বুধবার ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৪ আশ্বিন, ১৪২৫, ৮ মুহররম, ১৪৪০

৭ বছরের মীমকে ধর্ষণ ও হত্যা, অজ্ঞাত ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা

আগস্ট ১৬, ২০১৮ | ৯:৫৪ পূর্বাহ্ণ

।। ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট ।।

ফেনী :ফেনী পৌর আরামবাগ এলাকায় সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা মোহাম্মদ কবীর বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামির বিরুদ্ধে এই মামলা করেন ।

বুধবার (১৫ আগস্ট) রাতে এই ঘটনায় ফেনী মডেল থানায় ধর্ষণ ও হত্যা মামলা দায়ের হয়।

এর আগে নিখোঁজের চার ঘণ্টা পর বুধবার সকাল ১০টার দিকে স্থানীয় একটি নির্মাণাধীন ভবনের পাশের ডোবা থেকে শিশু মীমের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়ার বাসিন্দা হলেও পেশায় দিনমজুর মোহাম্মদ কবীর তার পরিবার দিয়ে ফেনী পৌর এলাকার আরামবাগে ভাড়া বাসায় থাকতেন। তার মেয়ে বেহেশতি আক্তার মীম প্রতিদিনের মত গতকাল সকালেও বাড়ির পাশের মক্তবে পড়তে বের হয়। কিন্তু মক্তব থেকে ফেরার সময় পেরিয়ে গেলেও সে বাসায় না ফেরায় খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। একপর্যায়ে বাড়ির পাশের নির্মাণাধীন ভবনের পাশে ডোবা থেকে মীমের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

বেহেশতি আক্তার মীম স্থানীয় আরামবাগ মাদ্রাসার ছাত্রী।

পুলিশ মীমের মরদেহ উদ্ধার করে ফেনী জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। পরে সেখানে ময়নাতদন্ত শেষে প্রতিবেদন দেন চিকিৎসকরা। প্রতিবেদনে বলা হয়, শিশু মীমকে ধর্ষণ করে হত্যা করার আলামত পাওয়া গেছে।

ফেনী মডেল থানার পরিদর্শক সাজেদুল ইসলাম জানান, শিশুটির ময়নাতদন্তে ধর্ষণ করে হত্যা করার আলামত পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে ধর্ষণ ও হত্যা মামলা করেছেন মেয়েটির বাবা।

সারাবাংলা/এসএমএন

Tags: ,

৭ বছরের মীমকে ধর্ষণ ও হত্যা, অজ্ঞাত ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা
৭ বছরের মীমকে ধর্ষণ ও হত্যা, অজ্ঞাত ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা