শুক্রবার ১৯ জানুয়ারি, ২০১৮, ৬ মাঘ, ১৪২৪, ১ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৩৯

Live Score

শাড়ির স্বর্গভূমি- মিরপুর বেনারসি পল্লী!

জানুয়ারি ৭, ২০১৮ | ২:৪৮ অপরাহ্ণ

রাজনীন ফারজানা

কনের জন্য বিয়ের শাড়ি চাই?

বিয়ের শাড়ি কেনার জন্য এখনও বেশিরভাগ মানুষের প্রথম পছন্দের স্থান রাজধানীর মিরপুর ১০ নম্বরের বেনারসি পল্লী।  সুন্দর ও বৈচিত্রময় বুনন, নকশা, রঙ  এবং দাম বাজেটের মধ্যে হওয়ায় বেনারসি পল্লীর শাড়ি এখনো অপ্রতিদ্বন্দ্বী।

মিরপুরে বেনারসি পল্লীর যাত্রা শুরু সেই ১৯০৫ সালে। মানে একশ বছরেরও বেশি সময় ধরে এইখানে বেনারসি কাতান জামদানিসহ দারুন সব শাড়ি বেচাকেনা চলছে।

১৯৯০ সাল পর্যন্ত গদি ঘর তেমন ছিলনা বললেই চলে। গদি ঘরগুলোতে বেনারসি শাড়ির খুচরা ও পাইকারি কেনাবেচা হত সাধারণত। পরবর্তীতে চাহিদা বাড়তে থাকায় এগুলোর সংখ্যা বাড়তে থাকে। পুরনোদের সাথে নতুন নতুন উদ্যোক্তা যোগ দেয়। পরবর্তীতে কারখানাগুলো অন্য জায়গায় সরে যায় ও গদিঘরগুলো আধুনিক শোরুমে পরিণত হয় এবং দেশে বিদেশে এখানকার পরিচিতি ও জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকে।

নানাধরণের শাড়ি পাবেন এখানে গেলে।  যেমন নতুন পুরনো ডিজাইনের বেনারসি, টাঙ্গাইল তাঁতের শাড়ি ও হাফ সিল্ক শাড়ি, রাজশাহী সিল্ক, ব্রোকেড, ধুপিয়ান, জামদানী, ঢাকাই মসলিন, কাতান, কোটা ও জর্জেট শাড়ি।

সব শ্রেনীর মানুষই এই মার্কেটে কেনাকাটা করতে যায়।  বিশেষ বিশেষ উপলক্ষে বিশেষত বিয়ের সময় মিরপুর বেনারসি পল্লীকে বেছে নিতে ভালোবাসেন অনেকেই। দেশে বিয়েতে লাল বেনারসির চাহিদা সর্বোচ্চ।

আপনি চাইলে আগে থেকে অর্ডার দিয়ে বিশেষ ডিজাইন দিয়েও বেনারসি শাড়ি বানিয়ে নিতে পারেন। তবে সব দোকানে এই সুযোগ পাবেননা। অল্প সংখ্যক দোকানেই এই সুযোগ পাবেন তবে আপনাকে অন্তত একমাস আগে অর্ডার দিতে হবে আর মোট দামের ৫০-৬০ শতাংশ পরিশোধ করতে হবে।

 

এখানে তিন হাজার আটশো থেকে শুরু করে পনেরো হাজার টাকার মধ্যে বেনারসি কাতান পাওয়া যায়। লাখ টাকার উপরেও শাড়ি পাবেন। তবে বেনারসি পল্লীতে কেনাকাটার সবচাইতে বড় সুবিধা হচ্ছে এখানে আপনি চাইলে দামাদামি করতে পারবেন।

বর্তমানে এখানে মোট ১০৮ টি শো-রুম আছে।

বেনারসি পল্লীর দোকানগুলো সোমবার থেকে শনিবার পর্যন্ত সকাল দশটা থেকে রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত খোলা থাকে। রবিবার পূর্ণদিবস আর সোমবার দুপুর বারোটা পর্যন্ত বন্ধ থাকে এই মার্কেট।

বেনারসি শাড়ি স্থানীয় কারিগরদের হাতে দেশে তৈরি হলেও এর কাঁচামাল আসে ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, চীন থেকে। আর আমাদের দেশে বানানো এইসব শাড়ি রফতানি হয় ভারত, পাকিস্তান, চীন ও আমেরিকায়।

ঠিকানা- সেকশন:১০, ব্লক: এ, লেইন: ১-৪, মিরপুর, ঢাকা-১২২১।

 

 

ছবি- নূর

সারাবাংলা/আরএফ/এসএস

Tags: , , , ,