শনিবার ১৭ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং , ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৮ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী

‘ম্যাচ জিততে রেফারির সহায়তার প্রয়োজন নেই ব্রাজিলের’

জুন ২৩, ২০১৮ | ১:৩৯ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক ।।

কোস্টারিকার বিপক্ষে শেষ মুহূর্তের দুই গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। যোগ করা অতিরিক্ত সময়ে গোল দুটি করেন কুতিনহো এবং নেইমার। তার আগে পেনাল্টি থেকে গোল আদায় করার সুযোগ পেয়েছিল তিতের শিষ্যরা। ভিডিও রেফারির সিদ্ধান্তে বাতিল হয় ফিল্ড রেফারির পেনাল্টির সিদ্ধান্ত। সংবাদ সম্মেলনে ব্রাজিল কোচ জানিয়েছেন, ম্যাচ জিততে রেফারির বা অন্য কারো সহায়তার প্রয়োজন নেই ব্রাজিলের।

শুরু থেকেই কোস্টারিকার রক্ষণ দূর্গ ভাঙার চেষ্টা করেছে ব্রাজিল। পুরো ম্যাচেই দুর্দান্ত খেলা নেইমার-জেসুস-উইলিয়ান-কুতিনহোরা গোলের দেখা পাচ্ছিল না। ম্যাচের ৭৮ মিনিটে নেইমার বল নিয়ে কোস্টারিকার ডি-বক্সে প্রবেশ করলে তাকে ফাউল করেন প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডার গনজালেস। নেদারল্যান্ডসের রেফারি বোজর্ন কুইপার্স পেনাল্টির বাঁশি বাজান। তবে, কোস্টারিকার খেলোয়াড়দের আপত্তির পর ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি (ভিএআর) সিদ্ধান্ত দেন পেনাল্টি হয়নি।

শেষ পর্যন্ত ৯১ মিনিটে ত্রাতা হয়ে আসেন কুতিনহো। তার গোলে লিড নেওয়ার পর নেইমার দ্বিতীয় গোলটি করেন ৯৭ মিনিটের মাথায়। তাতেই জয়-খরা দূর হয় হয় ব্রাজিলের। ২০১৪ বিশ্বকাপে জার্মানির বিপক্ষে ৭-১ গোলে হারার পর বিশ্বকাপে এটি ব্রাজিলের প্রথম জয়।

দলের দারুণ জয় আরও আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছে ব্রাজিল কোচ তিতেকে। তার হাত ধরেই এবার পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের হেক্সা জয়ের অপেক্ষা। ব্রাজিলের অভিজ্ঞ এই কোচ জানান, ম্যাচ জিততে আমাদের রেফারির সহায়তার প্রয়োজন হয় না। আমি রেফারি হলে সিদ্ধান্ত থেকে সরে দাঁড়াতাম না। কিন্তু আমি রেফারি সিদ্ধান্তকে সম্মান করি। আমরা শুধু নিরপেক্ষ বাঁশিই প্রত্যাশা করি। আমি মনে করি, ওটা পেনাল্টি ছিল।

এর আগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে আগে গোল করেও শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলের ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলকে। সেই ম্যাচে বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত নিয়ে সন্দেহ পোষণ করেও ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভিএআর) সহায়তা পায়নি ব্রাজিল। সেই ম্যাচটি শেষে ভিএআর ইস্যুতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে আপিল করেছিল ব্রাজিল। তবে, সুইজারল্যান্ড ম্যাচে ভিডিও রিভিউ এর ব্যবহার নিয়ে তাদের জানানো অভিযোগ খারিজ করে দেয় ফিফা। ভিএআর ব্যবহারে রেফারিদের অপরাগতা উল্লেখ করে ব্রাজিলের আপিল নাকচ করে দেওয়া হয়েছিল বলে এক বিবৃতিতে জানানো হয়।

ব্রাজিল প্রায় তিন পৃষ্ঠার একটি চিঠি পাঠিয়েছিল ফিফার কাছে। ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশনের দেয়া চিঠিতে জানানো হয়েছিল, ম্যাচ চলাকালীন রেফারিদের সিদ্ধান্তের ভিডিও ও অডিও রেকর্ড রাখার ব্যবস্থা রাখা। তবে, ব্রাজিলের এমন পরামর্শ কানে তোলেনি ফিফা। উল্টো ফিফা জানিয়েছে, ভিএআর বিষয়ে রেফারিদের গতিবিধি কিংবা কথাবার্তা রেকর্ড করার কোনো নিয়ম বিশ্বকাপ শুরুর আগে জানানো হয়নি। ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি (ভিএআর) পদ্ধতি শুধু ব্যবহার করা হয় রেফারিদের পরিষ্কার এবং নিশ্চিত ভুল এড়ানোর জন্য।

সারাবাংলা/এমআরপি

‘ম্যাচ জিততে রেফারির সহায়তার প্রয়োজন নেই ব্রাজিলের’
‘ম্যাচ জিততে রেফারির সহায়তার প্রয়োজন নেই ব্রাজিলের’
‘ম্যাচ জিততে রেফারির সহায়তার প্রয়োজন নেই ব্রাজিলের’