মঙ্গলবার ২৫ জুন, ২০১৯ ইং , ১১ আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২১ শাওয়াল, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

ইলেক্ট্রিক টাইমার পড়ে থাকায় ক্রীড়ামন্ত্রীর ক্ষোভ

জানুয়ারি ২৪, ২০১৯ | ৯:৪০ অপরাহ্ণ

।। স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট।।
ঢাকাঃ জাতীয় অ্যাথলেটিকস শুরু হওয়ার আগে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ অ্যাথলেটিকস ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রকিব মন্টু সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন- এবার দৌড়ের ইভেন্টগুলোতে ব্যবহার হবে ইলেক্ট্রিক টাইমার। তবে, আজ চিত্র একেবার ভিন্ন। ট্র্যাকের পাশে টাইমার পড়ে থাকলেও তার ব্যবহার হয়নি।

যার ফলে সনাতনী পদ্ধতি হ্যান্ড টাইমেই গতির সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। এতে অ্যাথলেটদের মাঝে ক্ষোভও দেখা গিয়েছে। সামনে এস এ গেমসের মতো জায়ান্ট চ্যালেঞ্জ আছে। তার আগে ইলেক্ট্রিক টাইমিং জানাটা খুব জরুরি মনে করেছিলেন অ্যাথলেটরা।

সেই চাওয়া পূরণ হয় নি। কথা দিয়েও কথা রাখতে পারেন নি ফেডারেশনের সাধারণ সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রকিব মন্টু। তার উপরেই এই আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার না করার ক্ষোভ ঝাড়লেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল।

বিজ্ঞাপন

আজ বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় পাশেই দাঁড়িয়েছিলেন মন্টু। মন্ত্রী জানতে চাইলেন কেন এমন হলো? ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক পুরনো ঢোলই বাজালেন ঘটা করে, ‘ইলেক্ট্রিক টাইমার ব্যবহারের জন্য একজন ট্যাকনেশিয়ান প্রয়োজন। কেউ নেই। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদে এ বিষয়ে বলা হয়েছে।’ মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করা হয় নি কেন মন্টুর কাছে জানতে চান প্রতিমন্ত্রী।

সঙ্গে এরপর যাতে সবকিছু ঠিক রেখেই জাতীয় প্রতিযোগিতার প্রস্তুতি নেয়া হয় সেই বিষয়ে নির্দেশনা দেন জাহিদ আহসান রাসেল।

ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জানান, ‘আমরা সব দিকেই নজর দিচ্ছি। মাঠের ট্র্যাক যদি ভালো না হয় তাহলে ভালো অ্যাথলেট পাবো কিভাবে। স্টেডিয়ামেরও কাজ হবে। ভাঙা আসনগুলো ঠিক করা হবে। অনেক বড় প্রজেক্ট হাতে নেয়া হয়েছে। দ্রুতই কাজ শুরু হবে।’

সারাবাংলা/জেএইচ

Advertisement
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন