সোমবার ১৭ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং , ৩রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৮ই রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

শেষ বলে শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলকে হারালেন মিঠুনরা

জুলাই ১৭, ২০১৮ | ৬:২৪ অপরাহ্ণ

।। স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট ।।

শেষ ওভারে দরকার ২২ রান। সিলেট স্টেডিয়ামে খালেদ আহমেদ বল করতে আসছেন, স্ট্রাইকে মাদুশঙ্কা। প্রথম পাঁচ বলে মারলেন তিন ছয়, হঠাৎ করে সমীকরণটা সহজ হয়ে গেল শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের। শেষ বলে জয়ের জন্য দরকার ৩ রান, স্ট্রাইকে সেই মাদুশঙ্কাই। কিন্তু শেষ রান নিতে পারলেন না মাদুশঙ্কা। যে ম্যাচটা বাংলাদেশ ‘এ’ দলের জন্য ছিল সহজ, শেষ পর্যন্ত সেটাই কঠিন করে জিতল ২ রানে। তার চেয়েও বড় কথা, শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের সঙ্গে ওয়ানডে সিরিজের শুরুটা জয় দিয়েই হলো বাংলাদেশ ‘এ’ দলের।

অথচ ২৮০ রানের পুঁজি নিয়ে ম্যাচটা বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রণেই ছিল সব সময়। ১৩ রানের মধ্যে দুই ওপেনার সামারাবিক্রামা ও থারাঙ্গাকে ফিরিয়ে দিয়েছেন শরিফুল ও খালেদ। ৬৫ রানে আফিফ রান আউট করেন শিহান জয়াসুরিয়াকে, ৭২ রানে আরিফুল ফিরিয়ে দেন থিরিমান্নেকে।

এরপর ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করে শ্রীলঙ্কা। আশান প্রিয়াঞ্জন ও দাশুন শানাকা মিলে যোগ করেন ৮৪ রান। প্রিয়াঞ্জন ৪২ রান করে বোল্ড হন আরিফুলের বলেই, কিন্তু শানাকা আর বিপজ্জনক থিসারা পেরেরা ক্রিজেই ছিলেন। ৪১তম ওভারের আগেও শ্রীলঙ্কার রান দরকার ছিল ওভারপ্রতি আটের বেশি, পেরেরা থাকলে তা অসম্ভব নয় মোটেও। কিন্তু ৪১তম ওভারেই পেরেরাকে ২২ রানে ফিরিয়ে দেন খালেদ। শানাকা এরপর চেষ্টা করছিলেন, কিন্তু ৪৬তম ওভারে এসে ৭৮ রানে আউট হয়ে যান খালেদের বলেই। শ্রীলঙ্কার তখনও দরকার ৩৮ রান, ওভার বাকি ৪টি। পরের ওভারেই দুই উইকেট তুলে নেন শরিফুল, ২৪৪ রানে শ্রীলঙ্কা হারায় ৯ উইকেট। বাংলাদেশের জয়ের জন্য মাত্র ১ উইকেট দরকার তখন, মনে হচ্ছিল সেটি সময়ের ব্যাপার।

কিন্তু মাদুশঙ্কা হাল ছাড়েননি। তিন ছয়ে আরেকটু হলে জিতিয়েই দিচ্ছিলেন। শেষ বলে মাথা ঠাণ্ডা করে শেষ পর্যন্ত জেতাতে পারেন খালেদ। ৭২ রানের বিনিময়ে নিয়েছেন ৩ উইকেট, ৫৪ রানে ৩ উইকেট শরিফুলের। আর ৪২ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন আরিফুল।

তার আগে বাংলাদেশের জেতার মতো রান এনে দিয়েছেন আরিফুলই। ৪৫তম ওভারে ফজলে রাব্বি যখন ৫৯ রান করে আউট হলেন, তখনও বাংলাদেশের রান ২১৫। সেখান থেকে আরিফুল শুরু করলেন ঝড়, শেষ ওভারে গিয়ে যখন আউট হয়েছেন নামের পাশে ২২ বলে ৪৭ রান। নিজের বিগ হিটিং সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছেন তিনটি ছয় মেরে। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ করতে পারে ২৮১ রান।

৪৪ বলে ৪৪ রান করেছেন অধিনায়ক মোহাম্মদ মিঠুন। ফজলে রাব্বি করেছেন ৬৩ বলে ৫৯ রান। তবে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ইনিংস ওপেনার মিজানুর রহমানের, ৬৭ রান করতে অবশ্য ১০৭ বল খেলেছেন। শুরুর এই স্লথ গতি শেষে এসে পুষিয়ে দিয়েছেন আরিফুল। শ্রীলঙ্কার পাঁচ বোলারের সবাই পেয়েছেন একটি করে উইকেট, বাংলাদেশের রাব্বী ও সানজামুল হয়েছেন রান আউট। সিরিজের পরের ম্যাচ ১৯ জুলাই সিলেটেই।

সারাবাংলা/এএম/এমআরপি

শেষ বলে শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলকে হারালেন মিঠুনরা
শেষ বলে শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলকে হারালেন মিঠুনরা
শেষ বলে শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলকে হারালেন মিঠুনরা