বিজ্ঞাপন

সুর, রঙ আর উচ্ছ্বাস ছড়ানো বসন্ত উৎসব

February 13, 2019 | 10:59 am

।। কবির কানন, ঢাবি করেসপন্ডেট।।

বিজ্ঞাপন

‘আহা, আজি এ বসন্তে এতো ফুল ফোটে/এতো বাঁশি বাজে, এতো পাখি গায়...’কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের  বর্ণনার সেই ঋতুরাজ বসন্ত উদযাপন চলছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলায়। বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে ‘এসো মিলি প্রাণের উৎসবে’ স্লোগানে জাতীয় বসন্ত উৎসব উদযাপন পরিষদের আয়োজনে চারুকলায় বকুলতলায় বসন্ত উৎসবের উদ্বোধনী পর্ব শুরু হয় শাস্ত্রীয় সংগীতের মাধ্যমে।

বিজ্ঞাপন

সুরের মূর্ছনার আবেশ ছড়িয়ে পড়ে পুরো বকুলতলায়। একে একে পরিবেশন করা হয় গান, আবৃত্তি এবং নৃত্য। নানা বয়সী মানুষের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠে চারুকলা প্রাঙ্গণ।

এসেছে ঋতুরাজ বসন্ত

বিজ্ঞাপন

বসন্ত বরণ উৎসবে আসা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সোনিয়া নিশাত বলেন, শীতের সময় দেখা যায় যে জীর্ণতা আমাদের আঁকড়ে ধরে। কিন্তু বসন্তের রঙ আমাদের নতুন করে করে উজ্জীবিত করে।

সুর, রঙ আর উচ্ছ্বাস ছড়ানো বসন্ত উৎসব

বিজ্ঞাপন

তিন বছরের সন্তানকে কোলে করে নিয়ে আসা আকরাম হোসেন বলেন, বসন্ত বাঙালির প্রাণের উৎসব। আমার বাচ্চা যেন বাঙালির এই উৎসব সম্পর্কে জানতে পারে সেজন্যই বসন্ত উৎসবে এসেছি।

জাতীয় বসন্ত উৎযাপন পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মানজার চৌধুরী সুইট বলেন, বাঙালির হাজার বছরের যে সংস্কৃতি রয়েছে সেই সংস্কৃতি যেন আমরা সবাই মিলে পালন করি।

বিজ্ঞাপন

সুর, রঙ আর উচ্ছ্বাস ছড়ানো বসন্ত উৎসব

 বাসন্তী আর গাদা ফুলের রঙে সেজেছে নারীরা। ধর্ম আর বয়সের বেড়াজাল ভেঙে উৎসবে এসেছেন বয়োজ্যেষ্ঠরাও। বেশিরভাগ পুরুষের গায়ে ফতুয়া বা পাঞ্জাবি। অনেকের মুখে নানা রঙের আলপনা।

সুর, রঙ আর উচ্ছ্বাস ছড়ানো বসন্ত উৎসব

নৃত্য শিল্পী আলভি আক্তার সারাবাংলাকে বলেন, বসন্ত উৎসব আমার অনেক ভালো লাগে। কারণ চারপাশে রঙের একটা আমেজ থাকে। একেক বছর এই উৎসবকে নতুন মনে হয়।এই বসন্ত শুধু উচ্ছ্বাসের রঙ ছড়ায় না। এটি বাঙালির অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে উজ্জীবিত করে।

সুর, রঙ আর উচ্ছ্বাস ছড়ানো বসন্ত উৎসব

বসন্ত উৎসবের দ্বিতীয় পর্ব শুরু হবে দুপুর সাড়ে ৩টায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বকুলতলা, বাহাদুর শাহ পার্ক, ধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবর মঞ্চে একযোগে অনুষ্ঠান চলবে।

ছবি: আশীষ সেন গুপ্ত

সারাবাংলা/কেকে/জেডএফ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন