বিজ্ঞাপন

খাদ্য দিবসে ১০ হাজার ক্ষুধার্তকে খাওয়াবে ‘প্রচেষ্টা’

October 14, 2018 | 7:54 pm

।। সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট ।।

বিজ্ঞাপন

ঢাকা: ১৬ অক্টেবর বিশ্ব খাদ্য দিবসে ১০ হাজার ক্ষুধার্তকে খাওয়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে তরুণদের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘প্রচেষ্টা ফাউন্ডেশন’।

দিনটিতে রাজধানীর বিভিন্ন স্পটে সুবিধা বঞ্চিত ও ভাসমান মানুষের হাতে খাবার তুলে দেবে সংগঠনটি। ক্ষুধার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর ব্যতিক্রমী এই অনুষ্ঠানটি কেন্দ্রীয়ভাবে রাজধানীর তেজগাঁও বস্তিতে আয়োজন করা হবে বলে জানা গেছে আয়োজক সূত্রে।

বিজ্ঞাপন

খাদ্য দিবস উপলক্ষে এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শুরু হয়েছে ক্যাম্পেইন। অনেকেই নিজেদের ওয়ালে হ্যাশ ট্যাগে লিখছেন ‘সে নো-টু হাঙ্গার’। এগিয়ে আসছেন সব শ্রেণি-পেশার মানুষও। ক্যাম্পেইনে বেশ সাড়াও মিলেছে, বলে জানিয়েছে সংগঠনটি।

খাদ্য দিবসে ১০ হাজার ক্ষুধার্তকে খাওয়াবে ‘প্রচেষ্টা’

বিজ্ঞাপন

প্রচেষ্টার সহ-উদ্যোক্তা পাভেল বাবু সারাবাংলাকে বলেন, ‘যাদের কোনো আয় নেই অর্থাৎ সুবিধা বঞ্চিত পথশিশু এবং ভাসমান মানুষ, তাদের মুখে একবেলা খাবার তুলে দিতেই আমাদের এই প্রচেষ্টা। কাউকে একবেলা খাবার দিয়ে আমরা হয়তো সমাজকে ক্ষুধামুক্ত করতে পারবো না, তবে এটা নিশ্চিত তরুণদের হাত ধরেই একদিন না একদিন বাংলাদেশের সব সমস্যার সমাধান হবে।’

বাবু আরও বলেন, খাবার পাঠানোর জন্য এরই মধ্যে আমাদের সঙ্গে অনেকে যোগাযোগ করছেন। অনুপ্রেরণার বিষয় এই যে, আমাদের এক বন্ধু তার মায়ের কুলখানি করবে, সে যখন জানলো আমরা এমন একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করছি, তখন সে কুলখানির বাজেট থেকে আমাদের অনুষ্ঠানে ২০ হাজার টাকা সাহায্য করেছে। সঙ্গে তার মায়ের জন্য দোয়া চেয়েছে। মানুষের এমন ভালোবাসা ও অনুপ্রেরণাই আমাদের এগিয়ে যেতে সাহায্য করে। বাবু আরও জানান, নিরাপদ খাদ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত সচিব মাহবুবুর রহমান মিলনও এগিয়ে এসেছেন তাদের উদ্যোগে। একাধিক গণমাধ্যমও সহযোগিতা করছে সর্বাত্মকভাবে।

বিজ্ঞাপন

খাদ্য দিবসে ১০ হাজার ক্ষুধার্তকে খাওয়াবে ‘প্রচেষ্টা’

জানা গেছে, প্রায় ১০০ স্বেচ্ছাসেবী কাজ করবে ওই দিন। অন্যান্য দিনের মতো বেঁচে যাওয়া খাবারও সংগ্রহ করবে তারা। বিশেষভাবে ক্ষুধার্তদের পাশে দাঁড়াতে খাবার নিয়ে যারা এগিয়ে আসবেন, সংগ্রহ করা হবে তাও। সরাসরি যে টাকার অর্থ সাহায্য পাওয়া যাবে, সেই অর্থ দিয়েও কেনা হবে খাবার। আর এসব খাবারই দিনব্যাপী তুলে দেওয়া হবে অনাহারীদের মুখে।

বিজ্ঞাপন

প্রসঙ্গত, প্রচেষ্টা ফাউন্ডেশন একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। মূলত রক্ত সংগ্রহ দিয়েই শুরু হয় সংগঠনটির কাজ। পরে পথশিশুদের পাশে দাঁড়ায় সংগঠনটির স্বেচ্ছাসেবীরা। ধারবাহিক পথপরিক্রমায় সংগঠনটি পথশিশুদের জন্যে বেগুনবাড়িতে গড়ে তুলেছে স্কুল। তাদের সবশেষ সংযোজন ফুড ব্যাংকিং। অর্থাৎ কোনো রেস্টুরেন্ট কিংবা বাসায় খাবার বেঁচে গেলে সেই খাবার সংগ্রহ করে অনাহারীদের মাঝে বিতরণ করে সংগঠনটি। নানমুখী সমাজ সেবার কারণে সংগঠনটি এরইমধ্যে বেশ আলোচনায়ও এসেছে।

এদিকে, আগামী ১৬ অক্টোবর ‘কর্ম গড়ে ভবিষ্যৎ, কর্মই গড়বে ২০৩০-এ ক্ষুধামুক্ত বিশ্ব’ প্রতিপাদ্যে সারা বিশ্বে পালিত হবে ‘বিশ্ব খাদ্য দিবস-২০১৮’। বাংলাদেশেও পালিত হবে দিবসটি। সরকারিভাবেও হাতে নেওয়া হয়েছে বিভিন্ন অনুষ্ঠান। থাকছে বেসকরকারি আয়োজনও। প্রচেষ্টার আয়োজনটিই ঠিক তেমনই।

সারাবাংলা/ইএইচটি/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন