মঙ্গলবার ১৯ মার্চ, ২০১৯ ইং , ৫ চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১০ রজব, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

সাইনাসের মাথাব্যথা কমানোর ঘরোয়া উপায়

জানুয়ারি ৬, ২০১৯ | ৩:০০ অপরাহ্ণ

লাইফস্টাইল ডেস্ক।।

সাইনোসাইটিস হলো খুলির মধ্যে থাকা কিছু ফাঁকা জায়গা। চোখের পেছনে ও নাকের হাড়ের দুই পাশে এরকম ফাঁকা জায়গা থাকে। এই ফাঁকা জায়গায় সর্দি জমে সাইনোসাইটিস হয়। যাকে অনেকে সংক্ষেপে সাইনাসের ব্যথাও বলে থাকেন।

সাইনোসাইটিস হওয়ার কোন বয়স নাই। এর ফলে প্রচন্ড মাথাব্যথা হয়। সাইনোসাইটিসের মাথাব্যথা সাধারণত কপালে, গালের দুই দিকে ও চোখের পেছনে অনুভূত হয়। মাথাব্যথার সাথে কাশি বা জ্বরও থাকতে পারে। সাধারণত গরমে অতিরিক্ত ঘেমে গেলে, বৃষ্টিতে ভিজলে কিংবা ঠান্ডা লাগলে সাইনোসাইটিস বেড়ে যায়।

এই ব্যথা শুরু হলে সহজে কমতে চায় না। সর্দি বের না হওয়া পর্যন্ত চলতে থাকে৷ ব্যথা নিরাময়ে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করাই ভালো। তবে ঘরোয়া কিছু উপায় জেনে নিলে সাইনোসাইটিসের মাথাব্যথায় অনেকটা উপকার পাওয়া যায়।

গরম পানির ভাপ

সাইনাসের সমস্যায় ভুগলে গরম পানির ভাপ নেওয়া অত্যন্ত কার্যকরী। কিছুক্ষণ ভাপ নিলে নাকের বন্ধ ভাবটা কেটে যায়। ফলে কিছুটা আরাম হয়। উষ্ম গরম পানি দিয়ে গোসল করলেও অনেকসময় ব্যথা কমে যায়। এছাড়া নাক পরিষ্কার রাখা অত্যন্ত জরুরী। হালকা গরম পানি ব্যবহার করে নাক থেকে সর্দি পরিষ্কার করলে উপকার পাবেন।

সাইনোসাইটিসের ব্যথা অনেক তীব্র হয়। ব্যথা অতিরিক্ত বেড়ে যাওয়ার আগেই গরম পানিতে কাপড় ভিজিয়ে কপাল, চোখ ও নাকে সেক দিন। দিনে দুই থেকে তিনবার এভাবে সেক দিলে ব্যথায় উপকার পাবেন।

মসলাযুক্ত খাবার

কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, মসলাযুক্ত খাবার সাইনোসাইটিসের ব্যথার তীব্রতা কমায়। বিশেষত, ঝাল খাবারে ব্যথায় উপকার পাবেন। তবে শুকনো মরিচের গুঁড়াযুক্ত খাবারে অনেকের গ্যাষ্ট্রিকের সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই রান্নায় কাঁচা মরিচ ব্যবহার করুন। এতে ঝালও পাবেন আবার স্বাস্থ্যেরও কোন ক্ষতি হবে না। কেউ রান্নায় বেশি ঝাল ব্যবহার করতে না চাইলে খাবারের সাথে একটি কাঁচা মরিচ খেতে পারেন।

পছন্দের গান শুনুন

সুইডেনের এক গবেষণায় দেখা গেছে, পছন্দের গান শুনলে সাইনাসের মাথাব্যথার তীব্রতা কমে। কারণ, পছন্দের গানে মগ্ন হলে নিঃশ্বাস চলাচল ভাল হয়। এতে মাথাব্যথার তীব্রতা কমে। তাই সাইনাসের ব্যথায় মন দিয়ে পছন্দের গান শুনুন। ব্যথাও কমবে, সময়টাও ভালো কাটবে।

পর্যাপ্ত পানি পান

প্রতিদিন পর্যাপ্ত পানি পান করতে হবে। বেশি করে পানি খেলে ভেতরে জমে থাকা কফ বা শ্লেষ্মা সহজে বেরিয়ে যেতে পারে। সেই সাথে সবধরনের এ্যালকোহল এড়িয়ে চলতে হবে।

খেতে পারেন দারুচিনি

দারুচিনি সাইনোসাইটিসের ব্যথায় খুব উপকারী। দারুচিনির ঝাঁঝালো স্বাদ ভালো লাগবে। কিছুটা মধুর সাথে দারুচিনি গুঁড়া মিশিয়ে খেতে পারেন। এ ছাড়া দারুচিনি গুঁড়ার সাথে সামান্য পানি মিশিয়ে কপালে মালিশও করতে পারেন। এতেও অনেকটা উপকার পাবেন।

মনে রাখা ভালো, সাইনোসাইটিসের মাথাব্যথায় ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া প্যারাসিটামল বা অ্যান্টিবায়োটিক খাবেন না।

সারাবাংলা/টিসি/আরএফ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন