মঙ্গলবার ২৬ মার্চ, ২০১৯ ইং , ১২ চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৮ রজব, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

মালয়েশিয়া যাওয়ার পথে সাগর থেকে ২৯ রোহিঙ্গাসহ আটক ৩৩

নভেম্বর ৮, ২০১৮ | ১:২৩ অপরাহ্ণ

।। ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট ।।

কক্সবাজার: সাগর পাড়ি দিয়ে ট্রলারযোগে অবৈধভাবে মালয়েশিয়ার যাওয়ার পথে আটক হয়েছেন ২৯ রোহিঙ্গা ও চার জন বাংলাদেশি নাগরিক। সেন্টমার্টিন দ্বীপের অদূরে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর থেকে একটি ট্রলারসহ তাদের আটক করে কোস্টগার্ড। এসময় পাচারকারী ৬ দালালকেও আটক করা হয়।

আটক করা রোহিঙ্গারা কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা। আর চার বাংলাদেশির বাড়ি কক্সবাজারের পেকুয়া ও টাঙ্গাইলে।

বিজ্ঞাপন

আটক হওয়া দালাল চক্রের সদস্যরা হলেন— মহেশখালী উপজেলার কুতুবজোম ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের আব্দুশ শুক্কুর ও তার ভাই আব্দুল গফুর, ৯ নম্বর ওয়ার্ডের রফিকুল আলম, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মো. সৈকত, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের নাসির উদ্দিন ও ২ নম্বর ওয়ার্ডের মো. জুয়েল।

দালালদের মধ্যে আব্দুশ শুক্কুর ট্রলারের মাঝি। তিনি জানান, ট্রলারটির মালিক কক্সবাজারের টেকপাড়া এলাকার শফি কোম্পানি।

কোস্টগার্ড টেকনাফ স্টেশনের কমান্ডার লে. ফয়েজুল ইসলাম মন্ডল সারাবাংলাকে বলেন, রোহিঙ্গারা সাগরপথে মালয়েশিয়া যাচ্ছে— এমন খবর পেয়ে সেন্টমার্টিনের অদূরে টহল জোরদার করা হয়। পরে ট্রলারসহ ৩৩ জনকে আটক করা হয়। এর মধ্যে ২৯ জন রোহিঙ্গা, ৪ জন বাংলাদেশি। ছয় দালাল তাদের নিয়ে যাচ্ছিল, তাদেরও আটক করা হয়েছে।

লে. ফয়েজুল ইসলাম আরও বলেন, উদ্ধার হওয়া রোহিঙ্গাদের নিজ নিজ ক্যাম্পে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশি চার জনকেও পরিবারের জিম্মায় তুলে দেওয়া হবে। আটক দালালদের বিরুদ্ধে মানবপাচার মামলা দায়ের করে টেকনাফ থানায় হস্তান্তরের প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে, আটক হওয়া রোহিঙ্গারা জানিয়েছেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে উপার্জনের সুযোগ না থাকায় তারা মালয়েশিয়ার পথে রওনা দিয়েছিল। আটক রোহিঙ্গাদের মধ্যে বেশ কয়েকজন নারী ও শিশুও রয়েছেন।

সারাবাংলা/টিআর

মালয়েশিয়া যাওয়ার পথে সাগর থেকে ২৯ রোহিঙ্গাসহ আটক ৩৩
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন