বিজ্ঞাপন

বাংলা একাডেমিতে আল মাহমুদের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা

February 16, 2019 | 12:05 pm

।। সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট ।।

বিজ্ঞাপন

ঢাকা: সব স্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য বাংলা সাহিত্যের অন্যতম কবি আল মাহমুদের মরদেহ নেওয়া হয়েছে বাংলা একাডেমিতে।

শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুর পৌনে ১২টার দিকে কবির মরদেহ নেওয়া হয় বাংলা একাডেমিতে। সেখানে কবিকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে উপস্থিত হয়েছেন কবি, সাহিত্যিকসহ সর্বস্তরের মানুষ।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন- আল মাহমুদের জানাজা বাদ জোহর, বায়তুল মোকাররমে

বাংলা একাডেমীতে কবির মরদেহ আনার পর সেখানে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী। এসময় কবি নুরুল হুদা, কবি আব্দুল হাই শিকদারসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

বাংলা একাডেমিতে আল মাহমুদের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা

পরে কবির মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় জাতীয় প্রেস ক্লাবে। সেখানে শ্রদ্ধা জানানো শেষে বাদ জোহর জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে কবির জানানা অনুষ্ঠিত হবে।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন- আল মাহমুদের কবিতা: সময়ের কাছে মনীষার দান

এর আগে, শুক্রবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) রাত ১১টা ৫ মিনিটে ধানমন্ডিতে ইবনে সিনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন ‘সোনালী কাবিন’খ্যাত আল মাহমুদ। শুক্রবার রাত পৌনে ১১টার দিকে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

নিউমোনিয়া ও বার্ধক্যজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হওয়ায় ৯ ফেব্রুয়ারি আল মাহমুদকে ধানমন্ডির শঙ্করের ইবনে সিনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে ভর্তির পর চিকিৎসকরা কবি আল মাহমুদকে সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণে রেখেছিলেন।

বাংলা একাডেমি

উল্লেখ্য, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মৌড়াইল গ্রামের মোল্লাবাড়িতে ১৯৩৬ সালের ১১ জুলাই আধুনিক বাংলা সাহিত্যের অন্যতম প্রধান কবি আল মাহমুদ জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬৩ সালে আল মাহমুদের প্রথম কবিতার বই ‘লোক লোকান্তর’ প্রকাশিত হয়। এরপর প্রকাশিত হয়, ‘কালের কলস’ ও ‘সোনালী কাবিন’। কবিতা ছাড়াও আল মাহমুদ লিখেছেন উপন্যাস, গল্প, প্রবন্ধ ও আত্মজীবনী।

সারাবাংলা/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন