শুক্রবার ২৬ এপ্রিল, ২০১৯ ইং , ১৩ বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৯ শাবান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

ইডেন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ খুনের ঘটনায় মামলা

ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৯ | ১২:১৯ অপরাহ্ণ

।। সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট ।।

ঢাকা: রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডের নিজ বাসায় ইডেন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মাহফুজা চৌধুরী পারভীন হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিউ মার্কেট মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় আসামি করা হয়েছে পলাতক দুই গৃহকর্মী, স্বপ্না (৩০) ও রেশমাকে (৩৬)।

সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় পরিবারের পক্ষ থেকে মামলাটি দায়ের করা হয় বলে নিশ্চিত করেন নিউমার্কেট থানার ওসি আতিকুর রহমান। মামলার বাদী নিহত মাহফুজা চৌধুরীর স্বামী ও  মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ভাইস চেয়ারম্যান ইসমত কাদির গামা।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, সায়েন্স ল্যাব এলাকায় সুকন্যা টাওয়ারের ১৬/সি নম্বর ফ্ল্যাটে থাকতেন ৬৬ বছর বয়সী মাহফুজা চৌধুরী পারভীন। রোববার রাত ৮টায় বাসা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনার পর থেকেই ওই বাসায় কর্মরত দুই গৃহকর্মী নিখোঁজ রয়েছেন। পুলিশ ধারণা করছে, তারাই মাহফুজা চৌধুরীকে হত্যা করে পালিয়েছে।

পুলিশের রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার মারুফ হোসেন সর্দার এ বিষয়ে বলেন, পলাতক দুই কাজের মহিলাকে চিহ্নিত করা গেছে। তাদের একজনের বাড়ি শরীয়তপুর, আরেক জনের বাড়ি মাদারীপুর। তাদের ধরতে আমরা জোর তৎপরতা চালাচ্ছি।

এদিকে, সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত মাহফুজা চৌধুরী পারভীনের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে । ময়নাতদন্ত করেন ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ। তিনি বলেন, ময়নাতদন্ত শেষে আমরা দেখতে পাই মৃত নারীর ঠোঁটে, মুখে ও আঙুলে ধস্তাধস্তির চিহ্ন পাওয়া গেছে। একটা আঙ্গুল ভাঙ্গা ছিল।

তিনি বলেন, তাকে মুখ চেপে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ড একজনের পক্ষে সম্ভব নয়। একাধিক ব্যক্তি এই হত্যার সাথে জড়িত বলে জানান, ডা. সোহেল মাহমুদ।

এর আগে, মাহফুজার সুরতহাল রিপোর্ট সম্পন্ন করেন, নিউমার্কেট থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) স্বপন কান্তি দে। তিনি সুরতহালে উল্লেখ করেন, মৃতের মুখে রক্ত দেখা যায়, হাতের কয়েকটি আঙুলের কালো দাগ আছে। গতকাল বিকাল সাড়ে ৩টা হতে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার মধ্যে স্বামী ও সন্তানরা বাসায় না থাকায়, বাসার কাজের মেয়ে ও অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিরা তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে।

মৃতের স্বামী ইসমত কাদির গামা বলেন, ময়না তদন্ত শেষে মরদেহ প্রথমে ইডেন মহিলা কলেজে নিয়ে যাওয়া হবে। সোমবার বাদ আছর এ্যালিফ্যান্ট রোডের বায়তুল নুর জামে মসজিদে জানাজা সম্পন্ন করা হবে। পরে বনানী সামরিক কবরস্থানে মৃতকে দাফন করা হবে।

সারাবাংলা/ইউজে/এসএসআর/এনএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন