বিজ্ঞাপন

জি-২০ সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্রের আন্তরিকতা আশা করে চীন

November 30, 2018 | 5:17 pm

।। আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।।

বিজ্ঞাপন

আর্জেন্টিনার বুয়েন্স আয়ার্সে শুক্রবার শুরু হতে যাচ্ছে দুই দিনব্যাপী ১৩তম জি-২০ সম্মেলন। বিশ্বের শীর্ষ ১৯টি অর্থনীতির দেশ ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিরা সম্মেলনে যোগ দিতে সেখানে জড়ো হচ্ছেন। এবারের সম্মেলনে অন্যতম আলোচনা হিসেবে থাকছে যুক্তরাষ্ট্র-চীন বাণিজ্য দ্বৈরথ। তবে চীন যুক্তরাষ্ট্রের কাছে সহযোগিতার মনোভাব প্রত্যাশা করে বলেই  শুক্রবার (৩০ নভেম্বর) চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বার্তায় জানানো হয়। খবর আল-জাজিরার।

শনিবার (১ নভেম্বর) মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং আলোচনায় বসার কথা রয়েছে। তারা আর্থিক ব্যবস্থাপনা ও দেশ-দুটির বাণিজ্য সম্পর্ক উন্নয়নে কি ধরনের পদক্ষেপ নেন তাই এখন দেখার বিষয়।

বিজ্ঞাপন

আর্জেন্টিনায় পৌঁছার আগে ট্রাম্প এ ব্যাপারে মিশ্র ইঙ্গিত দিয়েছেন। ট্রাম্প বলেন, তারা একটি চুক্তির খুবই কাছাকাছি তবে নিশ্চয়তা দিয়ে কিছু বলতে পারবেন না।

জি-২০ সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্রের আন্তরিকতা আশা করে চীন

বিজ্ঞাপন

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র গেং সুয়াং বলেন, যুক্তরাষ্ট্র-চীনের বাণিজ্য সম্পর্ক হবে পারস্পরিক স্বার্থে এবং এক্ষেত্রে উভয়ই জয়ী হবে।

গেং আরও বলেন, উভয় দেশের জন্য গ্রহণযোগ্য হবে এমন বাণিজ্য প্রস্তাবনায় তারা যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে আন্তরিকতা আশা করছেন।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য,  চীন ও যুক্তরাষ্ট্র একে অপরের পণ্যে বাণিজ্য শুল্ক আরোপ করে যাচ্ছে। ট্রাম্প অভিযোগ করছেন চীন বাণিজ্যের ক্ষেত্রে কপিরাইট লঙ্ঘন ও আমেরিকার সাথে অন্যায্য আচরণ করছে। এর জের ধরে চীনা পণ্য থেকে, চলতি বছরের জুলাই মাসে ৩৪ বিলিয়ন ডলার, আগস্ট মাসে ১৬ বিলিয়ন ডলার ও সেপ্টেম্বরে ২০০ বিলিয়ন ডলার শুল্ক আরোপের ধারাবাহিক ঘোষণা দেওয়া হয়। পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে চীনও দেশটিতে ব্যবহৃত আমেরিকান পণ্যে ৬০ বিলিয়ন ডলার শুল্ক আদায় করার কথা জানায়। জি-২০ সম্মেলনে উভয় নেতা এসব বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করতে পারেন।

এছাড়া, সম্মেলনে আলোচনায় রয়েছে সৌদি যুবরাজ সালমানের উপস্থিতি। সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডে তার জড়িত থাকার অভিযোগের পর তিনি বিশ্বনেতাদের কিভাবে সামলাবেন তাও এখন গুরুত্বপূর্ণ।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এনএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন