মঙ্গলবার ২৩শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং , ৮ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৩ই সফর, ১৪৪০ হিজরী

লাগাতার ২০ বছর শ্রেষ্ঠত্বের আসনে আজহারুল

ডিসেম্বর ২২, ২০১৭ | ১০:১২ অপরাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১৯৯৭-২০১৭ সাল। ২০ বছর ধরে টানা রাজত্ব করে যাচ্ছেন তিনি। ফেডারেশন চাইলে জাতীয় অ্যাথলেটিকসে একটা স্বর্ণ যেন তার জন্য আগেই বরাদ্দ করে দিতে পারে। শরীরে বয়সের ছাপ স্পষ্ট। কিন্তু পারফর্মন্সে তার ছিটে ফোটাও নেই। বছরের পর বছর নিজের আসন অক্ষুণ্ণ রেখেছেন। বিষ্ময়ের পর বিষ্ময়ের জন্ম দিচ্ছেন।

আজও ব্যতিক্রম হলো না আজহারুল ইসলামের। নিজের একমাত্র ইভেন্ট ডিসকোর্সে শুধু স্বর্ণই জিতলেন না। সাথে দেশের জাতীয় অ্যাথলেটিকসে নতুন মাইলফলক তৈরি করে দিলেন বাংলাদেশ নৌবাহিনীর এই অ্যাথলেট।

যদিও তার অ্যাথলেটিকস জীবনে ঢোকা সেনাবাহিনীর হাত ধরে। নিজেই বললেন সেই গল্পটি, সেনাবাহিনীর একজন খেলোয়াড়। সেনাবাহিনীতেই খেলা শিখেছি। ১৯৯৪ আর্মি টিমে ঢুকছি। দুইবছর পর ষষ্ঠ বাংলাদেশ গেমসে আমি তৃতীয় স্থান হই। অনুপ্রেরণা নিয়ে অনুশীলন শুরু করি। ১৯৯৭ সাল থেকে টানা স্বর্ণ জেতা শুরু হয়। মাঝখানে দু’বার (২০১৩ ও ২০১৭) সামার্স অ্যাথলেটিকসে স্বর্ণ মিস করি। তবে, ন্যাশনালে স্বর্ণ ধরে রাখতে পেরেছি।’

এই ২০ বছরে দুবার তিনবার রেকর্ড গড়েছেন তিনি। ২০০৫ সালে প্রথমবার চট্টগ্রামে জাতীয় অ্যাথলেটিকসে কুড়ি বছর অব্যাহত থাকা রেকর্ড ভেঙেছেন। তার পাঁচ বছর পরে সাফ গেমসে ৪৪.৯৮ মিনার নিক্ষেপ করে ব্রোঞ্জ জিতেন। যা দেশের হয়ে একটি রেকর্ড। এরপর আজ শুক্রবার (২২ ডিসেম্বর) ৪১ তম জাতীয় অ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতায় ১২ বছর আগের গড়া নিজের রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়েছেন তিনি।

৪৪.৩৭ মিটার নিক্ষেপ করে স্বর্ণ জিতে নিয়েছেন আজহারুল। ৪২.৭০ মিটার নিক্ষেপ করে দ্বিতীয় হয়েচেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী শ্রী কমলাকান্ত রায়। ৪২.০৭ মিটার নিক্ষেপ করে তৃতীয় হয়েছেন সেনাবাহিনীরই মামুন শিকদার।

নতুন মাইলফলক গড়ে আপ্লুত আজহারুল জানান, ‘রেকর্ড করাতে আমি অত্যন্ত খুশি। আমার পরিবার খুশি। খেলাটা যদি নিজে চালিয়ে যেতে পারি তাহলে আমি পরিপূর্ণভাবে সুস্থ থাকতে পারবো। সারাবছর ধরে প্রস্তুতি নিচ্ছে। টার্গেট হলো আমার ন্যাশনাল লেভেলে খেলা।

এজন্য নিজের বাসায় মাঠের মধ্যে নিয়ম করে অনুশীলন করেন তিনি, ‘নিজের বাসায় প্রস্তুতি নিচ্ছি। আমাদের বাসার পাশে একটা মাঠে অনুশীলন করি। ফেসবুক থেকে ছবি নামিয়ে রিসার্স করি। গ্রাউন্ডে গিয়ে প্রয়োগ করার চেষ্টা করি। ছেলেদের দিয়ে ভিডিও করাই। নিজের ভুলত্রুটি শুধরিয়ে নেয়ার কাজ করি।

আসন্ন এসএ গেমসে দেশের হয়ে স্বর্ণ জিততে চান তিনি। সেজন্য প্রয়োজনীয় ট্রেনিং আর পরিচর্যা আশা করেন ফেডারেশন কাছ থেকে।

সারাবাংলা/জেএইচ

লাগাতার ২০ বছর শ্রেষ্ঠত্বের আসনে আজহারুল
লাগাতার ২০ বছর শ্রেষ্ঠত্বের আসনে আজহারুল
লাগাতার ২০ বছর শ্রেষ্ঠত্বের আসনে আজহারুল