ২০০৪ সালে আরেকবার তার পুনরাবৃত্তি গড়েছেন হাবিবুল। পরে সেই পথে হেঁটেছেন সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস। প্রথম ইনিংসে ১৭৬ রান করার পর মুমিনুল দ্বিতীয় ইনিংসেও করেছেন ফিফটি। ৫৬ রান করার সময়েই হয়ে গেছে রেকর্ডটি।

তবে মুমিনুলের তার চেয়েও বড় অর্জন হয়ে গেছে এরপর। এক টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি রানের রেকর্ড ছিল তামিম ইকবালের। ২০১৫ সালে খুলনার পাকিস্তানের সঙ্গে প্রথম ইনিংসে ২৫ করার পর দ্বিতীয় ইনিংস করেছিলেন ২০৬ রান। এক টেস্টে তামিমের ২৩১-ই এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ। এরপরই ছিলেন সাকিব। ওয়েলিংটনে গত বছর ২১৭ করার পর দ্বিতীয় ইনিংসে অবশ্য আউট হয়ে গিয়েছিলেন কোনো রান না করেই।

সারাবাংলা/এএম/এমআরপি

Tags: ,

জোড়া সেঞ্চুরিতে ইতিহাস মুমিনুলের
জোড়া সেঞ্চুরিতে ইতিহাস মুমিনুলের