সোমবার ১৭ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং , ৩রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৯ই রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

মুশফিকের ডাবলে অন্য ইতিহাস

নভেম্বর ১২, ২০১৮ | ২:৪৯ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট।।

২০১৩ সালে ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন গলে। টেস্টে বাংলাদেশের কারও ২০০ ছোঁয়ার প্রথম কীর্তি ছিল সেটিই। এরপর তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান সেই পথে হেঁটেছেন, তবে হোম অব ক্রিকেট মিরপুরে সেই কীর্তিটা অধরাই থেকে গেছে বাংলাদেশের কারও। এই মাঠে চন্দরপল, আজহার আলী, জয়াবর্ধনের সেই কীর্তি ছিল, অবশেষে বাংলাদেশের কারও সেই গৌরব হয়ে গেল। তার চেয়েও বড় কথা, এই বছর এটাই প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি।

সকালের সেশনে অবশ্য বেশ সতর্ক ছিলেন মুশফিক। প্রথম এক ঘণ্টায় মাত্র ৪ রান নিয়েছিলেন, জার্ভিস-চাতারাদের খেলেছেন বেশ দেখে শুনে। পরের ঘন্টায় একটু রানের গতিটা বাড়িয়েছেন, লাঞ্চের আগে পেয়ে গিয়েছিলেন উইলিয়ামস-মাভুতার বলে দুইটি চারও মেরেছেন। প্রথম সেশন পর্যন্ত চার ছিল ১১টি, পরের সেশনে এসে বাড়িয়েছেন রানের গতি। এই সময় অবশ্য মাহমুদউল্লাহ ও আরিফুল হককে হারিয়েছেন, তবে মেহেদী হাসান মিরাজকে নিয়ে সচল রেখেছেন রানের চাকা। পেসাররা চলে যাওয়ার পর স্পিনারদের ওপর চড়াও হয়েছেন বেশি, সিকান্দার রাজার ওভারে পর পর দুই বলে মেরেছেন চার-ছয়। ১৫০ রান করতে খেলেছেন ৩৩৪ বল, এরপর ডাবল সেঞ্চুরির পথে রানের গতিটা বাড়িয়েছেন আরও।

সবচেয়ে বড় কথা, ক্রিকেটীয় ভাষায় প্রায় ‘চান্সলেস’ একটা ইনিংস খেলেছেন। সেভাবে কোনো সুযোগই দেননি সেভাবে। মিনিটের হিসেবেও বাংলাদেশের সবচেয়ে দীর্ঘতম ইনিংস খেলে ফেলেছেন মুশফিক, আগের রেকর্ড ছিল আমিনুল ইসলাম বুলবুলের ৫৩৫ মিনিটের রেকর্ড। আর বাংলাদেশের হয়ে এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি বল খেলার রেকর্ড মোহাম্মদ আশরাফুলের, ৪১৭ বলের। মুশফিকুর রহিম আছেন এর খুব কাছাকাছি।

এই ডাবল সেঞ্চুরি তুলে আরেকটি কীর্তি গড়লেন মুশফিক। প্রথম উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে দুটি ডাবল সেঞ্চুরি একমাত্র মুশফিকেরই আছে।

সারাবাংলা/এএম/এসএন

মুশফিকের ডাবলে অন্য ইতিহাস
মুশফিকের ডাবলে অন্য ইতিহাস
মুশফিকের ডাবলে অন্য ইতিহাস