বিজ্ঞাপন

সমালোচনার দায়ে এক নারীকে ৩৫০ ডলার জরিমানা

December 22, 2017 | 8:18 pm

সারাবাংলা ডেস্ক

বিজ্ঞাপন

হোটেলে উঠে রুমের নোংরা পরিবেশ দেখলে কার না মেজাজ বিগড়ে যায়!  স্বাভাবিক নিয়মেই রুমের নোংরা পরিবেশ ও অব্যবস্থাপনা দেখে ক্ষেপে যায় এক দম্পতি। তার ওপর আবার হোটেল কতৃপক্ষ অনলাইনে তাদের সেবার মান সম্পর্কে মন্তব্য জানাতে বলে, তারাও লিখে দেয় বাজে অভিজ্ঞতার কথা। আর তাতেই ক্ষেপে গিয়ে হোটেল কতৃপক্ষ ক্যাটরিনা আর্থার নামের এক নারীকে ৩৫০ ডলার জরিমানার পাশাপাশি উকিল নোটিশ পাঠায়।

ক্যাটরিনা ও তার স্বামী নিরিবিলিতে কিছুটা সময় কাটানোর জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানা প্রদেশের ‘অ্যাবি ইন’ নামের একটি হোটেলে গিয়ে ওঠে।

বিজ্ঞাপন

ক্যাটরিনা তার মন্তব্যের ঘরে লিখেছিল ‘ভয়াবহ’ অভিজ্ঞতা। এর পরেই লেখেন ‘কক্ষটি খুবই অগোছালো, দেখে মনে হচ্ছে কেউ ছেড়ে যাওয়ার পর আর পরিষ্কারই করা হয়নি। কয়েক জায়গায় আবর্জনাও খুঁজে পেয়েছি।’

এ ছাড়া হোটেল কক্ষ থেকে নর্দমার গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে, এয়ার কন্ডিশন কাজ করছে না। এ ব্যপারে হোটেলের অভ্যর্থনা কক্ষে ফোন করার পরও কক্ষটি পরিষ্কারের কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় নিজেই পরিষ্কার করি, বলেও সেখানে উল্লেখ করেন।

বিজ্ঞাপন

ক্যাটরিনা পোস্টটি পাবলিশ করার পর হোটেল কতৃপক্ষ ৩৫০ ডলার জমিরানা করে ও উকিল নোটিশ পাঠিয়ে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। এর পর অবশ্য ক্যাটরিনা তার অনলাইন পোস্টটি মুছে ফেলে।

এ ঘটনা আদালতে গড়ালে তিনি জানতে পারেন আগেও কয়েকজন একই কারনে উকিল নোটিস পেয়েছে।

বিজ্ঞাপন

হোটেলে কতৃপক্ষ আগে থেকেই আইন করে রাখে অনলাইনে তাদের সুনাম নষ্টকরে কোন কিছু লিখলে তার বিরুদ্ধে জরিমানা করা হবে।

তবে শেষ পর্যন্ত হোটেল কতৃপক্ষের এই আইনকে অবৈধ ও প্রতারণামূলক বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমআই

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন