শনিবার ২৬ মে, ২০১৮ , ১২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫, ১০ রমযান, ১৪৩৯

রোহিঙ্গা ইস্যুতে সু চির ভূমিকা হাতাশাজনক: ইইউ

ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৮ | ৬:৫০ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট:

ঢাকা: রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের নোবেল জয়ী নেতা অং সান সু চির ভূমিকা হতাশাজনক। মিয়ানমারকে অবশ্যই চুক্তি অনুযায়ী রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর নিরাপদ প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে হবে।

কক্সবাজার সফররত ইউরোপীয় ইউনিয়ন-ইইউ’র প্রতিনিধিদল এমন মন্তব্য করেছে। ইইউ কার্যালয় থেকে মঙ্গলবার প্রকাশিত এক বার্তায় এই তথ্য জানা গেছে।

ইউরোপীয় পার্লামেন্টের মানবাধিকার সংক্রান্ত সাব-কমিটির চেয়ারম্যান ইতালির এমপি পিয়েরা এন্তোনিও পানজেরি বলেন, ‘রোহিঙ্গা সঙ্কটের সমাধান করতেই সংসদীয় দলের এই পরিদর্শন কর্মসূচি। মিয়ানমারকে অবশ্যই নিরাপদে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে হবে। এবং রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে নাগরিক সুবিধাসহ তাদের সকল মানবাধিকার অধিকার নিশ্চিত করতে হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘রাখাইনে যে ঘটনা ঘটেছে তা অত্যন্ত ভয়াবহ। অথচ সুচির মতো নোবেল জয়ী একজন মানবাধিকার নেতার এই ইস্যূতে ভূমিকা হতাশাজনক। আমি ভেবে পাই না যে, যে মানুষটি মানবাধিকার কর্মী হিসেবে ১৯৯০ সালে পুরস্কৃত হয়েছে এবং শান্তিতে নোবেল পেয়েছেন, তিনি এই ভয়াবহতা দেখে কীভাবে নিশ্চুপ থাকেন।’

ইউরোপীয় সংসদীয় কমিটির আরেক সদস্য এবং জার্মান এমপি জোয়াকিম জিল্লার বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের দেখভাল করতে গিয়ে বাংলাদেশ ব্যাপক চাপে রয়েছে। সেই সঙ্গে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ও চাপে রয়েছে। অতি দ্রুত এই সঙ্কটের সমাধান প্রয়োজন। আর  তা মিয়ানমারকেই করতে হবে।’

ইইউ’র একটি উচ্চ পর্যায়ের সংসদীয় প্রতিনিধিদল গত রোববার ৪ দিনের সফরে ঢাকা আসে। ১১ সদস্যের এই প্রতিনিধিদল মিয়ানমার থেকে বিতাড়িত বসত-ভিটা হারানো রোহিঙ্গাদের মানবিক পরিস্থিতি দেখতে কক্সবাজার সফর করেন।

কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে, ইউরোপীয় ইউনিয়ন চায় নির্যাতিত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী তাদের মৌলিক অধিকার এবং যথাযথ মর্যাদা নিয়ে মিয়ানমারে নিজেদের বসত-ভিটায় ফিরে যাক। এজন্য এই জনগোষ্ঠীর সামাজিক মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় আর্থিক সহায়তা এবং সমর্থন অব্যাহত রাখতে চায় সংস্থাটি।

প্রতিনিধিদলে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের মানবাধিকার বিষয়ক সাব-কমিটি (ডিআরওআই), ইউরোপীয় পার্লামেন্টের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটি (এএফইটি), দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক বিষয়ক কমিটি এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ান জাতি বিষয়ক এসোসিয়েশন (ডিএএসই) ও দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক বিষয়ক প্রতিনিধি (ডিএসএএস)’র সদস্যরা রয়েছেন।

ইইউ প্রতিনিধি দলের মধ্যে ডিআরওআই, এএফইটি ও ডিএএসই দলের সদস্যরা মঙ্গলবার মিয়ানমারের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়েছেন।

অন্যদিকে, ডিএসএএস এর সদস্যরা আগামীকাল বুধবার পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলমের সঙ্গে বৈঠক করবেন। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ডিএসএএস এর সদস্যদের সম্মানে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বুধবার মধ্যাহ্ন ভোজের আয়োজন করেছে।

সারাবাংলা/জেআইএল/এমএস/

 

আরও পড়ুন