রবিবার ১৬ জুন, ২০১৯ ইং , ২ আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১২ শাওয়াল, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

ভালো থাকুক বাইকার পুরুষের ত্বক আর চুল

সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৮ | ১০:৩৪ পূর্বাহ্ণ

রাজনীন ফারজানা।।

দশবছর ধরে ঢাকায় বাইক চালান মাহবুব। সেলসে কাজ করার কারণে তাকে প্রায় প্রতিদিন ঢাকায় নানা জায়গায় যেতে হয়। প্রায় প্রতিদিন ঢাকা শহরের এ মাথা থেকে ও মাথা চক্কর দিতে বাইকের বিকল্প নাই তার জন্য। কিন্তু মোটরবাইক তাকে গতি দিলেও কেড়ে নিয়েছে তার ত্বকের পেলবতা। মুখ এবং হাতের ত্বক যে শুধু রোদে পুড়েছে তাই নয়, তার মাথার চুলও লক্ষণীয় মাত্রায় কমে গেছে।

নিয়মিত বাইক চালানোর কারণে ত্বকের ক্ষতি এড়াতে কী করেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রতিদিন সকালে বের হওয়ার সময় তিনি এসপিএফ ৫০ মানের সানব্লক ক্রিম মাখেন হাতে ও মুখে। কিন্তু ঢাকার প্রচণ্ড রোদে হেলমেট পড়লে প্রচণ্ড ঘাম হয়। তার ব্যাবহৃত সানব্লক ম্যাট হলেও ঘামের কারণে মুছে যায়। তার মনে হয় এর ফলেই হয়ত সানব্লকের প্রভাব সেভাবে কাজ করে না। ইদানীং মাথা ঘেমে যাওয়ার হাত থেকে বাঁচতে হেলমেটের নীচে একটা সুতির রুমাল বাঁধা শুরু করেছেন। এর বাইরে আলাদা করে ত্বকের যত্ন নেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, নিয়মিত ময়েশ্চারাইজিং লোশন মাখার বাইরে আর কোন ধরণের যত্ন তিনি নেন না।

আরেকজন বাইকার জাহাঙ্গির আলম রাইড শেয়ারিং এপস পাঠাওয়ের একজন রাইডার। দিনের বেশ দীর্ঘ একটা সময় রোদে থাকতে হয় তাকে। বাইরে ঘুরে ঘুরে ত্বকের ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতে ত্বকের যত্ন নেন কিনা জানতে চাইলে বলেন, এ ব্যপারে তিনি কখনও ভাবেননি। নিয়মিত সাবান দিয়ে গোসলেই সীমাবদ্ধ তার ত্বকের যত্ন। আলট্রা ভায়োলেট রে কিংবা তার ক্ষতিকর দিক নিয়ে কোন চিন্তাই নাই তার। হাসতে হাসতে বলেন, পুরুষ মানুষের আবার ত্বকের যত্ন কি!

বিজ্ঞাপন

আমাদের দেশের অধিকাংশ পুরুষই ভাবেন তাদের ত্বকের আলাদা করে যত্ন নেওয়া লাগে না। ত্বকের যত্ন নেওয়ার কাজটা নিতান্তই মেয়েদের। কিন্তু রোদের কারণে ত্বক যে শুধু পুড়ে যায় তাই না, অতি বেগুনী রশ্মির ক্ষতিকর প্রভাবে ক্যানসার সহ ত্বকে নানারকম দীর্ঘমেয়াদী ক্ষতি হয়। যারা নিয়মিত বাইক চালায় তাদের তুলনামূলক বেশি সময় রোদে থাকতে হয়। ফলে তাদের ত্বকের আলাদা করে যত্ন নেওয়া প্রয়োজন।

বাইকারদের ত্বকের যত্ন নেওয়া প্রসঙ্গে পারসোনা এডামসের ধানমন্ডি শাখার প্রধান মাসুম বিল্লাহ খান বলেন বাইকারদের যেহেতু দীর্ঘসময় রোদে থাকতে হয় তাই তাদের ত্বকের যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। হেলমেট ব্যবহার করলে সরাসরি মুখে রোদ লাগে না তাই ত্বক কিছুটা রক্ষা পায়। সুর্যালোকে ক্ষতির হাত থেকে ত্বক বাঁচাতে নিয়মিত সানব্লক ক্রিম মাখার পরামর্শ দেন তিনি।

যারা ব্যক্তিগত প্রয়োজনে বাইক চালান তারা দিনে দুই থেকে তিন ঘন্টার বেশি চালান না কিন্তু অনেকেই রোদের মধ্যে তিন থেকে চার ঘন্টাও বাইক চালান। তাই তিন থেকে চার ঘন্টা এক্টিভেট থাকে এমন সানব্লক ব্যবহার করা ভালো।

এছাড়াও ফুল হাতা শার্ট ব্যবহার করতে পরামর্শ দেন তিনি। হাফ হাতা শার্ট বা টি শার্ট পরলে আলাদা করে হ্যান্ড কাভার পরতে হবে বলে জানান তিনি। এসব হ্যান্ড কাভার মোটরবাইকের পার্টসের দোকানেই পাওয়া যায়।

ত্বকের যত্নে পার্লারে গিয়ে আলাদা যত্ন না নিলেও প্রতিদিন বাড়িতে যত্ন নেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। ত্বকের ধরণ অনুযায়ী ফেসওয়াশ, ময়েশ্চারাইজার এবং নাইট ক্রিম ব্যবহার করতে বলেন তিনি।

হাত ও মুখের ত্বক ছাড়াও রোদে পুড়ে ও ঘামে ভিজে বাইকারদের চুল ড্যামেজ হয়ে যায় বা অকালে ঝরে যায়। এর থেকে রক্ষা পেতে নিয়ম করে বাড়িতে বা পার্লারে গিয়ে চুলে অয়েল মাসাজ বা মান্থলি হেয়ার ট্রিটমেন্ট করাতে হবে।

কিছু জরুরি পরামর্শ

  • যারা নিয়মিত রোদে বের হন তারা প্রচুর পরিমাণ পানি খাবেন। প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় তাজা ফলমূল এবং শাক সবজি রাখতেও ভুলবেন না। আর বাইরে থাকা কালীন, ফলের রস, তাজা ফল বা ডাবের পানি খান। এতে শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দেবে না।
  • ত্বক যদি খুব বেশি পুড়ে যায় সাথে সাথে কিংবা বাসায় ফিরে পোড়া জায়গায় বরফ ঘষলে উপকার পাবেন
  • সম্ভব হলে শসা কিংবা আলু থেঁতো করে ঠান্ডা করে লাগালেও উপকার পাবেন। এতে রোদে পোড়া দাগ দূর করতেও সাহায্য করবে।
  • ত্বকের পোড়া অংশে তুলায় ভিজিয়ে দুধ লাগালে ত্বকের উপর একটা প্রোটিনের আবরণ ফেলে ও ত্বককে দ্রুত সুস্থ করে। রোদে পোড়া ত্বকে টকদই লাগালেও উপকার পাবেন।
  • ত্বক রোদে পুড়ে গেলে গোসলের পানিতে এক কাপ আপেল সাইডার ভিনেগার বা দুই কাপ বেকিং সোডা বা ক্যামোমাইল অথবা ল্যাভেন্ডার ফ্লেভারের এসেনশিয়াল অয়েল মেশান। এতে শরীরের স্বাভাবিক পিএইচ ব্যালান্স ঠিক করে রোদে পড়া ত্বক দ্রুত সুস্থ করবে।
  • গোসলের পর ত্বকে ভিটামিন ই যুক্ত তেল লাগালে রোদে পোড়া ত্বক দ্রুত আরোগ্য হবে।
  • বৃষ্টিতে বা ঘামে চুল ভিজে গেলে দ্রুত শুকিয়ে নিন। ভেজা চুল ড্যামেজড হয়ে ঝরে পড়ে বা চুলের গোঁড়ায় খুশকি দেখা দেয়। বাসায় এসে সম্ভব হলে শ্যাম্পু করে ফেলবেন।

 

সারাবাংলা/আরএফ/ এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন