বিজ্ঞাপন

সঙ্গে আছেন তারকারাও

August 2, 2018 | 10:27 am

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপন্ডেন্ট ।।

বিজ্ঞাপন

ইউনিফর্ম, পায়ে কেডস আর কাঁধে ব্যাগ। সবাই কলেজ পড়ুয়া। অথচ দাপটের সঙ্গে উত্তাল করে রেখেছে রাজপথ। রাজধানীর প্রতিটি রাস্তায় কমে গেছে গাড়ি চলাচল। এতে করে ভোগান্তিতে পড়েছে জনসাধারণ। একই সঙ্গে এমন আন্দোলনকে সাধুবাদ জানাচ্ছেন সব শ্রেণী পেশার মানুষ।

আর সেই সব শ্রেণী পেশার মানুষের মধ্যে রয়েছেন বিনোদন জগতের মানুষেরাও। অভিনয়শিল্পী, পরিচালকসহ কলাকুশলীরা এই আন্দোলনকে সমর্থন দিয়েছেন। ২৯ জুলাই রাজধানীতে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই কলেজ শিক্ষার্থীর মৃত্যুতে সৃষ্ট আন্দোলনের বিভিন্ন ছবি ও স্লোগান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করছেন তারা। বিভিন্ন বার্তায় তারাও বুঝিয়ে দিচ্ছেন নিজেদের সংহতির কথা। রাজপথেও নেমেছেন অনেকে।


আরও পড়ুন :  বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে সিনেমা : যা বললেন তিন পরিচালক

বিজ্ঞাপন

২৯ জুলাই রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সামনে বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরব পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে খ্যাতিসম্পন্ন এই পরিচালক শুধু বিভিন্ন ঘটনার প্রতিবাদই করছেন না, বিভিন্নভাবে সমাধানের পথও বাতলে দিচ্ছেন।

চিত্রনায়ক, মডেল নিরব আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ছোট ভাই বলে আপন করে নিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছেন, ‘সাথে আছি ভাই তোদের’।

বিজ্ঞাপন

সংগীতশিল্পী প্রীতম আহমেদ। প্রতিবাদি, বিষয়ভিত্তিক বা জীবনমুখী গানের কথা আসলেই তার কথা মনে পড়ে। তিনি তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছেন, ‘হে বাংলাদেশ, ১৮ বছর বয়সের বুকে এতো ঘৃণা ও ক্রোধ জমিয়ে তুমি কাকে দেশপ্রেমিক বানাতে চাও?’

কণ্ঠশিল্পী, পরিচালক ও অভিনেতা মেহের আফরোজ শাওন। তিনিও একাধিকবার বিভিন্ন লেখার মাধ্যমে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করেছেন। আন্দোলনের সঙ্গে সহমত জানিয়ে হ্যাসট্যাগ দিয়ে তিনি লিখেছেন, ‘নিরাপদ সড়কের দাবীতে ছাত্রদের চলমান আন্দোলন আমি সমর্থন করছি’।


আরও পড়ুন :  নায়ক না হয়ে আসছেন শাকিব


আন্দোলন নিয়ে নিজের বক্তব্য জানিয়েছেন নাট্য নির্মাতা সাগর জাহান। তিনি লিখেছেন, ‘দিনকে দিন মন্ত্রী নামক শব্দ‌টির প্র‌তি আস্থা কম‌ছে, ঘৃণা বাড়‌ছে… অন্তত এক‌জন মন্ত্রী রাজপ‌থে এসে ছাত্র-ছাত্রী‌দের দা‌বির পা‌শে দাঁড়ান, ছাত্র-ছা‌ত্রীদের রক্তাক্ত জুতার সা‌থে আপনার জুতাও র‌ক্তে ভিজুক, প্রমাণ করুন আপ‌নিও মানুষ, মন্ত্রী না.. প্রমাণ করুন আপ‌নিও কা‌রো বাবা, শুধু মন্ত্রী না…’।

অভিনেতা রওনক হাসান তার ফেসবুকের প্রোফাইল পিকচারেই ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ বাক্যটি জুড়ে দিয়েছেন এবং এমন ঘটনার বিচার দাবি করেছেন। এমন আরও অনেক অভিনয়শিল্পী এই আন্দোলনকে বিভিন্নভাবে সমর্থন করছেন, ব্যাখ্যা করছেন। অনেকে সাহস দিচ্ছেন, ভালো-মন্দ বোঝাচ্ছেন। যেমন অভিনেতা মাজনুন মিজান লিখেছেন, ‘সাবাস বাংলাদেশ। হিসাবের বাইরে অনেক কিছুই হয়, সাবধান!’

বিজ্ঞাপন

অভিনয় শিল্পীদের মধ্যে অনেকেই সামিল হয়েছেন কলেজ পড়ুয়াদের সঙ্গে। তাদের মধ্যে অন্যতম শাহনাজ খুশি, শতাব্দী ওয়াদুদ, ওমর সানি, তানভিন সুইটি, পূর্ণিমা, সোহানা সাবা, নওশাবা, আব্দুল্লাহ রানা, মৌসুমি হামিদ, ইমন, তৌসিফ মাহবুব।

বিপাশা হায়াত লিখেছেন, ‘জাস্টিস আই ওয়ান্ট’। চঞ্চল চৌধুরী লিখেছেন, ‘হোক প্রতিবাদ… বিচার চাই’। তমালিকা জানিয়েছেন, তিনি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আছেন।

সংগীতশিল্পীদের মধ্যে কুমার বিশ্বজিৎ নবীনদের ওপর আস্থা রেখে লিখেছেন, ‘হে নবীন এগিয়ে যাও… তোমাদের কাছ থেকে আমাদের অনেক কিছু শেখার আছে।’ পুলক অধিকারী আন্দোলনের ছবি পোস্ট করে সমর্থন দিয়েছেন।

পরিচালকরাও তাদের কাজ থেকে কিছুটা সময় বের করে যোগ দিয়েছেন আন্দোলনে। রাজপথে কলেজ পড়ুয়াদের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন তারা। পরিচালক এস এ হক অলীক, সকাল আহমেদ রাজপথে নেমে আন্দোলনকারীদের সাহস যুগিয়েছেন। পরিচালক রেদওয়ান রনি ও স্বপন আহমেদও প্রতিবাদি কথায় সমর্থন জানিয়েছেন আন্দোলনে।


আরও পড়ুন :  আট বছর পর সাসটেইনের অ্যালবাম


দেশের জাদরেল প্রযোজক আবদুল আজিজ। ব্যবসা, সিনেমা নিয়ে কাজ করার পাশাপাশি আন্দোলন নিয়েও চিন্তা করেছেন তিনি। আন্দোলনে সংহতি জানিয়ে ‘আমি বাংলাদেশ’ শিরোনামে লিখেছেন দীর্ঘ লেখা।

আর এভাবেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জনমত তৈরি করছেন তারকারা। তারাও চাইছেন দেশের সবাই নিরাপদভাবে চলাচল করুক এবং ভুলের বিচার হোক।

সারাবাংলা/পিএ/পিএম

Tags: , , , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন