শুক্রবার ২৬ এপ্রিল, ২০১৯ ইং , ১৩ বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৯ শাবান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

‘খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়ার এখতিয়ার প্রধানমন্ত্রীর নেই’

ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৯ | ৯:৫৮ পূর্বাহ্ণ

।। স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট ।।

চট্টগ্রাম ব্যুরো: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়ার এখতিয়ার প্রধানমন্ত্রীর নেই বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

রোববার (১০ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় চট্টগ্রামে অমর একুশে বইমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এই মন্তব্য করেন তথ্যমন্ত্রী। নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনেশিয়ামের মাঠে ১৯ দিনব্যাপী এ বইমেলার আয়োজন করে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

বিজ্ঞাপন

মন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে রুহুল কবির রিজভী আইন ও আদালতের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলী প্রদর্শন করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিএনপি নেত্রীকে শাস্তি দেননি। শাস্তি দিয়েছেন আদালত। তাই আদালতের মাধ্যমেই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে।’

তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী রোববার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। রিজভী প্রকারান্তরে এটাই বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী যেন প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব পালন করেন। কিন্তু তাঁকে মুক্তি দেওয়ার এখতিয়ার প্রধানমন্ত্রীর নেই। এই আহ্বানের মাধ্যমে রুহুল কবির রিজভী ও বিএনপি দলগতভাবে আইন ও আদালতের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করেছে।’

রুহুল কবির রিজভী বিএনপি চেয়ারপারসনকে অসুস্থ উল্লেখ করলে তা মনে হচ্ছে না বলে জানান আওয়ামী লীগের অন্যতম মুখপাত্র হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘আদালতে নেওয়ার সময় বিএনপি চেয়ারপারসনের যে চেহারা টিভিতে দেখলাম, তাতে অসুস্থতার ছাপ দেখা যায়নি।’

সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য গত এক বছরে আইনি লড়াইে বিএনপির আন্তরিকতার অভাব আছে বলে সাধারণ মানুষ মনে করেন বলেও মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কারণে বইপড়া কমে গেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘বাঙালিরা জন্মগতভাবে মেধাবী। দেশে এবং দেশের বাইরে আমরা মেধার স্বাক্ষর রেখে চলেছি। মেধা বিকাশের অন্যতম উৎস বই পড়া। একসময় আমাদের প্রজন্ম বই নিয়ে ব্যস্ত থাকতো। এখন আমাদের বই পড়ার নেশা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলে গেছে।’

অভিভাবকদের উদ্দেশে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আপনারা সন্তানদের একটি স্মার্টফোন কিনে না দিয়ে বই কিনে দিন। আপনার পরিবারের সদস্যরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে রাষ্ট্র, সমাজ এবং অনৈতিক কাজে ব্যস্ত কি না তদারক করুন।’

চট্টগ্রাম সৃজনশীল প্রকাশক পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী শামসুদ্দোহা, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া, কাউন্সিলর নাজমুল হক ডিউক, কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, প্রকাশক শাহ আলম নিপু ও কাউন্সিলর আবিদা আজাদ।

সারাবাংলা/আরডি/এমআই

‘খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়ার এখতিয়ার প্রধানমন্ত্রীর নেই’
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন