বিজ্ঞাপন

প্রধানমন্ত্রীর নামে ৬টি ফেসবুক পেজ খুলে প্রতারণা, অর্থ আত্মসাৎ

January 17, 2019 | 2:29 pm

।। স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ।।

বিজ্ঞাপন

ঢাকা : প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নিতে এবং রাষ্ট্র বিরোধী প্রচারণা চালাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে ছয়টি এবং তার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের নামে ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ও পেইজ খুলেছে একটি চক্র। সেই সঙ্গে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নামে আরও ৩৬টি ভুয়া একাউন্ট খুলে প্রতারণা করতো চক্রটি। এসব  অভিযোগে চক্রটির পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-২।

বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারী) বেলা সাড়ে এগারটায় রাজধানীর কারওরান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান বাহিনীটির মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান। তিনি জানান, বুধবার (১৬ জানুয়ারি) রাত থেকে বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে নয়টা পর্যন্ত রাজধানীর মগবাজার, ডেমরা, মোহাম্মদপুর, কেরানীগঞ্জ এবং সাভারসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে এদের গ্রেফতার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- মাগুরার মোহাম্মদপুর থানার মো. ওমর ফারুক (৩০), বরিশালের কোতোয়ালী থানার মো. সাব্বির হোসেন (২৪), ডেমরার কলাপাড়া এলাকার মো. আল আমিন (২৭), বরিশালের বানারী পাড়ার মো. আমিনুল ইসলাম (২৫) এবং কেরানীগঞ্জের মনহরিয়া এলাকার মো. মনির হোসেন (২৯)। এসময় তাদের কাছ থেকে ১২টি মোবাইল এবং একটি ল্যাপটপ উদ্ধার করা হয়।

প্রধানমন্ত্রীর নামে ৬টি ফেসবুক পেজ খুলে প্রতারণা, অর্থ আত্মসাৎ

বিজ্ঞাপন

মুফতি মাহমুদ বলেন, ‘নির্বাচনকে ঘিরে সক্রিয় সাইবার অপরাধী চক্ররা এখনও ভিন্ন পথ অবলম্বন করছে। তারা এখন প্রধানমন্ত্রীসহ রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নিয়ে ফেসবুকে ভুয়া একাউন্ট খুলে প্রতারণা ও রাষ্ট্রবিরোধী প্রচারণা চালাচ্ছে। এসব অপরাধীদের আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব সদস্যরা সদা তৎপর রয়েছে উন্নতমানের ইক্যুইপমেন্ট নিয়ে। যে কারণে ইতোমধ্যে বহু সাইবার অপরাধীকে আইনের আওতায় আনতে সক্ষম হয়েছি। সে ধারাবাহিকতায় এই পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’

গ্রেফতার ব্যক্তিদের মধ্যে ওমর ফারুক নিজেই প্রধানমন্ত্রীর নামে ছয়টি এবং তাঁর মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের নামে একটি ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা করতো। সে আওয়ামী সমর্থক গোষ্ঠীসহ জাতীয় নেতাদের নামে ৩৬টি ভুয়া অ্যাকাউন্ট খুলেছিল। সে তার নিজের নামেও ছয়টি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলেছে। অপর আসামি সাব্বির পেশায় সাইবার কমিউনিকেশন এক্সপার্ট। সে ইতোমধ্যে ৬টি মামলার এজহারভুক্ত আসামি। সে এর আগে তারেক জিয়া সাইবার ফোর্স, দেশ নেত্রী সাইবার ফোরাম পেইজের এডমিন ছিল। সম্প্রতি সেসব পেইজের নামের জায়গায় শেখ হাসিনার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের নাম সংযোজন করে তাতে নিরাপদ সড়ক চাই ও কোটা আন্দোলনসহ নতুন কোনো ইস্যু পেলে সেগুলো নিয়ে উসকানিমূলক ভিডিও পোস্ট করে আসছে।

বিজ্ঞাপন

প্রধানমন্ত্রীর নামে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে প্রতারণা, গ্রেফতার ৫

চক্রটি ভুয়া এসব পেইজে প্রধানমন্ত্রীর নাম করে ফোন নম্বর দিত। সাধারণ মানুষ বুঝতে না পেরে সেসব নম্বরে টেলিফোন করলে তারা নিজেদেরকে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে নিয়োগপ্রাপ্ত পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ আদায় করতো। সম্প্রতি সংসদে সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন ফরম নেয়া প্রার্থীদেরকে ফোন দিয়ে তাদেরকে মনোনয়ন নিশ্চিতের ব্যাপারে প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ আদায়ের চেষ্টা চালিয়েছিল বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

বিজ্ঞাপন

তবে গ্রেফতারকৃতরা প্রতারণা করে কত অর্থ আত্মসাৎ করেছে এবং তাদের কোনো রাজনৈতিক পরিচয় আছে কি না তা নিশ্চিত করা যায়নি বলে জানান মুফতি মাহমুদ খান। এদের অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে সে বিষয়ে জানার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানান এ কর্মকর্তা।

সারাবাংলা/এসএইচ/এসএমএন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন