বিজ্ঞাপন

বিএনপির উদ্দেশ্য নির্বাচন বানচাল : তথ্যমন্ত্রী

August 28, 2018 | 8:37 pm

।। ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট ।।

বিজ্ঞাপন

গোপালগঞ্জ : নির্বাচন নয় বরং নির্বাচন বানচাল করাই বিএনপির আসল উদ্দেশ্য বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। অন্যদিকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম মনে করেন, এখন বড় বড় কথা বললেও যথাসময়ে নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি।

মঙ্গলবার (২৮ আগস্ট) দুপুরে গোপালগঞ্জে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন দুই মন্ত্রী। মোহাম্মদ নাসিমের নেতৃত্বে ১৪ দলের নেতারা এই শ্রদ্ধা জানান।

বিজ্ঞাপন

এসময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি আজকে অনেক বড় বড় কথা বলছে। তারা ঠিকই  নির্বাচনের সময়  নির্বাচনে অংশ নেবে। কোন শর্তারোপ করে নির্বাচন হয় না। মাত্র ৩/৪ মাসের মধ্যেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন ইনশাল্লাহ হবে। সংবিধান অনুযায়ী ইউরোপ, আমেরিকা, ভারত, মালয়েশিয়ায় নির্বাচন হয়। বর্তমান সরকারের প্রধানমস্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনেই সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে। সংবিধানের বাইরে যাবার সুযোগ আমাদের নেই।’

মন্ত্রী আরো বলেন, সবার নির্বাচন করার অধিকার আছে। আমি বিশ্বাস করি এবার বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবে। নির্বাচনে এসে জনগনের রায়কে শ্রদ্ধা জানাবেন দলটির নেতারা।

বিজ্ঞাপন

আগামী ডিসেম্বরে বিজয়ের মাসে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ১৪ দল ঐক্যবদ্ধভাবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ঐক্যবদ্ধভাবে নির্বাচন করার নির্দেশ দিয়েছেন। আমি আশা করি এ নির্বাচনে সব দল অংশ গ্রহণ করবে। নির্বাচন করার অধিকার সবারই আছে। শেষ পর্যন্ত বিএনপিও নির্বাচনে আসবে। যদি না আসে তাতে আমাদের করনীয় কিছু নেই। আর যদি নির্বাচনে না আসে নির্বাচন আপন গতিতে সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষভাবে অনুষ্ঠিত হবে। আগামী নির্বাচনে অনেক দল অংশ নেবে। অনেক দল নির্বাচন করার জন্য প্রস্তুত আছে।’

এসময় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘বিএনপি বহুত কথা-বার্তা বলে। বিএনপির আসল উদ্দেশ্য নির্বাচন নয়। তাদের আসল উদ্দেশ্য হচ্ছে নির্বাচনকে বানচাল করা। এ সুযোগে তারা খালেদাকে হালাল করবে। আমি গত ১০ বছর শেখ হাসিনার হাত ধরে রাজাকারদের মাইনাস করার লড়াই করছি। সেই রাজাকারদের মাতা খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই করছি। সুতরং বিএনপি যাই বলুক না কেন আমার সংগ্রাম জারি থাকবে। দন্ডিত খালেদা জিয়া, বিএনপি, জামায়াত, রাজাকার ও জঙ্গিবাদের সাথে কোনো আপোষ নয়।’

বিজ্ঞাপন

এর আগে দুপুরে ১৪ দলের নেতারা বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধের বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। পরে সেখানে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন তারা। এপর ফাতেহা পাঠ করে বঙ্গবন্ধু এবং ১৫ আগস্টের শহীদদের রুহের মাগফিরাত কামনায় মোনাজাত করেন।

সারাবাংলা/এসএমএন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন