মঙ্গলবার ২৩শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং , ৮ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১২ই সফর, ১৪৪০ হিজরী

স্বাস্থ্যপরীক্ষার অনুমতি পাননি খালেদার চিকিৎসকরা

ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৮ | ২:০৫ অপরাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: স্বাস্থ্যপরীক্ষার অনুমতি মেলেনি কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার। নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার অংশ হিসেবে চিকিৎসকদের আবেদনের পর কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তারা আবেদনপত্র হাতে পেয়েছে। তবে নিয়ম অনুযায়ী কোনো বন্দির সঙ্গে সপ্তাহে একবার দেখা করার সুযোগ রয়েছে।

যেহেতু এর আগে গত ৯ তারিখে তার পরিবারের সদস্যরা দেখা করে গিয়েছেন। তাই চিকিৎসকরা দেখা করতে পারবে না বলে জানিয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ।

এর আগে, বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য কারা গেটে সাত সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল যান।

কারা গেটে আসলে পুলিশ তাদের জেল সুপারের কাছে অনুমতি নিতে পাঠান। পরে জেল সুপারের অনুমতির জন্য যায় চিকিৎকদের একটি প্রতিনিধি দল।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) বকশীবাজার আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ আদালতের বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন।

এ ছাড়া মামলায় অন্য আসামি তার ছেলে তারেক রহমান, সাবেক এমপি কাজী সলিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমানকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়। একই সঙ্গে তাদের প্রত্যেককে দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা করে জরিমানা করেন আদালত।

রায়ের পরপরই খালেদা জিয়াকে আদালতের পাশে নাজিমউদ্দিন রোডে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

২০১৬ সালের ২৯ জুন থেকে ৬ হাজার ৪০০ বন্দিকে কেরানীগঞ্জের তেঘরিয়ার রাজেন্দ্রপুরের নতুন কারাগারে স্থানান্তর করে পুরনো কারাগার বন্ধ ঘোষণা করা হয়। কিন্তু দুই বছর ৪ মাস ১০ দিন পর দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি হিসেবে এই পরিত্যক্ত কারাগারেই দিন পার করছেন খালেদা জিয়া।

সারাবাংলা/এসও/এমএইচ/জেএএম

স্বাস্থ্যপরীক্ষার অনুমতি পাননি খালেদার চিকিৎসকরা
স্বাস্থ্যপরীক্ষার অনুমতি পাননি খালেদার চিকিৎসকরা
স্বাস্থ্যপরীক্ষার অনুমতি পাননি খালেদার চিকিৎসকরা