শুক্রবার ১৯ জানুয়ারি, ২০১৮, ৬ মাঘ, ১৪২৪, ১ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৩৯

Live Score

সৌদির ‘নারীবিরোধী’ পোশাক আইন; নাখোশ দাবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন

ডিসেম্বর ২৭, ২০১৭ | ৭:৪৩ অপরাহ্ণ

সারাবাংলা ডেস্ক
সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে দু’দিন আগে শুরু হওয়া দ্য কিং সালমান র‌্যাপিড ও ব্লিটজ-২০১৭ দাবা টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছেন না দু’বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইসরাইলের আন্না মজাইচুক।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সৌদি আরবের নারী বিরোধী পোশাক আইন নিয়ে নিজের না যাওয়ার ব্যাপারে লিখেছেন তিনি। এই পোষাক আইনে নাখোশ এই চ্যাম্পিয়ন বলেন, তিনি সৌদি আরবের মতো দেশে কোনও টুর্নামেন্টে অংশ নিবেন না। এখানে নারীদের ‘দ্বিতীয় প্রাণী’ হিসেবে দেখা হয় বলে উল্লেখ করেন তিনি।

গত সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) রিয়াদে শুরু হওয়া এই টুর্নামেন্টে না যেতে পেরে অখুশি আন্না ফেসবুকে লিখেছেন, কয়েকদিনের মধ্যে একএক করে আমি আমার দু’বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন আসন হারাতে বসছি। যেহেতু আমি সৌদি আরবে যেতে অস্বীকার করেছি। তাদের দেয়া নিয়মে খেলতে অস্বীকৃতি জানিয়েছি। ‘আবায়া’ পড়ছি না।’

‘আমি আসলে ‘দ্বিতীয় প্রাণী’ হিসেবে খেলতে চাই না। ঠিক এক বছর আগে আমি দুটি চ্যাম্পিয়ন টাইটেল জিতেছি এবং পৃথিবীর সবচেয়ে খুশি ব্যক্তি ছিলাম। কিন্তু এখন আমার খারাপ লাগছে। আমি আমার মূল্যবোধ আর নীতিতে অটল। আমি টুর্নামেন্টে যাচ্ছি না। কিন্তু আমি আশা করেছিলাম এখান থেকে অনেক কিছু অর্জন করতে পারতাম যা অনেক ইভেন্ট মিলিয়ে করতে পারি নি। যোগ করেন তিনি।

এই টুর্নামেন্টে নারীদের পোশাক নির্ধারণ করে দিয়েছে সৌদি আরব সরকার। মেয়েদের খেলতে হলে ‘ঐতিহাসিক’ পোষাক নীতি মানতে হবে। মেয়েদের পুরো শরীর ঢেকে গলা বরাবর পোষাক পড়তে হবে। এই নিয়মকে মজাইচুক ‘দ্বিতীয় প্রাণী’ ও ‘অপ্রত্যাশিত’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

তিনি বলেন, ‘খারাপ লাগে এ কারণে যে কেউই এ বিষয় নিয়ে কথা বলছে না। আমার বোন মারিয়াও আমার মূল্যবোধে একমত। এজন্য আমি খুশি। যারা আমার সাথে একমত বা এ বিষয়ে কথা বলতে তাদের বলছি, আমরা আবার ব্যাক করবো।’

এ দাবা টুর্নামেন্টে অংশ নিতে অস্বীকৃতি জানালে এ মজাইচুকের টাইটেল বাতিল করতে চলেছে বিশ্ব দাবা ফেডারেশন এফআইডিওয়াই। এর পরিপ্রেক্ষিতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে ইসরাইল দাবা ফেডারেশনও আবেদন করেছে বলে জানা যায়।

তবে, সৌদি আরবের এ ‘অখেলোয়াড়সুলভ’ আচরণে ক্ষুব্ধ অনেকে মজাইচুকের স্টাটাসের নিচে মতামত প্রকাশ করছেন।

সারাবাংলা/জেএইচ