বুধবার ২০ জুন, ২০১৮, ৬ আষাঢ়, ১৪২৫, ৫ শাওয়াল, ১৪৩৯

সম্মাননা গ্রহণ করে হাসিনা আমাদের সম্মানিত করেছেন: মমতা

মে ২৬, ২০১৮ | ১০:০১ অপরাহ্ণ

।। শুভজিত পুততুন্ড, কলকাতা থেকে ।।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ‘আমরা সম্মাননা দিতে চেয়েছিলাম, তিনি (শেখ হাসিনা) তা গ্রহণ করে আমাদেরকে সম্মানিত করেছেন।’

শনিবার (২৬ মে) সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে হোটেল তাজে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে একান্ত বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ মন্তব্য করেন। এর আগে সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে হোটেল আসেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তাকে স্বাগত জানান কলকাতাস্থ ডেপুটি হাইকমিশনার তৌফিক হাসান।

বৈঠকে তিস্তা নিয়ে কথা হয়েছে কী না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্ন এড়িয়ে গিয়ে মমতা বলেন, ‘এই আলোচনা সৌজন্যমূলক ছিল। ভাল আলোচনা হয়েছে। হাসিনার সঙ্গে সম্পর্ক আমাদের ভাল। ব্যবসায়িক ও সাংস্কৃতিক সম্পর্ক কীভাবে আরও বৃদ্ধি করা যায়, সেসব বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।’

পশ্চিমবঙ্গে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একটি মিউজিয়াম তৈরি করা হবে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, এই আলোচনা সৌজন্যমূলক। আমাদের মধ্যে ভাতৃত্বের সম্পর্ক। এখানে মুজিবুর রহমান মিউজিয়াম তৈরি করবো, যদি তারা রাজি হয়। দুই দেশ রাজি হলে এই কাজ করা সম্ভব। থিয়েটার রোডের অরবিন্দ ভবনে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি বিজড়িত একটি স্থান আছে। সেটি তারা সংস্কার করতে চায়।’

শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়ছে কী না জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে কোনও রাজনৈতিক বা অন্য কোনও সীমানা নেই। আমি ওনাকে আর উনি আমাকে খুব ভালবাসেন। আমরা নানা বিষয়ে নিজেদের মধ্য আলোচনা করেছি। ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক মুক্তিযুদ্ধের সময় থেকে ছিলো, আছে এবং থাকবে।’

প্রধানমন্ত্রী শুক্রবার (২৫ মে) ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকও করেন। সফরের দ্বিতীয় দিন আসানসোলে  নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে যোগ দেন শেখ হাসিনা। সেখান থেকে তিনি ডক্টর অব লিটারেচার (ডি.লিট) ডিগ্রি পেয়েছেন।

গত শুক্রবার শেখ হাসিনার সঙ্গে শান্তিনিকেতনের অনুষ্ঠানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দেখা হলেও সেই অনুষ্ঠানে একান্ত আলাপচারিতার সময় বের করা ছিল কঠিন। তাই বাংলাদেশ সরকার এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দফতর থেকে আলাদা আলোচনার সময় বের করার চেষ্টা চলছিল।

নির্ধারিত শিডিউল অনুযায়ী শনিবার বিকেলে কলকাতায় নেতাজী ভবন পরিদর্শনের পর নেতাজী সুভাষ বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা হওয়ার কথা ছিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকের কারণে শিডিউলে পরিবর্তন আনা হয়।

পরিবর্তিত সূচি অনুসারে নেতাজি ভবন থেকে তাজ বেঙ্গল হোটেল ফেরেন শেখ হাসিনা। সন্ধ্যার পর সেখানে আসেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠক শেষে শনিবার (২৬ মে) রাতে দক্ষিণ কলকাতার হোটেল ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এদিন রাত ৯ টা নাগাদ কলকাতার দমদমের নেতাজি সুভাষ চন্দ্র আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বাংলাদেশ বিমানের এক ফ্লাইটে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেন তিনি।

সারাবাংলা/এসপি/এমআইএস

আরও পড়ুন..

তাজ বেঙ্গলে একান্ত বৈঠকে হাসিনা-মমতা

শিক্ষকের পর প্রিয় শিক্ষার্থীও পেলেন একই ডি. লিট

‘তিস্তা’ ‘রোহিঙ্গা’ নয় নরেন্দ্র মোদি কথা দিলেন নির্বাচন নিয়ে

নজরুল ও শেখ মুজিব পাশাপাশি দুটি নাম : প্রধানমন্ত্রী

নজরুলের সাম্যবাদী চেতনায় উদ্বুদ্ধ শেখ হাসিনা পেলেন ডি.লিট ডিগ্রি

জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে কবিতা আবৃত্তি করলেন শেখ হাসিনা

বঙ্গবন্ধুর নামে ভবন হবে পশ্চিমবঙ্গে : মমতা

বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কের সোনালি অধ্যায় চলছে: মোদি

রবীন্দ্রনাথের ওপর আমাদের অধিকারই বেশি: শেখ হাসিনা

বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশে সব সমস্যার সমাধান করতে পারব: প্রধানমন্ত্রী

বিশ্বভারতীতে ‘বাংলাদেশ ভবন’ উদ্বোধন হাসিনা-মোদি’র

** দ্রুত খবর জানতে ও পেতে সারাবাংলার ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন: Sarabangla/Facebook

সম্মাননা গ্রহণ করে হাসিনা আমাদের সম্মানিত করেছেন: মমতা
সম্মাননা গ্রহণ করে হাসিনা আমাদের সম্মানিত করেছেন: মমতা