শুক্রবার ২৬ এপ্রিল, ২০১৯ ইং , ১৩ বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ শাবান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

ভরণ-পোষণ দিচ্ছে না ছেলে, বাবার মামলা

ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৯ | ২:০০ অপরাহ্ণ

।। আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।।

বাংলাদেশের চট্টগ্রামের বাসিন্দা আবু তাহের। ছোট একটি দোকান চালিয়ে সংসারের ঘানি টেনেছেন সারাজীবন। এই বৃদ্ধ কখনো ভাবেননি ৭৫ বছর বয়সে নিজের ছেলের বিরুদ্ধে মামলা করতে হবে তাকে। তাও বুড়ো বয়সে তাদের স্বামী-স্ত্রীকে ছেলের ভরণ-পোষণ না দেওয়ার অভিযোগে! আবু তাহেরের অভিযোগ ছেলে তার ভালোই ছিল। তবে বিয়ের পর বদলে গেছে। খবর বিবিসির।

আবু তাহের জানান, বয়সের কারণেই কাজ থেকে বিশ্রাম নেন তিনি। নির্ভরশীল হয়ে পড়েন ছেলেমেয়ের উপার্জন ও অর্থনৈতিক সাহায্যের ওপর। ছেলেমেয়েদের বড় করে তুলতে তার ও স্ত্রীর অনেক কষ্ট করতে হয়েছে। কিন্তু বিয়ে করার পর ছেলেটা কেমন  বদলে গেল। সে বাবা মায়ের দেখাশোনা করে না।

বিজ্ঞাপন

তবে মেয়ে অল্প যেটুকু পারছে সাহায্য করছে। তবু আবু তাহের ও তার স্ত্রীকে কষ্টে দিনাতিপাত করতে হচ্ছে। তাই তিনি ছেলে মোহাম্মদ শাহজাহানের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের ‘পিতা-মাতা ভরণ-পোষণ আইনে’ মামলা দায়ের করেছেন। এছাড়া, তার কোন উপায় ছিল না।

তাহের বলেন, মামলা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া আমার জন্য কঠিন ছিল। আরও আগে থেকেই অনেকেই আমাকে একথা বলছিল, কিন্তু আমি শুনিনি। শেষ পর্যন্ত আমার আর কোনো উপায় ছিল না।

পারিবারিক বন্ধন, মামলা, অভিযোগ,

তবে বাবা আবু তাহেরের সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ছেলে শাহজাহান। ব্যাংকে চাকরি করা এই ছেলে জানান, বাবা-মাকে তিনি নিয়মিত সাহায্য করেন। তাকে অপমান করার জন্য বাবা মামলা তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে।

আবু তাহের ছেলের বিরুদ্ধে ভরণ-পোষণ না দেওয়ার অভিযোগ যে মামলাটি করেছেন, তা খুব স্বাভাবিক বিষয় না। ইউরোপ বা আমেরিকায় এ ধরনের ঘটনা অহরহ দেখা গেলেও, বাংলাদেশের মতো পারিবারিক মূল্যবোধ সম্পন্ন দেশে এমন নজির দেখা যায় না।

ইমোরি ইউনিভার্সিটির স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের গবেষক ড. রেসেরানো এশিয়ার বিভিন্ন দেশে পারিবারিক সম্পর্ক ও বাবা মায়ের দায়ের করা মামলাগুলো নিয়ে গবেষণা করেছেন।

তার মতে, চীন, ভারত, বাংলাদেশ, হংকং- এ সংক্রান্ত আইন থাকলেও বিরোধ মীমাংসার নজির খুব কম। তবে অনেক সন্তানকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি চীনের সিচুয়ান প্রদেশে পাঁচজনকে দুবছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত বাবা-মায়ের দেখাশোনা না করায়। বাবা-মায়ের ভরণ পোষণ চালানোর ব্যত্যয় হওয়া উচিত নয় বলে মনে করেন এই গবেষক।

পারিবারিক বন্ধন, মামলা, অভিযোগ,

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, ২০২০ সালের মধ্যে পৃথিবীতে পাঁচ বছর বয়সী শিশুদের চেয়ে ৬০ বছর বয়সী বৃদ্ধ-বৃদ্ধার সংখ্যা হবে বেশি। ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বের ৮০ ভাগ বয়স্ক মানুষের বাস হবে মধ্য ও নিম্ন আয়ের দেশগুলোতে। তাই এধরনের সমস্যা আরও প্রকট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বাবা-মাকে অবহেলা বা পরিবারের মূল্যবোধ নষ্ট হওয়ার বিষয়গুলো উন্নত বা অনুন্নত কোন দেশেই আইন প্রয়োগ করে সমাধান করার মতো নয় বলে অভিমত বিশেষজ্ঞদের। কারণ দু পক্ষই অভিযোগের আঙুল তুলতে পারে। যেমন ছেলেমেয়েরা দাবি করতে পারি, বাবা-মা শৈশবে আমাদের অবহেলা করেছে। অন্যায় আচরণ করেছে। তাই এ ধরনের সামাজিক ও মানসিক পীড়নে আদালতের দ্বারস্থ হওয়াও কোন সমাধান নয়।

তবে বাংলাদেশের আইনটি আবু তাহেরের জন্য কাজে লেগেছে। আদালতের বাইরে এক অনানুষ্ঠানিক সমঝোতায়, আবু তাহেরের ছেলে শাহজাহান প্রতি মাসে তার পিতাকে ১০ হাজার টাকা করে দিতে সম্মত হয়েছে।

আবু তাহের বলেন, যদি তার ছেলে এভাবে প্রতিমাসে ভরণ-পোষণ দিতে থাকে। তাহলে তিনি মামলা তুলে নিবেন।

সারাবাংলা/এনএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন