বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৩ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

শীত শীত গন্ধ, চোখে লাগে ধন্দ

নভেম্বর ২৯, ২০১৭ | ৪:২৯ পূর্বাহ্ণ

সারাবাংলা ডেস্ক

বিজ্ঞাপন

আসবো না আসবো না করে শীত ঠিক এসেই গেল, আসবেই বা না কেন? অগ্রহায়ণ মাসের যে আজ ১৫ তারিখ। পৌষ পুরোপুরি আসার আগে একটু তো হাঁকডাক থাকা চাই নাকি? শীতের আগমনে সূর্যও একটু আলসে হয়ে গিয়েছে, উঠতে উঠতে সকাল ছয়টা বাইশ বাজিয়ে ফেলে।

কিন্তু সূর্যের আইনে কি আর অফিস আদালত চলে? তাই সকাল সকাল যাদের ঘর থেকে বের হতে হবে, তারা মোটামুটি গরম কাপড় নিয়ে হবেন, সকালে যখন সূর্য উঠবে তখন তাপমাত্রা থাকবে ১৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বেলা ১০টা নাগাত সে তাপমাত্রা গিয়ে পৌঁছাবে, ২৪ ডিগ্রিতে।

বেলা দুইটায় যদিও ২৮ ডিগ্রি পর্যন্ত তাপমাত্রা উঠবে কিন্তু এর পরেই আবার কমা শুরু করবে। শীতের ফাঁকিবাজ সূর্য বিকাল পাঁচটা বেজে কোনোক্রমে ১১ মিনিট পার হলেই টুপ করে ডুবে যাবে, তখন আবার তাপমাত্রা নেমে যাবে ২৩ ডিগ্রিতে। তাই বাড়ি ফিরতে ফিরতে যদি রাত বেশি হয়, দুপুরের কম ঠাণ্ডার ধোঁকায় পরবেন না যেন, সূর্য ডুবলেই শীতের বুড়ি উত্তর ও উত্তর পূর্ব হাওয়ায় ভর দিয়ে জাঁকিয়ে আসবে।

এমনিতে আবহাওয়ার পূর্বাভাষে বৃষ্টির নাম ঠিকানাও নেই তবে, কুয়াশার জন্য দিন বেশ ঢিমে আলো ছড়াবে। আকাশের ৩১ শতাংশ জায়গা জুড়ে মেঘও থাকবে। আর্দ্রতা হবে ৫৩ শতাংশ থেকে ৭৫ শতাংশ পর্যন্ত। সকালের দিকে তাই চুল খুব ফুরফুরে লাগলেও বেলা বাড়লে যখন আর্দ্রতা বেড়ে ৭৫ শতাংশে যাবে তখন চুল বেঁধে ফেলাই ভালো। একটু ঘাম-টাম হলেও গা কুটকুটানি থেকে বাঁচা যাবে। আর যাদের চুল ছোট তাদের তো চুলের ভাবনাই নাই। আর্দ্রতা যাই হোক একটু বাতাস পেলেই ফুরফুরে থাকা যাবে।

বিজ্ঞাপন

সারাদিনে শিশির পাত বিভিন্ন মাত্রায় হলেও কুয়াশার কারণে দেখতে খুব সমস্যা হবে না। তবে এই পূর্ভাবাষ কিন্তু নদীর ধারে কাছে অংশের জন্য নয়। সেসব এলাকায় ইতিমধ্যে ঘন কুয়াশায় নৌ চলাচল বন্ধ হয়ে বসে আছে।

সূর্য যদিও একটু আলসে আছে চাঁদের কিন্তু শুক্লপক্ষ চলছে। তাই চাঁদ মামা বেলা ০২:৪৫ এ ঝকঝকে দিন থাকতেই উঠে বসে থাকবেন। বিকালে আলো একটু কমে আসলেই আধখানা থেকে একটু ছোট আকারে তাকে আকাশে ঝুলতে দেখা যাবে। আগে আসার খাতিরে আবার রাত শেষ হওয়ার আগে রাত তিনটা নাগাদ সে ডুবেও যাবেন।

সূর্য ফাঁকিবাজি করলেও তার অতিবেগুনী রশ্মি মোটেই কোনো ফাঁকিবাজির ধার ধারছে না। তাই দিনের যে সময়ই ঘর থেকে বের হন না কেন, খোলা ত্বকে সানস্ক্রিন লাগাতে ভুলবেন না। মিষ্টি রোদ গায়েও মাখা হবে আবার সূর্যের আলোর ক্ষতিও হবে না। আপনাদের সারাদিন নিরাপদে কাটুক।

সারাবাংলা/এমএ/নভেম্বর ২৯,২০১৭

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন