বুধবার ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৪ আশ্বিন, ১৪২৫, ৮ মুহররম, ১৪৪০

হাসিনা-মোদির আরও একটি ভিডিও কনফারেন্স আগামী সপ্তাহে

সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮ | ২:৪৬ অপরাহ্ণ

।। এমএকে জিলানী, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট ।।

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আগামী সপ্তাহে আরও দুইটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। ঢাকা এবং নয়া দিল্লির একাধিক কূটনৈতিক সূত্র এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মধ্যে সর্বশেষ ভিডিও কনফারেন্স হয়েছে গত ১০ সেপ্টেম্বর (সোমবার)। ওইদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘দেখা করার বাইরে এটা আমাদের তৃতীয় ভিডিও কনফারেন্স। খুব তাড়াতাড়ি আমরা আরও একটি ভিডিও কনফারেন্স করব।’

ঢাকা ও নয়া দিল্লির কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, উন্নয়ন কর্মসূচি অব্যাহত রাখতে দুই প্রধানমন্ত্রী আগামী সপ্তাহে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আরও দুইটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। আগামী সপ্তাহেই ভিডিও কনফারেন্স হবে, এখন শুধু তারিখ চূড়ান্ত করতে কাজ করছে দুই দেশের কর্মকর্তারা। আশা করা যাচ্ছে, আগামী রোববার বা সোমবার ভিডিও কনফারেন্সের তারিখ চূড়ান্ত হয়ে যাবে।

উন্নয়ন প্রকল্পের একটি হচ্ছে, জ্বালানি তেল সরবরাহের জন্য দুই দেশের সীমান্তে পাইপ লাইন উদ্বোধন। এই পাইপ লাইন দিয়ে বছরে ১ মিলিয়ন মেট্রিক টন (ওয়ান এমএমটিপিএ) ডিজেল ভারত থেকে বাংলাদেশে আসবে। বর্তমানে আসামের নুমালিগড় রিফাইনারি কেন্দ্র থেকে রেলগাড়ির মাধ্যমে এই জ্বালানি আসছে।

অন্যটি হচ্ছে, যোগাযোগ ব্যস্থার উন্নয়নে ট্রেন লাইনের উদ্বোধন। যা জয়দেবপুর এবং টঙ্গিকে রাজধানী ঢাকার সঙ্গে যুক্ত করবে।
ঢাকা ও নয়া দিল্লির কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, এই দুইটি উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন বাংলাদেশের আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বাড়তি শক্তি জোগাবে।

এদিকে, বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে ভারত সরকার সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয় উল্লেখ করে ঢাকায় ভারতের হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা গতকাল বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বলেন, ‘দুই দেশের সম্পর্কে বর্তমানে সোনালী অধ্যায় চলছে। ভারত ও বাংলাদেশ যৌথভাবে অনেক অবকাঠামোগত উন্নয়ন প্রকল্পে কাজ করছে।’

এর আগে এই সপ্তাহের গত ১০ সেপ্টেম্বর (সোমবার) বিকেলে ভারত ও বাংলাদেশের দুই প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যৌথভাবে আখাউড়া-আগরতলা ডুয়েল গেজ রেল লাইন নির্মাণ কাজ, কুলাউড়া-শাহবাজপুর বিভাগের রেলপথের সংস্কার প্রকল্প এবং বাংলাদেশের জাতীয় গ্রিডে ভারত থেকে ভেড়ামারায় নবনির্মিত ৫শ মেগাওয়াট এইচভিডিসি ব্যাক টু ব্যাক কেন্দ্রের দ্বিতীয় ব্লকের উদ্বোধন করেন।

ওই দিন উদ্বোধনী বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘বহু বছর ধরে আমাদের মধ্যকার সম্পর্ক পারস্পরিক বিশ্বাস, শ্রদ্ধাবোধ ও সুনামের কারণে আজ পরিপক্কতা লাভ করেছে। আমাদের এই সম্পর্ক বিশ্বের অন্যান্য অংশের জন্য রোল মডেল হিসেবে গণ্য হবে। এই সুসম্পর্ক আমাদের দৃঢ় আস্থার সঙ্গে পারস্পরিক সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিতে সাহায্য করছে। এতে দুই দেশের জনগণই লাভবান হচ্ছে।’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘প্রতিবেশী দেশের নেতার সঙ্গে এ রকম সম্পর্ক থাকা উচিত যে যখন চাইব কথা হবে, যখন-তখন ভিজিট হবে। এর জন্য আমাদের প্রটোকলের বাঁধনে আটকে থাকা উচিত না।’

নরেন্দ্র মোদি আরো বলেন, ‘এর আগে কাঠমান্ডুতে অনুষ্ঠিত বিসমটেক সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করার সুযোগ হয়েছিল। তারও আগে শান্তি নিকেতনে এবং লন্ডনে আমাদের দেখা হয়েছিল। আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আপনার সঙ্গে আরও একবার দেখা করার সুযোগ হলো।’

সারাবাংলা/জেআইএল/এনএইচ

আরও পড়ুন:

বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক হবে রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী

Tags: , , ,

হাসিনা-মোদির আরও একটি ভিডিও কনফারেন্স আগামী সপ্তাহে
হাসিনা-মোদির আরও একটি ভিডিও কনফারেন্স আগামী সপ্তাহে